Barta24

বুধবার, ১৭ জুলাই ২০১৯, ১ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

আইফোন মেরামতে লাগবে ৫১ হাজার টাকা

আইফোন মেরামতে লাগবে ৫১ হাজার টাকা
ছবি: সংগৃহীত
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

আইফোন মেরামতে লাগবে ৫১ হাজার টাকা- হ্যাঁ, ভুল শোনেননি, এই মেরামতের খরচ প্রকাশ করেছে অ্যাপল তাদের নিজস্ব ওয়েবসাইটে।

যে দামে যে কোন ব্রান্ড-এর একটি ফ্ল্যাগশিপ ফোন কেনা সম্ভব তা এখন খরচ করতে হবে আপনার  আইফোন মেরামতের পিছনে ।

অ্যাপল ওয়েবসাইট থেকে জানা যায়, যদি কোন কারণে আপনার হাত থেকে ফোনটি পড়ে গিয়ে পেছনের বা সামনের গ্লাস ফেটে যায় তাহলে তা মেরামত করতে আপনাকে গুনতে হবে ৫৯৯ ডলার বা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৫১ হাজার টাকা।

মেরামত মূল্যটি প্রযোজ্য হবে আইফোনের নতুন মুক্তি প্রাপ্ত ফোন আইফোন টেনএস ম্যাক্স (iphone 10s max) এর ক্ষেত্রে।

সম্প্রতি নতুন আইফোন ১০আর (iphone xR), ১০ এস (iphone xs) ও ১০ এস (iphone xs max) ম‍্যাক্স মেরামতের খরচ প্রকাশ করেছে অ্যাপল। সেখান থেকে  জানা যায় এসব তথ‍্য।

আইফোনের সবচেয়ে কমদামী সংস্করণ আইফোন ১০আর এর (iphone xR)  নচযুক্ত এলসিডি ডিসপ্লে মেরামত করতে খরচ হবে ১৯৯ মার্কিন ডলার বা প্রায় সাড়ে ১৫ হাজার টাকা। ১০ এস (iphone xs)  ও ১০ এস  ম‍্যাক্সের( iphone xs max)  সামনের ডিসপ্লে অংশ ঠিক করতে খরচ হবে যথাক্রমে ২৭৯ ডলার (২৩ হাজার ৫০০ টাকা) ও ৩২৯ ডলার ( ২৮ হাজার টাকা)। আইফোন ১০আর (iphone xr)  ও ১০ এস ( iphone xs)  পর্দা ও পেছনের কাঁচ মেরামতে খরচ হবে যথাক্রমে ৩৯৯ ও ৫৪৯ মার্কিন ডলার।

এছাড়া, সবগুলো ডিভাইসের ব‍্যাটারি পরিবর্তন করতে গুনতে হবে ৬৯ মার্কিন ডলার। অ্যাপল কেয়ার সেবার আওতায় না থাকলে গ্রাহকদের এই পরিমাণ অর্থ দিয়েই আইফোন মেরামত করতে হবে। তবে  ডিভাইসটি অ‍্যাপল কেয়ারের সেবার আওতায় থাকলে মেরামত খরচ অনেক কমে যাবে। আইফোন ১০এস ( iphone xs)  ও ১০ এস ম‍্যাক্সের( iphone xs max) জন্য অ‍্যাপল কেয়ার সেবার মূল‍্য ১৯৯ মার্কিন ডলার। সেবাটি কিনলে দুর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত ডিভাইসটি মেরামত করা যাবে ৯৯ মার্কিন ডলারে। এছাড়া, এই পর্দা মেরামতে খরচ হবে মাত্র ২৯ ডলার। তবে এ সুযোগ শুধু  দুইবারই পাওয়া যাবে।

আপনার মতামত লিখুন :

পিএসসি, বিটিভি ও সোনালী ব্যাংকের সেবা আদান প্রদানে চুক্তি স্বাক্ষর

পিএসসি, বিটিভি ও সোনালী ব্যাংকের সেবা আদান প্রদানে চুক্তি  স্বাক্ষর
চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে মোস্তাফা জব্বার ও সজিব ওয়াজেদ জয়, ছবি: সংগৃহীত

ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের অধীনে ডাক অধিদফতর, টেলিটক এবং বাংলাদেশ কমিউনিকেশনস স্যাটেলাইট কোম্পানি লি. এর সঙ্গে সেবা আদান-প্রদানের বিষয়ে সোনালী ব্যাংক লি. বাংলাদেশ পাবলিক সার্ভিস কমিশন এবং বাংলাদেশ টেলিভিশনের সাথে পৃথক তিনটি স্মারক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) বাংলাদেশ সচিবালয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সম্মেলন কক্ষে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এবং প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের উপস্থিতিতে এ চুক্তি স্বাক্ষর সম্পন্ন হয়।

অনুষ্ঠানে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব জনাব অশোক কুমার বিশ্বাস, পিএসসির চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ সাদিক, বাংলাদেশ টেলিভিশনের মহাপরিচালক মোহাম্মদ হারুন-অর-রশিদ উপস্থিত ছিলেন।

ডাক অধিদফতর ও সোনালী ব্যাংকের মধ্যে স্বাক্ষরিত চুক্তি অনুযায়ী ডাক বিভাগ প্রত্যন্ত অঞ্চলে সুবিধা বঞ্চিত মানুষের মধ্যে ডিজিটাল ব্যাংকিং ব্যবস্থা প্রবর্তনের ব্যবস্থা করবে। এর ফলে সাধারণ মানুষ ব্যাংক হিসাব খোলার সুযোগ লাভ করবে। এছাড়াও ক্যাশলেস সোসাইটি বিনির্মাণে ডাক বিভাগ কাজ করবে। চুক্তিতে ডাক অধিদফতরের মহাপরিচালক এসএস ভদ্র এবং সোনালী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. ওবায়েদ উল্লাহ আল মাসুদ নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে স্বাক্ষর করেন।

টেলিটক ও পিএসসির মধ্যে চুক্তি অনুযায়ী বাংলাদেশ সরকারি কর্মকমিশনের নিয়োগ প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে অনলাইনে আবেদন গ্রহণ, স্বয়ংক্রিয় প্রক্রিয়ায় এডমিট কার্ড বিতরণ, সিট প্ল্যানিং, হাজিরা সিট তৈরি এবং অনলাইনে ফলাফল প্রকাশ ইত্যাদি কার্যক্রম টেলিটকের মাধ্যমে পরিচালিত হবে। টেলিটক এমডি মোহাম্মদ শাহাবুদ্দিন এবং পিএসসির সচিব বেগম ও. এন সিদ্দিকা খানম স্ব স্ব প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

বাংলাদেশ টেলিভিশন এবং বাংলাদেশ কমিউনিকেশনস স্যাটেলাইট কোম্পানি লি. এর মধ্যে স্বাক্ষরিত চুক্তি অনুযায়ী বিটিভি বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর মাধ্যমে সম্প্রচার কার্যক্রম বাণিজ্যিকভাবে শুরু করবে। চুক্তিতে বিটিভির মহাপরিচালক এসএম হারুন-অর-রশিদ এবং বাংলাদেশ কমিউনিকেশনস স্যাটেলাইট কোম্পানি লি. এর ব্যবস্থাপনা পরিচারক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহরিয়ার আহমেদ চৌধুরী নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে স্বাক্ষর করেন।

বুধবার ‘পরিচয়’ গেটওয়ে উদ্বোধন করবেন জয়

বুধবার ‘পরিচয়’ গেটওয়ে উদ্বোধন করবেন জয়
ছবি: সংগৃহীত

সহজে এবং দ্রুত জাতীয় পরিচয়পত্র যাচাইয়ের গেটওয়ে ‘porichoy.gov.bd’ উদ্বোধন হবে বুধবার (১৭ জুলাই)। এদিন বিকেল ৩টায় তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এই সেবা সার্ভিসের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন তথ্য ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক।

‘পরিচয়’ হচ্ছে একটি গেটওয়ে সার্ভার, যা নির্বাচন কমিশনের জাতীয় ডাটাবেজের সাথে সংযুক্ত। এটি এমন একটি অ্যাপ্লিকেশন প্রোগ্রামিং যা সরকারি, বেসরকারি বা ব্যক্তিগত যে কোনো সংস্থার গ্রাহকদের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) যাচাই করে নিমিষেই সেবা দিতে পারবে। এনআইডি যাচাই করার জন্য এখন থেকে আর আগের মতো ৩-৫ কর্মদিবস অপেক্ষা করতে হবে না।

বর্তমান প্রক্রিয়ায়, নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইটে লগইন করে সংস্থাগুলো জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য ম্যানুয়ালি যাচাই করে থাকে। আবার অনেক সংস্থা এনআইডি যাচাইকরণও করে না, কারণ নির্বাচন কমিশনের এনআইডি ডাটাবেজের অ্যাক্সেস তাদের নেই। যা গ্রাহকদের জাল বা সঠিক আইডি যাচাই করার জন্য অনুমতি দেয়। কিন্তু ‘পরিচয় গেটওয়ে’ ব্যবহার করলে জাতীয় আইডি যাচাই করার জন্য কোন মানুষের প্রয়োজন নেই। যেকোনো প্রতিষ্ঠান সফটওয়্যারের মাধ্যমে ‘পরিচয় গেটওয়ে’ সার্ভারের সাথে সংযোগ স্থাপন করলে জাতীয় আইডি সনাক্তের ফলাফল সাথে সাথেই পাওয়া যাবে।

এর ফলে যারা এখন ব্যাংক একাউন্ট খোলা, ডিজিটাল ওয়ালেট একাউন্ট খোলা বা যে কাজগুলোতে জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধনের প্রয়োজন হয় তারা খুব উপকৃত হবে। তাদের জন্য অনেক সহজ ও সময় সাশ্রয় হবে।

‘পরিচয় গেটওয়ে’ গোপনীয়তা ও নিরাপত্তা বজায় রাখবে এবং জাতীয় পরিচয়পত্র যাচাইয়ের খরচ কমিয়ে কাজকে দ্রুত করবে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র