Alexa

আবারো চালু হলো অনুমোদনহীন পাঠাও পে

আবারো চালু হলো অনুমোদনহীন পাঠাও পে

পাঠাও পে

নতুন করে আবারো কার্যক্রম শুরু করেছে অনুমোদন না পাওয়া অনলাইন পেমেন্ট গেট ওয়ে সিস্টেম পাঠাও পে। তবে এবার কিছুটা ব্যতিক্রম আনা হয়েছে তাদের টাকা পরিশোধ ব্যবস্থায়। এখন আর পূর্বের মত করে টাকা রিচার্জ এর ব্যবস্থা না রেখে বরং সরাসরি ব্যাংক থেকে কার্ড নাম্বার এর মাধ্যমে আর্থিক লেনদেন করতে পারবেন গ্রাহকরা।

বুধবার (১৭ অক্টোবর) অনুমোদনহীনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক এর জনসংযোগ কর্মকর্তা সিরাজুল ইসলাম। তিনি বলেন,পাঠাও কে এখনো কোনো ধরনের পেমেন্ট গেটওয়ে ব্যবহার করার অনুমতি দেয়া হয়নি।

টাকা রিচার্জ নয়, কার্ডের নাম্বারের মাধ্যমে আর্থিক লেনদেনের বিষয়ে বার্তা২৪.কমকে বলেন, লেনদেন যে প্রকারেও হোক তার অবশ্যই অনুমোদন থাকতে হবে। কেননা কার্ডের নাম্বার এর সাথে গ্রাহকের নিরাপত্তার প্রশ্নটি জড়িত। তাই সঠিক পর্যবেক্ষণ না থাকলে তারা কোন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান থেকে সেবা নিচ্ছেন তা আমাদের আওতাধীন থাকেনা। এতে করে কোন গ্রাহক ক্ষতিগ্রস্ত হলে তখন গ্রাহকের জন্য আমাদের কিছু করার থাকেনা।

এ বিষয়ে পাঠাও এর সাথে যোগাযোগ করা হলে জনসংযোগ কর্মকর্তা নাফিসা আদিতি বার্তা২৪.কম জানান, পুরো বিষয়টি এখনো প্রক্রিয়াধীন। তাই এ বিষয়ে এখনি মন্তব্য করতে রাজী হয়নি পাঠাও কর্তৃপক্ষ।

তবে পাঠাও পে এর চালু করার কারণ উল্লেখ করতে গিয়ে প্রতিষ্ঠানটির ভাইস প্রেসিডেন্ট আহমেদ ফাহাদ বার্তা২৪.কমকে জানিয়েছেন ‘ আমরা আসলে টাকা আদান প্রদান এর পুরো বিষয়টিকে সহজ করতে চেয়েছি। অন্যান্য গেটওয়ে ব্যবহার করতে হলে অনেকগুলো ধাপ পার হতে হয় কিন্তু এখানে গ্রাহক ও চালক একেবারেই পরিশোধ করে দিতে পারছে।

এর বিড়ম্বনার বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, যে কোন পদক্ষেপের শুরুতেই বিড়ম্বনা থাকে , আস্তে আস্তে সেগুলো সীমিত হয়ে আসে।

উল্লেখ্য ২০১৮ সালের মে মাসে চালু হয় এই পাঠাও ই-ওয়ালেট তবে চালু হবার কয়েকমাস পরেই- ওয়ালেট সেবা ব্যবহার করে আর্থিক লেনদেন অনুমোদনহীন ঘোষণা করে বাংলাদেশ ব্যাংক। এরপরই কারিগরি প্রক্রিয়ার উন্নয়ন চলছে এমন বার্তা প্রদান করে সম্পূর্ণ সেবা বন্ধ করে দেয় পাঠাও কর্তৃপক্ষ।

আপনার মতামত লিখুন :