Barta24

সোমবার, ২৬ আগস্ট ২০১৯, ১১ ভাদ্র ১৪২৬

English

মাধবপুরে হাওরে নৌকাডুবি: দুই নারীর মৃত্যু

মাধবপুরে হাওরে নৌকাডুবি: দুই নারীর মৃত্যু
হবিগঞ্জের হাওর, পুরনো ছবি
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
হবিগঞ্জ


  • Font increase
  • Font Decrease

হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার দনকুড়া এলাকার হাওরে নৌকাডুবিতে দুই নারীর মৃত্যু হয়েছে।

বুধবার (১৪ আগস্ট) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগরের ইটনা উপজেলার সৈয়দা বানু (৬০) ও সায়েরা বানু (৬০)।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে মাধবপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কেএম আজমিরুজ্জান জানান, সন্ধ্যায় মাধবপুরের বুল্লা থেকে একটি যাত্রীবাহী নৌকা কিশোরগঞ্জের খড়মপুরে কেল্লা শাহ’র মাজারের উদ্দেশে যাচ্ছিলেন তারা। পথিমধ্যে দনকুড়া এলাকায় নৌকাটি ডুবে যায়। এ সময় দুইজনকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।

মরদেহ দুটি তাদের পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

আপনার মতামত লিখুন :

নোয়াখালীর কবিরহাটে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণ

নোয়াখালীর কবিরহাটে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণ
ছবি: প্রতীকী

নোয়াখালীর কবিরহাটের চাপরাশিরহাট ইউনিয়নে এক কলেজছাত্রীকে (২৪) ধর্ষণ করা হয়েছে। সাইফুর রহমান (২৭) নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে এ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

সোমবার (২৬ আগস্ট) সকালে ভিকটিম বাদী হয়ে কবিরহাট থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। অভিযুক্ত সাইফুর রহমান কবিরহাট পৌরসভার পূর্ব ফতেজঙ্গপুর গ্রামের সেকান্তর মিয়ার ছেলে।

ভিকটিম ওই ছাত্রী চাপরাশিরহাট ইউনিয়নের নরসিংহপুর গ্রামের বাসিন্দা। তিনি কবিরহাট সরকারি কলেজের ডিগ্রি শেষ বর্ষের ছাত্রী।

ভিকটিমের অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, প্রবাসী সাইফুর রহমানের সঙ্গে দীর্ঘ ৭ বছর প্রেমের সম্পর্ক চলে ওই ছাত্রীর। বিদেশ থেকে আসার পর নিয়মিত সাইফুর রহমানের সঙ্গে তার যোগাযোগ হতো। গত ২৩ আগস্ট শুক্রবার বিকেলে তারা এক সঙ্গে ঘুরতে বের হয়। ঘোরাঘুরি শেষে সন্ধ্যায় সাইফুর ভিকটিমকে তার বাড়ির একটি নির্মাণাধীন ঘরের ছাদে নিয়ে যায়। পরে তাকে ধর্ষণ করে। শনিবার ভোরে তাকে কৌশলে বাড়িতে পাঠিয়ে দিয়ে যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়।

কবিরহাট থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) টমাস বড়ুয়া জানান, ভিকটিমের অভিযোগের ভিত্তিতে সাইফুর রহমানকে গ্রেফতারের জন্য অভিযান চলছে। ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ভিকটিমকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আগুনে মাছের আড়তসহ ১০ দোকান পুড়ে ছাই

আগুনে মাছের আড়তসহ ১০ দোকান পুড়ে ছাই
কোম্পানীগঞ্জ বাজারে লাগা আগুন। ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম।

কুমিল্লার মুরাদনগরে অগ্নিকাণ্ডে মাছের আড়তসহ ১০ দোকান পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

রোববার (২৫ আগস্ট) রাতে উপজেলার কোম্পানীগঞ্জ বাজারে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ৫ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে যাওয়া দোকানগুলোর মধ্যে রয়েছে- আঁখি এন্টারপ্রাইজ, প্লাস্টিক সামগ্রী বিক্রয়ের দোকান, মাছের আড়ত, বস্তা বিক্রয়ের দোকান এবং বাকি ৬টি ভাঙারির দোকান।

মুরাদনগর ফায়ার সার্ভিস ইউনিটের স্টেশন অফিসার মো. বিল্লাল হোসেন বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ‘রাত সোয়া ১২টার দিকে অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে আমাদের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে যায়। পরে ৫ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে ভোরের দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ততক্ষণে মাছের আড়তসহ ১০টি দোকান পুড়ে ছাই হয়ে যায়।’

তবে কীভাবে এ অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়েছে তা এখনো জানা যায়নি। তদন্ত করে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নির্ধারণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র