Barta24

সোমবার, ২৬ আগস্ট ২০১৯, ১১ ভাদ্র ১৪২৬

English

রাস্তার ইট তুলে নিয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা

রাস্তার ইট তুলে নিয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা
সরকারি রাস্তার ইট তুলে নিয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা জামাল উদ্দিন চৌধুরী/ ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
বান্দরবান


  • Font increase
  • Font Decrease

বান্দরবান সদর থানায় বিশ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মিত সরকারি রাস্তার ইট তুলে নিয়েছেন সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা জামাল উদ্দীন চৌধুরী। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে সদর থানায় একটি মামলা হয়েছে।

ঠিকাদার সূত্রে জানা যায়, বান্দরবান সদর উপজেলার কুহালং ইউনিয়নের লেমুঝিড়ি এলাকায় পার্বত্য জেলা পরিষদের অর্থায়নে ২০ লাখ টাকা ব্যয়ে পাহাড়ের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠী খেয়াং সম্প্রদায়ের ছাত্রদের হোস্টেলে যাওয়ার জন্য ২০১৮ সালে ৪০০ মিটার ইটের রাস্তা নির্মাণ করা হয়।

নির্মাণ কাজের একবছর পূর্ণ না হওয়ায় ঠিকাদার এখনো সিকিউরিটি বিল উত্তোলন করতে পারেননি। এরই মধ্যে আওয়ামী লীগ নেতা জামাল উদ্দিন চৌধুরী নিজের প্রভাব খাটিয়ে রাস্তাটির সবকটি ইট তুলে নিয়ে গেছেন।

কাজের জামানতের টাকা উত্তোলনের জন্য বুধবার (১৪ আগস্ট) ঠিকাদার রাস্তার ছবি তুলতে গিয়ে দেখেন, রাস্তা থেকে কয়েকজন শ্রমিক ইটগুলো তুলে ফেলছেন। শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলে জানেন, জামাল উদ্দিন চৌধুরী রাস্তার ইটগুলো তুলে নিতে শ্রমিকদের কাজে লাগিয়েছেন।

তাৎক্ষণিক বিষয়টি পার্বত্য জেলা পরিষদের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানালে তারা সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরির্দশন করেছে। স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে ইটগুলো তুলে নেওয়ার প্রমাণ পাওয়ায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ঘটনার পর থেকে জামাল উদ্দিন চৌধুরী পলাতক রয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/14/1565792040520.gif

নির্মাণ কাজের ঠিকাদার আব্দুল মোমেন বলেন, ‘একবছর আগে রাস্তাটি নির্মাণ করেছি। এখনো কাজের জামানতের টাকাও উত্তোলন করিনি। জামানতের জন্য বুধবার রাস্তার ছবি তুলতে গিয়ে দেখি রাস্তার ইটগুলো তুলে নেওয়া হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘জেলা পরিষদকে জানিয়েছি, এ বিষয়ে এখন তারা ব্যবস্থা নেবে। কারণ আমরা রাস্তা নির্মাণ করেছি, পরিষদকে কাজও বুঝিয়ে দিয়েছি।’

এদিকে, ইট তোলে নেওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করে আওয়ামী লীগ নেতা জামাল উদ্দীন চৌধুরী বলেন, ‘আশপাশের জমিগুলো থেকে রাস্তাটি উচুঁ হওয়ায় পাশ্ববর্তী মানুষের জমিতে পানি ঢুকে পড়ছে। সমস্যাটি সমাধানের জন্য আমি রাস্তার ইটগুলো উত্তোলন করতে বলেছি, যাতে রাস্তাটি নিচু করে আবার ইটগুলো বিছিয়ে দেওয়া যায়।’

তিনি বলেন, ‘রাস্তাটি নির্মাণের সময় পার্বত্য জেলা পরিষদ সদস্য ম্রাসা খেয়াং ও ঠিকাদারকে কয়েক বার বলেছি। তারা কেউই আমার কথা শুনেনি। তাই বাধ্য হয়ে নিজেই রাস্তাটি সংস্কারের জন্য ইটগুলো তুলেছি। মাটি কেটে নিচু করে আবার ইট বিছিয়ে দেওয়া হবে।’

এ ব্যাপারে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের নির্বাহী প্রকৌশলী মাহবুবুর রহমান জানান, সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে ইঞ্জিনিয়াররা। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পার্বত্য জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে সদর থানায় একটি মামলা করা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :

টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী নিহত

টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী নিহত
ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে মোহাম্মদ হাসান (৩০) নামে এক রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী নিহত হয়েছেন। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র ও কার্তুজ উদ্ধার করা হয়।

সোমবার (২৬ আগস্ট) ভোররাতে টেকনাফের জাদিমোরা পাহাড়ে এ ঘটনা ঘটে। নিহত হাসান নয়াপাড়া রোহিঙ্গা শিবিরের মোহাম্মদ আমিরুল ইসলামের ছেলে। হাসান যুবলীগ নেতা ওমর ফারুক হত্যা মামলার অন্যতম আসামি।

টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, আটকের পর হাসানকে নিয়ে অস্ত্র উদ্ধারে অভিযানে গেলে তার সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্রসহ হাসানকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়। তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি আরও জানান, ময়না তদন্তের জন্য তার লাশ কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। হাসানের বিরুদ্ধে হত্যাসহ কয়েকটি মামলা রয়েছে।

পাবনায় জমি নিয়ে বিরোধে এক ব্যাক্তি খুন

পাবনায় জমি নিয়ে বিরোধে এক ব্যাক্তি খুন
ছবি: সংগৃহীত

পাবনা সদর উপজেলার দোগাছী ইউনিয়নে জমি নিয়ে বিরোধে প্রতিপক্ষের হামলায় ইদ্রিস আলী (৫০) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও দু’জন।

সোমবার (২৬ আগস্ট) সকালে পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য পাবনা
জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

এর আগে রোববার (২৫ আগস্ট) রাত সাড়ে ১১ টার দিকে উপজেলার কুলুনিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওবাইদুল হক জানান, দোগাছী ইউনিয়নের কুলুনিয়া গ্রামে একটি জমির মালিকানা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ওই এলাকার আশরাফ আলী ও ইদ্রিস আলীর মধ্যে মালিকানা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এরই জের ধরে ঘটনার রাতে দুই পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে।

তিনি আরও জানান, সংঘর্ষে প্রতিপক্ষের ধারালো অস্ত্রাঘাতে ইদ্রিস আলী গুরুতর আহত হন। তাকে চিকিৎসার জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত
চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এ সংঘর্ষের ঘটনায় আহত রিপন আলী (৩০) ও সিদ্দিক
আলী (৩৫) নামের অপর দুইজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র