Barta24

মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯, ৫ ভাদ্র ১৪২৬

English

ঈদযাত্রা: শেষ সময়ে স্বস্তিতে ঘরে ফিরছেন যাত্রীরা

ঈদযাত্রা: শেষ সময়ে স্বস্তিতে ঘরে ফিরছেন যাত্রীরা
যাত্রীদের ঝামেলাহীন যাত্রা, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
রাজবাড়ী


  • Font increase
  • Font Decrease

রাত পোহালেই অনুষ্ঠিত হবে মুসলিম সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আজহা। এরই মধ্যে প্রিয়জনদের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে কর্মস্থান ত্যাগ করেছেন মানুষজন। বেশিরভাগ মানুষই ঘরে ফিরেছেন। এখনো অনেকেই ফিরছেন নিজ নিজ গন্তব্যে। এতে পরিবহনের চাপ এখনো কিছুটা রয়েছে। লোকাল যাত্রীদের সেই উপচে পড়া ভিড় এখন আর তেমন একটা নেই।

কোনোরকম ভোগান্তি ছাড়াই এবার দেশের দক্ষিণ-পশ্চিাঞ্চলের ২১ জেলার মানুষের অন্যতম প্রবেশদ্বার রাজবাড়ীর গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া ফেরি ঘাট দিয়ে নির্বিঘ্নে ও স্বস্তিতে ঘরে ফিরছেন তারা। কোনোরকম হয়রানি বা ঝামেলা ছাড়াই গন্তব্যে পৌঁছাতে পেরে মহা খুশি এই নৌ-রুটের যাত্রীরা। ভোগান্তি ছাড়া বাড়ি ফিরতে পেরে তারা সরকার ও ঘাট ব্যবস্থাপনার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি কৃতজ্ঞতাও প্রকাশ করেছেন।

রোববার (১১ আগস্ট) দুপুরে দৌলতদিয়া ঘাটে দেখা যায়, যাত্রীর তেমন একটা চাপ নেই। আর যারা পাটুরিয়া থেকে লঞ্চ পার হয়ে এসেছেন তারা বাস টার্মিনালে বিভিন্ন রুটের সারিবদ্ধ হয়ে থাকা বাসে করে ঘরে ফিরছে। ঘাট এলাকায় এসে কোনো ধরনের ভোগান্তিতেই তাদের পড়তে হচ্ছে না। ঈদে ঘরমুখো মানুষ যাতে নির্বিঘ্নে ঘরে ফিরতে পারে সেজন্য তৎপর রয়েছে আইনশৃঙ্খলাবাহিনী।

শেষ সময়ে স্বস্তিতে ঘরে ফিরছেন যাত্রীরা

কুষ্টিয়ার কুমারখালীর বাসিন্দা আলফাজ রহমান বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম-কে বলেন, 'এতো তাড়াতাড়ি নদী পার হতে পারব তা ভাবিনি। সকাল ৭টায় গাবতলী থেকে অগ্রদূত বাসে যাত্রা শুরু করেছি। পাটুরিয়া আসতে মাত্র সাড়ে তিন ঘণ্টা সময় লেগেছে। নদী পার হয়ে এখন দৌলতদিয়া বাস টার্মিনাল থেকে কুষ্টিয়াগামী বাসে উঠব। স্বাভাবিক দিনের থেকে এবার মাত্র ঘণ্টাখানেক সময় বেশি লেগেছে। এটা কোনো বিষয় না।'

রাজবাড়ী পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম-কে বলেন, 'যাত্রীদের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে এবার ঘাট এলাকা পুরো সিসি ক্যামেরার আওতায় ছিল। তাছাড়া এবার ঘাট এলাকায় সড়কের পাশে অবৈধ ভ্রাম্যমাণ কোনো টিকিট কাউন্টার বসতে দেইনি। চেষ্টা করেছি ঘাটকে দালালমুক্ত করতে। জানি না ঈদে ঘরমুখো মানুষের এতে কতটুকু উপকার হয়েছে।'

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহনের (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া ঘাট শাখার ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) আবু আব্দুল্লাহ রনি বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম-কে বলেন, 'অতিরিক্ত যাত্রী ও যানবাহনের চাপ সামাল দিতে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌ-রুটে ২০টি করে ফেরি চলাচল করেছে। তবে নদীতে স্রোতের কিছুটা বেগ থাকায় ফেরিগুলোর চলতে একটু সময় বেশি লেগেছে। যার কারণে ঘাটে এসে যানবাহনগুলোকে কয়েক ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হয়েছে। তবে এতে যাত্রী ও চালকদের তেমন একটা অভিযোগ নেই।'

আপনার মতামত লিখুন :

কুষ্টিয়ায় পিস্তল, গুলি, ম্যাগাজিন ইয়াবাসহ আটক ৫

কুষ্টিয়ায় পিস্তল, গুলি, ম্যাগাজিন ইয়াবাসহ আটক ৫
আটক হওয়া ৫ আসামি, ছবি: সংগৃহীত

কুষ্টিয়ায় ১টি পিস্তল, পিস্তলের ২ রাউন্ড গুলি, ১টি ম্যাগাজিন এবং ২০০ পিস ইয়াবাসহ ৫ জনকে আটক করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।

মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) দুপুরে কুষ্টিয়া শহরের থানাপাড়া ঈদগা মাঠের মিনারের সামনে থেকে তাদের আটক করা হয়।

পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাতের সার্বিক দিক নির্দেশনায় জেলা গোয়েন্দা পুলিশের এসআই মোঃ সাহেব আলীর নেতৃত্বে কুষ্টিয়া মডেল থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন, কুষ্টিয়া শহরের আড়ুয়াপাড়া মন্ডলপাড়া এলাকার জয়নাল আবেদীনের ছেলে মোঃ আবু সাইদ (৪০), আড়ুয়াপাড়া ১নং মসজিদ বাড়ি লেনের মৃত মোশারফ হোসেনের ছেলে মোঃ কাউছার বাবু ওরফে করিয়া বাবু (৪৫),

সাংউত্তর চর আমলাপাড়া এলাকার মুন্সি ফয়েজুল ইসলামের ছেলে মোঃ শফিউল ইসলাম লিটু (৪২), হাউজিং বি ব্লক,সম্প্রসারণ-১৬ এলাকার মৃত সদর উদ্দিনের ছেলে মোঃ শফিকুল ইসলাম রানা (৩৯), রাজবাড়ী জেলার পশ্চিম ভবানীপুর রেল কলোনী ৮নং ওয়ার্ড এলাকার মৃত হাজী আব্দুস সাত্তারের ছেলে মোঃ ইমরুল হাসান মধু (৩৮)।

এ ঘটনায় আসামিদের বিরুদ্ধে কুষ্টিয়া মডেল থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।

১৮ দিনেও উদ্ধার হয়নি শিশু মুরসালিন, গ্রেফতার ২

১৮ দিনেও উদ্ধার হয়নি শিশু মুরসালিন, গ্রেফতার ২
শিশু মুরসালিন সরদার। ছবি: সংগৃহীত

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে মুরসালিন সরদার (৬) নামে এক শিশু অপহরণ মামলায় ২ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তবে ১৮ দিনেও উদ্ধার হয়নি শিশুটি। গ্রেফতারকৃতরা হলেন- কাশিয়ানী উপজেলার সাজাইল ইউনিয়নের আমডাকুয়া গ্রামের আসাদ মুন্সী (৬০) ও হারুন সরদার (৫৭)।

রোববার (১৮ আগস্ট) নিখোঁজ মুরসালিনের বাবা বাচ্চু সরদার বাদী হয়ে কাশিয়ানী থানায় এ মামলাটি দায়ের করেন। তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে সোমবার (১৯ আগস্ট) জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ২ আগস্ট দুপুরে শিশু মুরসালিন পাশের মসজিদে নামাজ আদায় শেষে বাড়ি ফিরছিল। পথে সাজাইল পুরানো ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের কাছে পৌঁছালে অজ্ঞাত ৫-৬ লোক একটি সাদা মাইক্রোবাসে মুরসালিনকে জোর করে তুলে নিয়ে দ্রুত ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের দিকে যায়।

মুরসালিন গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীর সাজাইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশু শ্রেণির ছাত্র ও আমডাকুয়া গ্রামের বাচ্চু সরদারের ছেলে।

কাশিয়ানী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আজিজুর রহমার জানান, এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদেরকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র