Barta24

মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯, ৫ ভাদ্র ১৪২৬

English

দৌলতদিয়ায় নদী পারের অপেক্ষায় সহস্রাধিক যান

দৌলতদিয়ায় নদী পারের অপেক্ষায় সহস্রাধিক যান
নদী পারের অপেক্ষায় কোরবানির গরুবাহী ট্রাক, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
সোহেল মিয়া
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
 রাজবাড়ী


  • Font increase
  • Font Decrease

বৈরী আবহাওয়া, তীব্র স্রোত আর ফেরি স্বল্পতার কারণে চরম ভোগান্তিতে পড়েছে দেশের দক্ষিণাঞ্চলের ২১ জেলার মানুষের অন্যতম প্রবেশদ্বার রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ফেরিঘাট। নদী পারের অপেক্ষায় রয়েছে প্রায় সহস্রাধিক যানবাহন। এর মধ্যে পশুবাহী ট্রাক রয়েছে তিন শতাধিক। সময় মতো গরুগুলো হাটে তুলতে না পারায় মারাত্মক অর্থনৈতিক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে গরু ব্যবসায়ীরা।

স্বাভাবিক সময়ে দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌরুট দিয়ে প্রতিদিন দুই হাজারের বেশি ছোট বড় যানবাহন চলাচল করে। ঈদের সময় সে সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় দ্বিগুণ। অথচ ঘাট কর্তৃপক্ষ সে তুলনায় ফেরির সংখ্যা বাড়ায় না। এরমধ্যেও অনেক ফেরি নষ্ট হয়ে ঘাটে বসে থাকে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/08/1565238901172.jpg

বর্তমানে এ রুটে ১৯টি ফেরির মধ্যে ১৭টি ফেরি চলাচল করছে। দুটি ফেরি নষ্ট হয়ে ঘাটে বসে আছে। এতো অল্প ফেরি দিয়ে ঘাটের যানজট নিরসন সম্ভব নয় বলে অভিযোগ যাত্রী ও চালকদের।

তবে বিআইডব্লিউটিসি বলছে- যথেষ্ট ফেরি রয়েছে। এক সঙ্গে অনেক গাড়ি আসায় চাপ বেড়েছে।

বৃহস্পতিবার (৮ আগস্ট) সকালে দেখা যায়, দৌলতদিয়া জিরো পয়েন্ট থেকে খানখানাপুর ছোট ব্রিজ পর্যন্ত প্রায় ৮ কিলোমিটার নদী পারের জন্য ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে প্রায় সহস্রাধিক গাড়ি ঘণ্টার পর ঘণ্টা অপেক্ষা করছে। এর মধ্যে গরুর গাড়ি রয়েছে প্রায় সাড়ে ৩০০ এর মতো। সময় মতো গরুগুলো হাটে তুলতে না পারায় অনেক ব্যবসায়ী তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/08/1565238919788.jpg

মাগুরা থেকে আসা গরুব্যবসায়ী রহমত আলী বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ‘ঘাট কর্তৃপক্ষের মাথায় কোনো বুদ্ধি নেই। তারা জানে না কোরবানি ঈদের আগে ঘাটে অতিরিক্ত গরুর গাড়ির চাপ থাকে। তারা কেন আগে ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। এখন আমাদের যে ক্ষতি হবে তা কে দেবে?’

কুষ্টিায়া থেকে আসা আরেক গরু ব্যবসায়ী সালাম মোল্লা বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ‘বুধবার (৭ আগস্ট) বিকেলে এখানে এসেছি। অথচ এখনো ঘাট থেকে প্রায় তিন কিলোমিটার দূরে পড়ে আছি। ঘাটের যে অবস্থা তাতে আজ নদী পার হতে পারব কিনা জানি না।’

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহনের (বিআইডব্লিউটিসি) দৌলতদিয়া ঘাট শাখার ব্যবস্থাপক (বাণিজ্য) আবু আব্দুল্লাহ রনি বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ‘এখানে কোনো ফেরির স্বল্পতা নেই। তীব্র স্রোত ও বৈরী আবহাওয়ার কারণে ফেরিগুলো ঠিক মতো চলতে পারছে না। স্বাভাবিক সময় থেকে দ্বিগুণ সময় লাগায় ফেরির টিপ সংখ্যা কমে গেছে। তাছাড়া এক সঙ্গে অনেক গাড়ি প্রবেশ করায় ঘাটে যানজট সৃষ্টি হয়েছে।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/08/1565238932405.jpg

১৭টি ফেরি দিয়ে এতো গুরুত্বপূর্ণ নৌরুটে যানবাহন পারাপার সম্ভব কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আজকের মধ্যে আরও একটি ফেরি আসবে। আর যে দুটি ফেরি নষ্ট হয়ে বসে আছে সেগুলোও দ্রুত মেরামত করা হচ্ছে। আশা করছি ২০টি ফেরি নিয়মিত চলছে আর সমস্যা হবে না।’

আপনার মতামত লিখুন :

নরসিংদীতে বালু উত্তোলনের দায়ে দু’ব্যক্তিকে আটক

নরসিংদীতে বালু উত্তোলনের দায়ে দু’ব্যক্তিকে আটক
বালু উত্তোলনের অবৈধ যন্ত্রপাতি আটক করা হয়, ছবি: সংগৃহীত

নরসিংদীর পুটিয়া বাজারের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া পুরাতন ব্রহ্মপুত্র নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের বিষয়ে অভিযান পরিচালনা করেছে নরসিংদী জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) দুপুরে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়। নরসিংদী সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো: শাহ আলম মিয়ার নেতৃত্বে এই অভিযান পরিচালিত হয়। অভিযানের সময় নরসিংদী জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো: শাহরুখ খান উপস্থিত ছিলেন। নরসিংদী সদর উপজেলার সোনাতলা এলাকার একটি চক্র দীর্ঘদিন যাবত ব্রহ্মপুত্র নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে আসছে।

ফলে আশপাশের মসজিদ ও দোকানপাট ঝুঁকির সম্মুখীন হচ্ছে। এ অবস্থায় এই অভিযান পরিচালনা করে নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করার দায়ে দু’ব্যক্তিকে আটক করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এছাড়া বালু উত্তোলনের কাজে ব্যবহৃত যন্ত্রপাতিও জব্দ করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

 

কুষ্টিয়ায় পিস্তল, গুলি, ম্যাগাজিন ইয়াবাসহ আটক ৫

কুষ্টিয়ায় পিস্তল, গুলি, ম্যাগাজিন ইয়াবাসহ আটক ৫
আটক হওয়া ৫ আসামি, ছবি: সংগৃহীত

কুষ্টিয়ায় ১টি পিস্তল, পিস্তলের ২ রাউন্ড গুলি, ১টি ম্যাগাজিন এবং ২০০ পিস ইয়াবাসহ ৫ জনকে আটক করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।

মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) দুপুরে কুষ্টিয়া শহরের থানাপাড়া ঈদগা মাঠের মিনারের সামনে থেকে তাদের আটক করা হয়।

পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাতের সার্বিক দিক নির্দেশনায় জেলা গোয়েন্দা পুলিশের এসআই মোঃ সাহেব আলীর নেতৃত্বে কুষ্টিয়া মডেল থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন, কুষ্টিয়া শহরের আড়ুয়াপাড়া মন্ডলপাড়া এলাকার জয়নাল আবেদীনের ছেলে মোঃ আবু সাইদ (৪০), আড়ুয়াপাড়া ১নং মসজিদ বাড়ি লেনের মৃত মোশারফ হোসেনের ছেলে মোঃ কাউছার বাবু ওরফে করিয়া বাবু (৪৫),

সাংউত্তর চর আমলাপাড়া এলাকার মুন্সি ফয়েজুল ইসলামের ছেলে মোঃ শফিউল ইসলাম লিটু (৪২), হাউজিং বি ব্লক,সম্প্রসারণ-১৬ এলাকার মৃত সদর উদ্দিনের ছেলে মোঃ শফিকুল ইসলাম রানা (৩৯), রাজবাড়ী জেলার পশ্চিম ভবানীপুর রেল কলোনী ৮নং ওয়ার্ড এলাকার মৃত হাজী আব্দুস সাত্তারের ছেলে মোঃ ইমরুল হাসান মধু (৩৮)।

এ ঘটনায় আসামিদের বিরুদ্ধে কুষ্টিয়া মডেল থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র