Barta24

মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯, ৫ ভাদ্র ১৪২৬

English

১২ হাজার টাকায় শিশু বিক্রি

১২ হাজার টাকায় শিশু বিক্রি
উদ্ধারকৃত শিশু তৌহিদ/ ছবি: সংগৃহীত
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
নরসিংদী


  • Font increase
  • Font Decrease

নরসিংদীর পলাশে সারে তিন বছরের এক শিশুকে হারানোর নাটক সাজিয়ে ১২ হাজার টাকায় বিক্রির অভিযোগে শিশুটির নানিকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় তার দেওয়া তথ্যমতে মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) সকালে গাজীপুরের কাপাসিয়ার দক্ষিণগাও গ্রাম থেকে শিশু তৌহিদকে উদ্ধার করে পলাশ থানা পুলিশ।

পলাশ থানা পুলিশ জানায়, উপজেলার ঘোড়াশাল পৌর এলাকার বালুচর পাড়া নামক গ্রামের নান্নু মিয়ার মেয়ে রেক্সোনা তিন মাস আগে গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার জামালপুর গ্রামের হতদরিদ্র আলাউদ্দিনের কাছ থেকে তৌহিদ নামের ঐ শিশুটিকে দত্তক আনেন।

পরে গত ঈদুল ফিতরের ১০ দিন পর শিশু তৌহিদকে রেক্সোনা তার মা-বাবার কাছে রেখে সাতক্ষীরা তার স্বামীর বাড়িতে চলে গেলে রেক্সোনার মা-বাবা শিশুটিকে লালন-পালন করতে থাকেন। এদিকে গত রোববার সন্ধ্যায় রেক্সোনার বাবা নান্নু মিয়া শিশু তৌহিদ নিখোঁজ বলে পলাশ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি দায়ের করেন।

সোমবার দিনব্যাপী এলাকাজুড়ে শিশু তৌহিদের সন্ধান চেয়ে মাইকিংও করা হয়। এদিকে থানার এস আই সুমন মিয়া শিশু তৌহিদ হারানোর বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে তদন্তে নামেন। পরে তদন্তকালে রেক্সোনার মা রানু বেগম (৫২)-কে সন্দেহ হলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে আটক করেন।

দীর্ঘক্ষণ জিজ্ঞাসাবাদের পর রানু বেগম শিশু তৌহিদকে ১২ হাজার টাকায় গাজীপুরের কাপাসিয়ার দক্ষিণ গাও গ্রামের নিঃসন্তান বাবুল মিয়ার কাছে বিক্রি করে দেওয়ার কথা স্বীকার করে। পরে মঙ্গলবার সকালে পলাশ থানা পুলিশ কাপাসিয়া থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

এ ব্যাপারে পলাশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মো. নাসির উদ্দিন জানান, শিশু তৌহিদকে উদ্ধার করা হয়েছে। অভিযুক্ত রানু বেগমের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

আপনার মতামত লিখুন :

কুষ্টিয়ায় পিস্তল, গুলি, ম্যাগাজিন ইয়াবাসহ আটক ৫

কুষ্টিয়ায় পিস্তল, গুলি, ম্যাগাজিন ইয়াবাসহ আটক ৫
আটক হওয়া ৫ আসামি, ছবি: সংগৃহীত

কুষ্টিয়ায় ১টি পিস্তল, পিস্তলের ২ রাউন্ড গুলি, ১টি ম্যাগাজিন এবং ২০০ পিস ইয়াবাসহ ৫ জনকে আটক করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।

মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) দুপুরে কুষ্টিয়া শহরের থানাপাড়া ঈদগা মাঠের মিনারের সামনে থেকে তাদের আটক করা হয়।

পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাতের সার্বিক দিক নির্দেশনায় জেলা গোয়েন্দা পুলিশের এসআই মোঃ সাহেব আলীর নেতৃত্বে কুষ্টিয়া মডেল থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন, কুষ্টিয়া শহরের আড়ুয়াপাড়া মন্ডলপাড়া এলাকার জয়নাল আবেদীনের ছেলে মোঃ আবু সাইদ (৪০), আড়ুয়াপাড়া ১নং মসজিদ বাড়ি লেনের মৃত মোশারফ হোসেনের ছেলে মোঃ কাউছার বাবু ওরফে করিয়া বাবু (৪৫),

সাংউত্তর চর আমলাপাড়া এলাকার মুন্সি ফয়েজুল ইসলামের ছেলে মোঃ শফিউল ইসলাম লিটু (৪২), হাউজিং বি ব্লক,সম্প্রসারণ-১৬ এলাকার মৃত সদর উদ্দিনের ছেলে মোঃ শফিকুল ইসলাম রানা (৩৯), রাজবাড়ী জেলার পশ্চিম ভবানীপুর রেল কলোনী ৮নং ওয়ার্ড এলাকার মৃত হাজী আব্দুস সাত্তারের ছেলে মোঃ ইমরুল হাসান মধু (৩৮)।

এ ঘটনায় আসামিদের বিরুদ্ধে কুষ্টিয়া মডেল থানায় মামলা দায়ের হয়েছে।

১৮ দিনেও উদ্ধার হয়নি শিশু মুরসালিন, গ্রেফতার ২

১৮ দিনেও উদ্ধার হয়নি শিশু মুরসালিন, গ্রেফতার ২
শিশু মুরসালিন সরদার। ছবি: সংগৃহীত

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে মুরসালিন সরদার (৬) নামে এক শিশু অপহরণ মামলায় ২ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তবে ১৮ দিনেও উদ্ধার হয়নি শিশুটি। গ্রেফতারকৃতরা হলেন- কাশিয়ানী উপজেলার সাজাইল ইউনিয়নের আমডাকুয়া গ্রামের আসাদ মুন্সী (৬০) ও হারুন সরদার (৫৭)।

রোববার (১৮ আগস্ট) নিখোঁজ মুরসালিনের বাবা বাচ্চু সরদার বাদী হয়ে কাশিয়ানী থানায় এ মামলাটি দায়ের করেন। তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে সোমবার (১৯ আগস্ট) জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ২ আগস্ট দুপুরে শিশু মুরসালিন পাশের মসজিদে নামাজ আদায় শেষে বাড়ি ফিরছিল। পথে সাজাইল পুরানো ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের কাছে পৌঁছালে অজ্ঞাত ৫-৬ লোক একটি সাদা মাইক্রোবাসে মুরসালিনকে জোর করে তুলে নিয়ে দ্রুত ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের দিকে যায়।

মুরসালিন গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীর সাজাইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশু শ্রেণির ছাত্র ও আমডাকুয়া গ্রামের বাচ্চু সরদারের ছেলে।

কাশিয়ানী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আজিজুর রহমার জানান, এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদেরকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র