Barta24

মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট ২০১৯, ৫ ভাদ্র ১৪২৬

English

গাজীপুরে তুলার গুদামে আগুন, নিহত ৬

গাজীপুরে তুলার গুদামে আগুন, নিহত ৬
গাজীপুরের শ্রীপুরে তুলার গুদামে আগুন ছবি: বার্তা২৪.কম
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা ২৪.কম
ঢাকা


  • Font increase
  • Font Decrease

গাজীপুরের শ্রীপুরে অটো স্পিনিং মিল কারখানার তুলার গুদামে আগুন লাগার ঘটনায় আরও দুইজনের মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। এ ঘটনায় সবমিলিয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬। এছাড়া  একজন নিখোঁজ রয়েছে বলেও জানা গেছে।

বুধবার (৩ জুলাই) সকালে তিনজন ও বেলা সাড়ে এগারোটায় আরও দুইজনের মরদেহ উদ্ধার করেছে। সূত্রে জানা যায়, উদ্ধারকৃত ৬ জনের মধ্যে ৫ জনের পরিচয় নিশ্চিত হয়েছে।

সকালে উদ্ধারকৃতরা হলেন- দক্ষিণ ধনুয়া এলাকার জয়নালের ছেলে আনোয়ার (২৮) ও একই এলাকার হাসান আলীর ছেলে শাহজালাল মিয়া (২৫)। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কারখানার এসি প্ল্যান্ট থেকে যে দুইজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয় তারা হলেন- পাবনার আমিনপুর থানার নান্দিয়ারা গ্রামের কেরামত সরদারের ছেলে সুজন সরদার (৩০) এবং ময়মনসিংহের হালুয়াঘাট থানার ভুবনপোড়া গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে মোঃ আবু রায়হান (৩৫)। দু’জনই এসি প্ল্যান্টের শ্রমিক ছিলেন।

 নিহত ২
আগুন লাগার ঘটনায় ৫ জনের পরিচয় নিশ্চিত, ছবি: বার্তা২৪.কম

 

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার ( ২ জুলাই) রাসেল আহমেদ নামে এক নিরাপত্তা কর্মীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এদিকে, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এছাড়াও স্থানীয় এমপি ইকবাল হোসেন, শ্রীপুর পৌর মেয়র আলহাজ্ব আনিসুর রহমান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইউএনও (ভারপ্রাপ্ত) ফাতেমাতুজ জহুরা, শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা লিয়াকত আলী, মাওনা হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দেলোয়ার হুসেন ঘটনাস্থল উপস্থিত থেকে সার্বিক খোঁজ খবর নেন ।

আগুন লাগার পর দমকল বাহিনীর ১৪টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করে। আশপাশে কোনও পানির উৎস না থাকায় আগুন নিয়ন্ত্রণে দেরি হয় বলে জানায় দমকল বাহিনী ।

প্রথমে কথা বলতে রাজি না হলেও পরে কারখানার মহাব্যবস্থাপক (জিএম) হারুন অর রশিদ সাংবাদিকদের জানান, কোন স্থান হতে অগ্নিকাণ্ডের সূচনা হয় এ সম্পর্কে জানা যায়নি। তবে আগুনে গুদামের প্রচুর তুলা ও কাঁচামাল পুড়ে গেছে বলে নিশ্চিত করেন তিনি ।

গাজীপুর ফায়ার সার্ভিসের সহকারী উপ-পরিচালক আক্তারুজ্জামান জানান, আগুন গত রাত ৩টাট দিকে নিয়ন্ত্রণে আসে। আগুন নিভানোর জন্য প্রয়োজনীয় পানির ব্যবস্থা না থাকায় তা নিয়ন্ত্রণে আনতে তাদের দীর্ঘ সময় ব্যয় করতে হচ্ছে । এদিকে ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ থাকায় মহাসড়কের দু’পাশে দীর্ঘ যানজট দেখা যায়।

মঙ্গলবার (২ জুলাই) দুপুর আড়াইটার দিকে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক ঘেঁষা নয়নপুর এলাকার ওই কারখানায় আগুন লাগে।

আপনার মতামত লিখুন :

নারায়ণগঞ্জে নৃত্যশিল্পীকে গণধর্ষণ, তিন যুবক গ্রেফতার

নারায়ণগঞ্জে নৃত্যশিল্পীকে গণধর্ষণ, তিন যুবক গ্রেফতার
ছবি: সংগৃহীত

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলায় এক নারী নৃত্যশিল্পীকে গণধর্ষণের অভিযোগে তিন যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় পলাতক রয়েছেন আরও দুই যুবক।

মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) বেলা ১২টায় উপজেলার সৌচারগাঁও এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এর আগে সকালে ধর্ষণের ঘটনায় ওই নারী বাদী হয়ে সোনারগাঁও থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলায় গ্রেফতারকৃত তিনজন সহ পাঁচ যুবকের নাম উল্লেখ করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- উপজেলার সৌচারগাঁও এলাকার আব্দুল্লাহর ছেলে মাহমুদুল হাসান (২৩), তার সহযোগী কালীগঞ্জ এলাকার মৃত আলী আহমেদের ছেলে শফিকুল ইসলাম (২৪) ও ইলিহাসদি এলাকার হাসান মিয়ার ছেলে সজিব মিয়া (২১)। আর পলাতক রয়েছেন সানজিদ ও সিয়াম।

সোনারগাঁও থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) কামাল হোসেন জানান, বন্দর উপজেলার লক্ষণখোলা এলাকার নারী নৃত্যশিল্পীর (২৫) সঙ্গে মাহমুদুল হাসানের পূর্ব পরিচয় ছিল। এর সূত্রে ধরে মাহমুদুল হাসান নিজেকে একটি কোম্পানিতে চাকরিজীবী এবং সেই কোম্পানির বার্ষিক অনুষ্ঠান আছে এমন মিথ্যা কথা বলে নাচের জন্য আমন্ত্রণ জানায়। ওই আমন্ত্রণে ১৯ আগস্ট সকালে ওই নারী মামুন নামে তার বন্ধুকে নিয়ে সোনারগাঁয়ে আসেন।

সেখানে পৌঁছালে মাহমুদুল হাসানের বন্ধু সিয়াম ধারালো ছুরি দেখিয়ে হত্যার ভয় দেখিয়ে মামুনকে সেখান থেকে নিয়ে যায়। পরে অন্যান্য বন্ধুদের সহযোগিতায় মাহমুদুল প্রথমে ওই নারী নৃত্যশিল্পীকে ধর্ষণ করে। পর্যায়ক্রমে অন্য বন্ধুরাও ধর্ষণ করে। এ সময় নারী চিৎকার শুরু করলে মাহমুদুল সহ তার বন্ধুরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা নারীকে উদ্ধার করে স্থানীয়ভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করে। চিকিৎসা শেষে মঙ্গলবার সকালে সোনারগাঁ থানায় মামলা দায়ের করেন ভুক্তভোগী।

সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম-কে বলেন, 'গণধর্ষণের মামলায় তিন যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। আরও দুই যুবককে গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত আছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত যুবকেরা অপরাধ স্বীকার করেছে। তাই ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণের জন্য আদালতে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া ওই নারী নৃত্যশিল্পীর পরীক্ষার জন্য নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।'

চাঁপাইনবাবগঞ্জে শিশু ধর্ষণচেষ্টা মামলার আসামি গ্রেফতার

চাঁপাইনবাবগঞ্জে শিশু ধর্ষণচেষ্টা মামলার আসামি গ্রেফতার
গ্রেফতারকৃত ধর্ষণচেষ্টা মামলার আসামি, ছবি: সংগৃহীত

চাঁপাইনবাবগঞ্জে চার বছরের শিশুকে ধর্ষণচেষ্টার মামলায় জয়দেব (৪৫) নামে অভিযুক্ত আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) সকালে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার নয়াগোলা মহল্লার তাহেরপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে। জয়দেব শিবগঞ্জ উপজেলার মনাকষা ইউনিয়নের শ্রী চমৎকারের ছেলে।

নবাবগঞ্জ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. জিয়াউর রহমান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপপরিদর্শক (এসআই) জিন্নাতের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার নয়াগোলা মহল্লার তাহেরপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে জয়দেবকে গ্রেফতার করে। তিনি এ ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকার কথা স্বীকার করেছেন।


এদিকে, এ ঘটনায় শিশুটির মা বাদী হয়ে সোমবার রাতেই জয়দেবকে আসামী করে নবাবগঞ্জ সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

শিশুটির মা জানান, সোমবার (১৯ আগস্ট) দুপুর সাড়ে ২টার দিকে শিশুটিকে ফুসলিয়ে জয়দেব নয়াগোলার মোমিনপাড়া এলাকার একটি বাড়িতে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে শিশুটি চিৎকার দিলে ধর্ষক পালিয়ে যায়। পরে, শিশুটি তার মাকে ঘটনাটি বললে তার মা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে শিশুটি হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র