Barta24

বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯, ২ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

৪৪ বছর পর রেশমের সর্বোচ্চ দাম

৪৪ বছর পর রেশমের সর্বোচ্চ দাম
রেশম পোকা, ছবি: বার্তা২৪
মো. তারেক রহমান
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
চাঁপাইনবাবগঞ্জ


  • Font increase
  • Font Decrease

আম, কাঁসা ও রেশমের জন্য পরিচিত চাঁপাইনবাবগঞ্জ। কিন্তু দাম না পাওয়ায় চাষিরা রেশম চাষে আগ্রহ হারান। তবে ৪৪ বছর পর ভালো দাম পাওয়ায় আবারও রেশম চাষে ঝুঁকছেন চাষিরা।

জানা গেছে, চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ আম ও সীমান্তবর্তী ভোলাহাট উপজেলা রেশম চাষের জন্য বিখ্যাত। কিন্তু কালের বিবর্তনে হারিয়ে যেতে বসেছিল রেশমের ঐতিহ্য। স্থানীয় রেশম বিভাগের উদাসীনতায় চাষিরা রেশম চাষ থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছিলেন। ফলে রেশম চাষ ৩০০ বিঘা থেকে ১০০ বিঘায় নেমে এসেছে।

ভোলাহাট রেশম সম্প্রসারণ কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছর ভোলাহাটের ৩৫০ জন চাষির মাধ্যমে প্রায় ২১৭ বিঘা জমিতে রেশম চাষ হয়েছে। এর মধ্যে রেশম বোর্ডের জমি ৬৭ বিঘা ও চাষিদের জমি ১৫০ বিঘা।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/24/1561389251365.jpg

ভোলাহাটের যাদুনগর গ্রামের রেশম চাষি মুন্টু আলী বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘প্রায় ৪২ বছর ধরে আমি রেশম চাষে জড়িত। প্রথমে ভালো দাম পাওয়ায় প্রায় পাঁচ বিঘা জমিতে রেশম চাষ করতাম। কিন্তু পরবর্তীতে দাম পড়ে যাওয়ায় রেশম চাষ কমিয়ে দিয়েছিলাম। কিন্তু এই পেশা ছাড়তে পারিনি। এখন রেশমের দাম ৪৪ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ পর্যায়ে থাকায় এবং সরকারি সুযোগ-সুবিধা বাড়ায় আবারও দুই বিঘা জমিতে রেশম চাষ করেছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘চলতি বছর ভোলাহাট রেশম সম্প্রসারণ কার্যালয় থেকে আমি ১৫০টি ডিম নিয়েছিলাম। তা থেকে তিন মণ গুটি পেয়েছি। প্রতি মণ ১৪ হাজার টাকায় বিক্রি করেছি। এতে ভালো মুনাফা হয়েছে। রেশম চাষের জন্য সরকার ডিম, তুত গাছ, কাঠাপ্রতি তিন হাজার টাকা, ঘর বানানোর জন্য এককালীন ৩০ হাজার টাকা, ডালা, নেট ইত্যাদি দিয়েছে। ফলে অনেকে রেশম চাষে ঝুঁকছেন।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/24/1561389286502.jpg

রেশম চাষি মুন্টু আলী বলেন, ‘এ বছর আমি যে ফলন পেয়েছি তা আগে কখনো পাইনি। রেশম চাষে সরকারের সহযোগিতা অব্যাহত থাকলে এবং প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে ভোলাহাটের রেশমের ঐতিহ্য আবারও ফিরে আসবে।’

ভোলাহাট রেশম সম্প্রসারণ কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক (জোনাল কার্যালয়) মো. মাসুদ রেজা বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘এক সময় ভোলাহাটের সব পরিবার রেশম চাষে জড়িত ছিল। কিন্তু বিএনপি সরকারের সময় ভারত ও চীন থেকে সুতা আমদানিতে শুল্ক কমিয়ে দেওয়ায় দেশে উৎপাদিত রেশমের চাহিদা কমে যায়। ফলে চাষিরা দাম না পাওয়ায় হতাশ হয়ে রেশম চাষ বন্ধ করে দেন।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/24/1561389326270.jpg

তিনি আরও বলেন, ‘বর্তমান সরকার রেশমের হারানো ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে চাষিদের বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা বাড়ায়। ফলে সম্প্রসারিত হচ্ছে রেশম চাষ। আশা করা হচ্ছে, আগামীতে ভোলাহাটে আরও বেশি রেশম চাষ হবে।’

আপনার মতামত লিখুন :

খেলতে গিয়ে বন্যার পানিতে এক শিশুর মৃত্যু

খেলতে গিয়ে বন্যার পানিতে এক শিশুর মৃত্যু
সিলেট ম্যাপ

সিলেটের জৈন্তাপুরে বন্যার পানিতে ডুবে কামরুল ইসলাম ফাহিম (৭) নামের শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। ফাহিম জৈন্তাপুর এলাকার ফতেপুর ইউপির বালিপাড়া গ্রামের আব্দুল্লার পুত্র।

বুধবার (১৭ জুলাই) উপজেলার ফতেপুর (হরিপুর) ইউনিয়নের বালিপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে বলে জানা যায়। নিহতের পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিহত কামরুল ইসলাম ফাহিম বালিপাড়া গ্রামে তার মায়ের সঙ্গে নানা বাড়ি থাকতো।

বুধবার বিকালের দিকে খেলা করতে গিয়ে পরিবারের সদস্যদের আড়ালে বাড়ির পাশে বন্যার পানিতে পড়ে যায়।

খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে ঘরের পাশে বন্যার পানিতে ফাহিমকে পরে থাকতে দেখেন তার মা। এরপর তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় চিকিৎসকের নিকট নেওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এমপির গাড়ি ভাঙচুরে কাউন্সিলর আটক

এমপির গাড়ি ভাঙচুরে কাউন্সিলর আটক
নারায়ণগঞ্জ ম্যাপ
 
সরকার দলীয় এমপির গাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর গোলাম মোহাম্মদ সাদরিল সহ ১০ জনকে আটক করেছে পুলিশ। 
 
বুধবার (১৭ জুলাই) রাত পৌনে ১২টায় সিদ্ধিরগঞ্জের ওমরপুর এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়। আটক গোলাম মোহাম্মদ সাদরিল নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে বিএনপির সাবেক এমপি মুহাম্মদ গিয়াসউদ্দিনের ছেলে।
 
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/18/1563395016662.jpg
 
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, কুমিল্লা-২ আসনের এমপি সেলিমা আহমেদ মেরীর পিএস সিদ্ধিরগঞ্জে বসবাস করেন। একই এলাকার পিএসের আত্মীয়র সঙ্গে দীর্ঘদিনের বিরোধ ছিল। ওই বিরোধ সমাধানের জন্য বিকেলে কুমিল্লা থেকে সিদ্ধিরগঞ্জে আসেন এমপি সেলিমা আহম্মেদ মেরী। বিচার-শালিশ চলাকালীন সময় উভয় পক্ষের লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে যায়। পরে পিএসের প্রতিপক্ষের লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে নারী এমপিকে লাঞ্ছিত করে ও তার গাড়ির গ্লাস ভাঙচুর করে। ওই ঘটনায় অভিযোগের প্রেক্ষিতে সাদরিল সহ ১০জনকে আটক করা হয়।
 
সিদ্ধিরগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জসিমউদ্দির জানান, একটি গাড়ি ভাংচুরের অভিযোগে সাদরিলকে আটক করা হয়েছে। থানায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র