Barta24

রোববার, ২১ জুলাই ২০১৯, ৬ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

নাটোরে ছাত্রলীগ নেতা হত্যাকারীদের খুঁজে পাচ্ছে না পুলিশ

নাটোরে ছাত্রলীগ নেতা হত্যাকারীদের খুঁজে পাচ্ছে না পুলিশ
ছাত্রলীগ নেতা হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে মানবন্ধন, ছবি: সংগৃহীত
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
নাটোর


  • Font increase
  • Font Decrease

নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলা ছাত্রলীগ সহ-সভাপতি সোহেল রানা (২৮) হত্যার ১৭দিন পার হলেও হত্যা মামলার ৭ আসামির কাউকেই গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। পুলিশের ভাষ্য, আসামিরা যেমন পলাতক রয়েছে, তেমনি তাদের আত্মীয়-স্বজনরাও গা-ঢাকা দিয়েছে।

গত ২ জুন উপজেলার বনপাড়া পৌরসভার মহিষভাঙ্গা দক্ষিণপাড়া এলাকার ঈদগাহ মাঠ সাজানোর চাঁদা আদায়কে কেন্দ্র করে বিরোধের জেরে একই এলাকার কয়েক যুবক হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে ছাত্রলীগ নেতা সোহেল রানাকে হত্যা করে। হত্যার পরদিন সোহেলের পিতা খলিল প্রামাণিক বাদী হয়ে ৭ জনের বিরুদ্ধে বড়াইগ্রাম থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলার আসামিরা হলেন, একই গ্রামের মৃত আহম্মেদ আলীর ছেলে রাজিব (২৩), মোহাম্মদ আলীর ছেলে সাগর (২৩), রফিক মৃধার ছেলে নয়ন (২৬), আব্দুস ছামাদ মোল্লার ছেলে সজীব (৩০), মৃত ফয়েজ মোল্লার ছেলে মোহাম্মদ আলী (৬০), মৃত ফকির মৃধার ছেলে রফিক মৃধা (৬০) ও মৃত জয়নাল আবেদীনের ছেলে সাইফুল ইসলাম (৪০)।

বুধবার (১৯ জুন) দুপুরে বড়াইগ্রাম উপজেলার বনপাড়া পৌরগেটের সামনে হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে উপজেলা ছাত্রলীগ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে।

মানববন্ধন কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন বনপাড়া পৌরসভার মেয়র কে, এম জাকির হোসেন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা, বনপাড়া মহিলা অনার্স কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুর রাজ্জাক মোল্লা, উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আল-হেলাল কাফি, মৃত সোহেল রানার পরিবারের সদস্যসহ এলাকার বিভিন্ন স্তরের জনসাধারণ।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) শামসুল ইসলাম জানান, ঘটনার পর থেকে শুধু আসামিরা পলাতক ও তাদের পরিবারের সকলেই গা-ঢাকা দিয়েছে। পুলিশ একাধিকবার অভিযান চালিয়েও তাদের ধরতে পারেনি। আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশ সবরকম চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

এদিকে, সোহেল হত্যার আসামিদের দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনতে জোর দাবি জানিয়েছে স্থানীয় ছাত্রলীগ। বনপাড়া শহর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান পিয়াস বলেন, ‘মামলার আসামিদের কেন পুলিশ খুঁজে পায় না তা আমরা জানতে চাইনা। আমরা অপরাধীদের আইনের আওতায় এনে বিচার দেখতে চাই।’

বনপাড়া পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র কেএম জাকির হোসেন তদন্ত সাপেক্ষে মূলদায়ী ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে দ্রুত গ্রেফতার ও আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন।

আপনার মতামত লিখুন :

প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা

প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা
ট্রাম্পের কাছে অভিযোগ জানান প্রিয়া সাহা, ছবি: সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে বাংলাদেশের সংখ্যালঘুদের বিষয়ে মিথ্যা তথ্য দেয়ার অভিযোগে প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ এনে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

রোববার (২১ জুলাই) দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাসুদ পারভেজের আদালতে মো. আসাদ উল্লাহ নামে এক ব্যক্তি বাদী হয়ে আদালতে মামলাটি দায়ের করেন। আদালতের বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে পরে আদেশ দেবেন বলে জানিয়েছেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়, বাংলাদেশ একটি মুসলিম রাষ্ট্র হওয়ার পরেও ধর্মীয় শান্তি ও সম্প্রীতির রাষ্ট্র হিসেবে বিশ্বে পরিচিত লাভ করেছে। অন্যান্য রাষ্ট্রে মুসলমানরা যে সকল সুযোগ সুবিধা পাচ্ছে তার চেয়ে অনেক গুণ বেশি সুযোগ সুবিধা বাংলাদেশে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ও অন্যান্য ধর্মের লোকজন ভোগ করছে। প্রিয়া সাহা একজন বাংলাদেশি নাগরিক হয়ে দেশের ভাবমূর্তির কথা চিন্তা না করে বাংলাদেশকে বিশ্বের কাছে হেয় করার জন্য ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে তিন কোটি ৭০ লাখ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান গুম হয়ে গেছে, মুসলিম মৌলবাদীরা ঘর-বাড়ি পুড়িয়ে দিয়েছে এবং তার জায়গা দখল করেছে বলে বিচার চান। এটি বাংলাদেশের রাষ্ট্র ও সরকারের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার ছাড়া কিছুই না। এটি রাষ্ট্রদ্রোহিতার শামিল বলেও এজাহারে উল্লেখ করা হয়।

মামলার বাদী মো. আসাদ উল্লাহ জানান, বিশ্বের কাছে বাংলাদেশকে হেয় করার জন্য প্রিয়া সাহা মিথ্যাচার করেছেন। এটি আমাকে আহত করেছে। তাই আমি স্বপ্রণোদিত হয়ে মামলাটি দায়ের করেছি।

মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী ও জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি সারোয়ার-ই-আলম বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম-কে জানান, আদালত মামলাটি গ্রহণ করেছেন। মামলাটি দেখে পরে আদেশ দেবেন বলে জানিয়েছেন।

পদ্মায় গোসল করতে নেমে স্বামী-স্ত্রী নিখোঁজ

পদ্মায় গোসল করতে নেমে স্বামী-স্ত্রী নিখোঁজ
পদ্মা নদী/ ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

রাজবাড়ীর গোয়ালন্দের দৌলতদিয়া ৪নং ফেরি ঘাটে গোসল করতে গিয়ে স্বামী-স্ত্রী নিখোঁজ হয়েছেন। রোববার (২১ জুলাই) দুপুর ১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

গোয়ালন্দ ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মোঃ আব্দুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। নিখোঁজ হওয়া ব্যক্তিরা হলেন ইমন শেখ (২৫) ও তার স্ত্রী আঞ্জু আরা (২২)। তাদের বাড়ি খুলনায়।

স্টেশন অফিসার মোঃ আব্দুর রহমান জানান, গোয়ালন্দ উপজেলার দৌলতদিয়ায় আত্মীয় বাড়ি বেড়াতে এসে পদ্মা নদীর ৪ ও ৫ নং ফেরিঘাটের মাঝে গোসল করতে গিয়ে তারা নিঁখোজ হন।

স্টেশনে ডুবুরি দল না থাকায় ঢাকার ডুবুরি দলকে জানানো হয়েছে এবং তারা রওনা হয়েছে বলে জানান স্টেশন অফিসার। ঢাকার ডুবুরি দল ঘটনাস্থলে পৌঁছালে উদ্ধার কাজ শুরু হবে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র