Barta24

মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯, ৩১ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

নেত্রকোনায় লরিচাপায় নিহত ১

নেত্রকোনায় লরিচাপায় নিহত ১
প্রতীকী ছবি
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
নেত্রকোনা


  • Font increase
  • Font Decrease

নেত্রকোনার দুর্গাপুর উপজেলায় লরিচাপায় মো. রমজান (২৫) নামে এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন। শুত্রুবার (১৪ জুন) সন্ধ্যায় দুর্গাপুর পৌর শহরের দক্ষিণ পাড়া মোড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত রমজান নেত্রকোনা জেলা শহরের সাতপাই এলাকার মৃত চান মিয়ার ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সন্ধ্যায় বিরিশিরি থেকে বেপরোয়া গতির একটি লরি দুর্গাপুরে যাচ্ছিল। এসময় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি মোটরসাইকেলের সাথে এর মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে মোটরসাইকেলে থাকা তিন যাত্রীর মধ্যে চালক মনির ও পেছনে বসা প্রসেনজিৎ প্রাণে বেঁচে যান। মাঝখানে থাকা রমজান নিচে পড়ে গেলে দ্রুত গতির লরি তার বুকের উপর দিয়ে চলে যায়। এতে মারাত্মক আহত হন তিনি।

স্থানীয়রা উদ্ধার করে দ্রুত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক ডা. এ এস এম তানজিরুল ইসলাম তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে ঘাতক চালক ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে গেলেও লরিটিকে জব্দ করেছে পুলিশ।

দুর্গাপুর থানার ওসি মিজানুর রহমান বলেন, মরদেহ পরিবারের কাছে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা হওয়া মাত্রই আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন :

বৃষ্টিতে দুর্ভোগে শিক্ষার্থীরা, কদর বেড়েছে ছাতার

বৃষ্টিতে দুর্ভোগে শিক্ষার্থীরা, কদর বেড়েছে ছাতার
ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

চলছে বৃষ্টির দিন। দেশের বিভিন্ন এলাকার মতো মৌলভীবাজারেও গত কয়েকদিন ধরে দফায় দফায় বৃষ্টিপাত হচ্ছে। এতে দুর্ভোগে পড়েছে শিক্ষার্থীরা।

সোমবার (১৫ জুলাই) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত মৌলভীবাজারে টানা বৃষ্টিপাত হয়েছে। এ কারণে স্কুল-কলেজে যেতে পারে নাই অনেক শিক্ষার্থী। ছেলে মেয়েরা যাতে বৃষ্টির দিনেও স্কুলে যেতে পারে তাই বাবা-মায়েরা কিনছেন ছাতা। বৃষ্টি থেকে বাঁচতে যেন হঠাৎ করেই কদর বেড়েছে এই ছাতার।

সোমবার দুপুরের পর থেকে ছাতার দোকানগুলোতে শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের বেশি ছাতা কিনতে দেখা গেছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/16/1563221733480.jpg

জেলার শ্রীমঙ্গল শহরের লেদার হাউজে ছাতা কিনতে আসা ফয়েজ আহমেদ ছমরু বলেন, ‘ছেলে-মেয়ের জন্য ছাতা কিনতে এসেছি। বৃষ্টির জন্য তারা স্কুলে যেতে পারে না। আবার ছুটির সময় বৃষ্টি হলে বাসায় আসতে দেরি হয়। তাই তাদের জন্য ২টি ছাতা কিনলাম।’

অন্য আরেক দোকানে ছাতা কিনতে আসা রেহানা বেগম নামে এক মা বলেন, ‘বৃষ্টি আসলে ছেলে-মেয়েদের স্কুলে আসা যাওয়ায় সমস্যা দেখা দেয়। তাই ছাতা কিনতে এসেছি।’

শহরের বেশ কয়েকটি ছাতার দোকান ঘুরে জানা গেছে, এবারের বর্ষা মৌসুমে তাদের ছোট সাইজের ছাতা (টিপ ছাতা) বেশি বিক্রি হচ্ছে। তবে বিক্রি কমেছে বড় সাইজের ছাতার।

ছাতা ব্যবসায়ী মো. আলী হোসেন জানান, এখন সবাই ছোট সাইজের ছাতা ব্যবহার করে। এই ছাতা ১৩০ থেকে ৫০০ টাকা দামের মধ্যে বিক্রি হয়।

এনজিও কর্মী সেজে ধর্ষণ মামলার আসামিকে গ্রেফতার

এনজিও কর্মী সেজে ধর্ষণ মামলার আসামিকে গ্রেফতার
গ্রেফতারকৃত সাত্তার সরকার। ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

এনজিও কর্মী সেজে ঋণ দেয়ার কথা বলে প্রতিবন্ধী শিশু ধর্ষণ মামলার আসামিকে গ্রেফতার করেছে বগুড়া সদর থানা পুলিশ।

গ্রেফতারকৃত সাত্তার সরকার (৬০) বগুড়া সদরের তেলীহারা উত্তরপাড়া গ্রামের মৃত কাশেম আলীর ছেলে।

সোমবার (১৫ জুলাই) সন্ধ্যায় বগুড়া সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সোহেল রানা তেলীহারা গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করেন।

জানা গেছে, গত ১২ জুলাই দুপুরে তেলীহারা গ্রামের এক বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরী (১৫) বাজার থেকে ফেরার পথে বৃষ্টি শুরু হলে প্রতিবেশী দাদা সাত্তার সরকারের বাড়িতে আশ্রয় নেয়। এ সময় বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে সাত্তার ওই কিশোরীকে জোর করে ধর্ষণ করে। ওই কিশোরী বাড়ি ফিরে ধর্ষণের বিষয়টি জানায়। পরে পারিবারিকভাবে ঘটনাটি ধামাচাপা দেয়া হয়।

সোমবার (১৫ জুলাই) সকালে ধর্ষণের ঘটনাটি জানাজানি হলে সাত্তার সরকার আত্মগোপন করে। পুলিশ তাকে কৌশলে গ্রেফতার করে। এ ঘটনায় ধর্ষিতার বাবা থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বগুড়া সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সোহেল রানা বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ‘সাত্তার সরকারকে গ্রেফতার করতে এনজিও কর্মী সেজে তার সঙ্গে যোগাযোগ করি। পরে ঋণ নেয়ার প্রস্তাব দেয়া হলে তিনি গ্রামের এক রাস্তায় দেখা করেন। এ সময় তাকে গ্রেফতার করা হয়।’

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র