Barta24

শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০১৯, ৪ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

কিশোর বয়সে জোড়া খুন, এখন মাদক ব্যবসায়ী

কিশোর বয়সে জোড়া খুন, এখন মাদক ব্যবসায়ী
গ্রেফতারকৃত মাদক ব্যবসায়ী / ছবি: সংগৃহীত
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
বগুড়া


  • Font increase
  • Font Decrease

কিশোর বয়সে জোড়া খুন করে অপরাধ জগতে প্রবেশ করেন ইসমাইল হোসেন আসিক (২৩)। হত্যা মামলায় গ্রেফতার হলে কিশোর সংশোধনালয় পালিয়ে যান। এরপর ২০১৫ সাল থেকে জড়িয়ে পড়েন মাদক ব্যবসায়। এ পর্যন্ত চার বার পুলিশ মাদকসহ আটক করে এবং মামলা হয়। আদালত থেকে জামিনে বের হয়ে আবারও শুরু করেন মাদক ব্যবসা।

শুক্রবার (১৪ জুন) দুপুর ১২টার দিকে শহরের কলেজ বটতলা এলাকা থেকে ৫৫ পিস ইয়াবাসহ পুলিশ আবারও তাকে গ্রেফতার করে। আসিক শহরের দক্ষিণ ফুলবাড়ির মোজাম্মেল হক মোজামের ছেলে।

পুলিশ জানায়, ২০১২ সালে যখন তার বয়স ১৫ বছর, সে সময় বগুড়া শহরের শিববাটি কটন মিলের মধ্যে এক সঙ্গে দু’জনকে হত্যা করে আসিক ও তার সহযোগীরা। পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়ে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দীতে জোড়া খুনের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেন তিনি। বয়সে কিশোর হওয়ায় আদালতের নির্দেশে তাকে যশোরে কিশোর সংশোধনালয়ে রাখা হয়। সেখান থেকে কৌশলে পালিয়ে আসেন। দীর্ঘ দিন পলাতক থাকার পর ২০১৫ সাল থেকে জড়িয়ে পড়েন মাদক ব্যবসায়।

বগুড়া শহরের ফুলবাড়ী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক মো. শফিকুল ইসলাম বার্তা২৪.কমকে জানান, পুলিশের তালিকাভুক্ত মাদক বিক্রেতা আসিকের নামে তিনটি গ্রেফতারি পরোয়ানা ছিল। বেশ কিছুদিন ধরে তাকে খোঁজা হচ্ছিল। শুক্রবার তাকে ইয়াবাসহ হাতে নাতে গ্রেফতার করা হয়।

আসিক মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করে শহরের বিভিন্নস্থানে ইয়াবা সরবরাহ করে আসছিল বলেও জানান তিনি।

আপনার মতামত লিখুন :

শিশুর মাথা কাটার ঘটনার সঙ্গে পদ্মা সেতু গুজবের সম্পর্ক নেই

শিশুর মাথা কাটার ঘটনার সঙ্গে পদ্মা সেতু গুজবের সম্পর্ক নেই
ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর

নেত্রকোনায় শিশুর মাথা কাটার ঘটনার সঙ্গে পদ্মা সেতু গুজবের কোনো সম্পৃক্ততা নেই বলে জানিয়েছেন পুলিশ সুপার জয়দেব চৌধুরী।

শুক্রবার (১৯ জুলাই) দুপুরে নেত্রকোনা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, গত বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) দুপুরে নেত্রকোনা পৌর শহরের কাটলি এলাকার বাসিন্দা রইছ উদ্দিনের ছেলে শিশু সজিব মিয়াকে (৭) নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়। হত্যাকারী একই এলাকার বাসিন্দা এখলাছ মিয়ার ছেলে রবিন মিয়া (৩০)। এ হত্যাকাণ্ডকে কেন্দ্র করে ফেসবুকসহ অন্যান্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেলে ধরা ও পদ্মা সেতুর গুজবের সাথে মিশিয়ে মিথ্যা অপপ্রচার চালানো হচ্ছে। এটি নিতান্তই বিভ্রান্তিমূলক ও অসত্য। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তদন্তাধীন বিষয়ে মনগড়া ও অসত্য তথ্য দিয়ে প্রচার-প্রচারণা চালানো ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের অপরাধ। ঘটনাটির সাথে পদ্মা সেতু গুজবের কোনো সম্পৃক্ততা নেই।

পদ্মা সেতু ও ছেলে ধরা সংক্রান্ত গুজবে কান না দিতে নেত্রকোনা তথা দেশবাসীকে অনুরোধ জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

আরও পড়ুন: নেত্রকোনায় শিশু ও অভিভাবকদের মধ্যে ‘মাথা কাটা’ আতঙ্ক

আরও পড়ুন: ব্যাগের ভেতর শিশুর মাথা, গণধোলাইয়ে যুবকের মৃত্যু

আরও পড়ুন: নেত্রকোনায় ছেলে ধরা সন্দেহে যুবক আটক

কেন্দুয়ায় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় বৃদ্ধা নিহত

কেন্দুয়ায় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় বৃদ্ধা নিহত
প্রতীকী ছবি

নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলায় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় জুবেদা আক্তার (৬৫) নামে এক বৃদ্ধা মারা গেছেন। শুক্রবার (১৯ জুলাই) দুপুরে কেন্দুয়া পৌর শহরের কমলপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত জুবেদা আক্তার কমলপুর গ্রামের মৃত সাহাব উদ্দিনের স্ত্রী।

স্থানীয়রা জানান, দুপুরে জুবেদা আক্তার তার বাবার বাড়ি কেন্দুয়া পৌর শহরের বাদে আঠারবাড়ি গ্রাম থেকে অটোরিকশায় স্বামীর বাড়ি কমলপুর গ্রামে যাচ্ছিলেন। কমলপুর এলাকায় গিয়ে অটোরিকশা থেকে নামলে একটি মোটরসাইকেল তাকে ধাক্কা দেয়। এতে মারাত্মক আহত তিনি। পরে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে দুপুর ২টার দিকে চিকিৎসক ডা. পিয়াস পাল তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

কেন্দুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ রাশেদুজ্জামান জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র