Barta24

রোববার, ২১ জুলাই ২০১৯, ৬ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

হবিগঞ্জে বিদ্যুৎ অফিসে হামলা, মারপিট

হবিগঞ্জে বিদ্যুৎ অফিসে হামলা, মারপিট
ভাঙচুর করা হয়েছে বিদ্যুৎ অফিস, ছবি: সংগৃহীত
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
হবিগঞ্জ


  • Font increase
  • Font Decrease

হবিগঞ্জ শহরে বারবার বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন করার প্রতিবাদে ফুঁসে উঠেছে শহরবাসী। বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) সন্ধ্যায় বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের অভিযোগ কেন্দ্রে হামলা চালিয়েছে শ্যামলি এলাকার বাসিন্দারা। এ সময় বিক্ষুব্ধ জনতা গোলাম মোহাম্মদ খান লিটন নামে এক কর্মচারীকে মারপিট করেন তারা।

জানা যায়, মাসখানেক সময় ধরে হবিগঞ্জ শহরে ঘন ঘন বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্নের ঘটনা ঘটছে। সম্প্রতি এর মাত্রা অতিরিক্ত হারে বৃদ্ধি পাওয়ায় শহরবাসীর মনে ক্ষোভের সঞ্চার হয়। বৃহস্পতিবার সন্ধায় শহরের শ্যামলি এলাকার একদল যুবক ঘন ঘন বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন কেন হয় কর্তৃপক্ষের কাছে জানতে চায়। বিষয়টি নিয়ে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে অফিসে হামলা ও ভাঙচুর চালায় তারা।

এ সময় তারা বিদ্যুৎ অভিযোগ কেন্দ্রের টেলিফোন এবং চেয়ার-টেবিলসহ আসবাবপত্র ভাঙচুর করেন। এ সময় সেখানে দায়িত্বে থাকা লিটনকে মারপিটসহ জরুরি কাগজপত্রও তছনছ করে হামলাকারীরা। খবর পেয়ে হবিগঞ্জ সদর মডেল থানা পুলিশ এসে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী বিরেশ্বর সাহা জানান, শহরের বিভিন্ন স্থানে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান চলমান। উচ্ছেদের সময় বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন রাখা হয়। বৃহস্পতিবার শ্যামলী ফিডারের আওতাধীন এলাকায় সংযোগ বিচ্ছিন্ন রাখা হয়েছিল। তাই ওই এলাকার কতিপয় যুবক এসে অফিসে হামলা-ভাঙচুর এবং সরকারি কর্মচারীকে মারপিট করেছে। হামলাকারীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সহিদুর রহমান বলেন- ‘এ ব্যাপারে বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে।’

আপনার মতামত লিখুন :

জামালপুরে বন্যার পানিতে ডুবে ৪ জনের মৃত্যু

জামালপুরে বন্যার পানিতে ডুবে ৪ জনের মৃত্যু
ছবি: প্রতীকী

জামালপুরের বকশীগঞ্জে পৃথক ঘটনায় বন্যার পানিতে ডুবে তিন শিশুসহ এক বৃদ্ধ মারা গেছেন।

রোববার (২১ জুলাই) দুপুর থেকে বিকেলের মধ্যে এসব ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, দুপুরে সূর্যনগর পূর্বপাড়া গ্রামের শাহীন মিয়ার মেয়ে সুজুনী (১১), একই গ্রামের সোলায়মান হোসেনের মেয়ে সাথী (৮) ও মাসুদ মিয়ার মেয়ে মৌসুমী (৮) বাড়ির পাশে বন্যার পানিতে ভেলায় করে খেলতে যায়। ভেলায় খেলার সময় হঠাৎ সেটি উল্টে গেলে পানিতে ডুবে সুজুনী ও সাথী মারা যায়। এ সময় পানিতে ডুবে মারাত্মকভাবে অসুস্থ হয় মৌসুমী। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে।

অপরদিকে মেরুরচর ইউনিয়নের রবিয়ারচর গ্রামের আবদুল শেখ (৭০) নামে এক বৃদ্ধ পানিতে ডুবে মারা গেছেন।

জানা গেছে, বিকেল ৩টার দিকে আবদুল শেখ তার ঘরের পেছনে বন্যার পানিতে গোসল করতে গিয়ে পানিতে পড়ে যান। কিছুক্ষণ পর তার লাশ পানিতে ভেসে উঠে।

এছাড়া সাধুরপাড়া ইউনিয়নে কুতুবেরচর গ্রামে বন্যার পানিতে ডুবে ইয়াছিন মিয়ার ছেলে স্বাধীন মিয়া (৪) নামে আরও এক শিশুর মৃত্যু হয়।

কুষ্টিয়ায় মাদক মামলায় ২ জনের যাবজ্জীবন

কুষ্টিয়ায় মাদক মামলায় ২ জনের যাবজ্জীবন
দণ্ডপ্রাপ্ত মাদক ব্যবসায়ী, ছবি: সংগৃহীত

কুষ্টিয়ার মিরপুর থানায় দায়েরকৃত মাদক মামলায় মাইক্রোবাস চালকসহ দুইজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত।

রোববার (২১ জুলাই) দুপুর ২টায় কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক অরূপ কুমার গোস্বামী জনাকীর্ণ আদালতে আসামিদের উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- জেলার মিরপুর উপজেলার বালিদাপাড়া গ্রামের হাজি আব্দুল মালেক মন্ডলের ছেলে তাহাজ্জত হোসেন ওরফে সোহেল (৪০) এবং একই এলাকার আনারুল ইসলাম মাস্টারের ছেলে মাইক্রোবাস চালক আমিরুল ইসলাম (২৮)।

এছাড়া এই মামলায় চার আসামির মধ্যে দৌলতপুর উপজেলার আব্দুস সামাদের ছেলে আবু বক্কর সিদ্দিক এবং আজহার মোল্লার ছেলে আতিয়ার রহমানকে বেকসুর খালাস দেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৭ সালের ১০ আগস্ট বিকেল পৌনে ৪টায় উপজেলার ধলসা গ্রামে মিরপুর থানা পুলিশের এক মাদক বিরোধী অভিযানকালে একটি মাইক্রোবাস তল্লাশি করে চালকের সিটের নিচ থেকে ২০২ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়। এ সময় আসামিদের আটক করে মিরপুর থানা পুলিশ। পরে জব্দকৃত ফেনসিডিলসহ আটককৃতদের বিরুদ্ধে মিরপুর থানায় মামলা দায়ের করা হয়।

মামলাটি তদন্ত শেষে ২০১৭ সালের ২৩ অক্টোবর আদালতে অভিযোগ পত্র দাখিল করে মিরপুর থানা পুলিশ। দীর্ঘ শুনানি শেষে আদালত আজ এই রায় ঘোষণা করেন।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র