Barta24

শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬

English

নাটোরে বিলের টাকা পেতে রাস্তা গর্ত করলেন ইউপি সদস্য

নাটোরে বিলের টাকা পেতে রাস্তা গর্ত করলেন ইউপি সদস্য
অর্থ পেতে রাস্তায় গর্ত করে রাখলেন ইউপি সদস্য, ছবি: সংগৃহীত
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
নাটোর


  • Font increase
  • Font Decrease

নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলার পাকা ইউনিয়নের চকগোয়াশ এলাকায় ৬০ মিটার খানাখন্দে পূর্ণ রাস্তার কাজ শেষ। এখন অপেক্ষা বিল আদায় পূর্ববর্তী চূড়ান্ত পরিদর্শনের। কর্তৃপক্ষ সন্তুষ্ট হলেই মিলবে বিলের টাকা। তবে পরিদর্শনের অপেক্ষায় থেমে থাকছে না ওই রাস্তায় যানবাহন চলাচল। ফলে সদ্য সংস্কার করা ওই রাস্তাটি একটু একটু করে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া শুরু হয়েছে।

পরিদর্শনে বিলম্ব হলেও রাস্তা ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে যেন বিল আদায় আটকে না যায় সেজন্য রাস্তার মাঝখানে গর্ত করে যান চলাচলই বন্ধ করে দিয়েছেন কাজের ঠিকাদার ও স্থানীয় ৪নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য বাদশা মিয়া।

মঙ্গলবার (১১ জুন) সন্ধ্যার পর সংশ্লিষ্ট প্রকল্পের চারজন শ্রমিক দিয়ে রাস্তা খুঁড়ে প্রায় ৩ ফুট গর্ত করেন তিনি। আর এতেই থেমে যায় যান চলাচল। একজন ইউপি সদস্যের এমন কর্মকাণ্ডের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও ছড়িয়ে পড়েছে।

হঠাৎ রাস্তায় এমন গর্ত তৈরি হওয়ায় পায়ে হাঁটা ছাড়া কোনো যানবাহন নিয়ে চলাচলের অবস্থা না থাকায় দুর্ভোগে পড়েছেন আশেপাশের কয়েক গ্রামের মানুষ।

জানা যায়, সম্প্রতি এলজিএসপি প্রকল্পের আওতায় চকগোয়াশ কুলপাড়ায় ৬০ মিটার রাস্তার কাজ শেষ করেন ইউপি সদস্য বাদশা মিয়া। রাস্তার কাজ শেষ হলেও চূড়ান্ত পরিদর্শনের অপেক্ষায় আছে রাস্তাটি। বিধি অনুযায়ী, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর কর্তৃপক্ষ চূড়ান্ত পরিদর্শন শেষ করে কাজ সন্তোষজনক ও শিডিউল মোতাবেক হয়েছে উল্লেখ করে রিপোর্ট দিলেই বিলের অর্থ উত্তোলন করতে পারবেন ওই ইউপি সদস্য।

এদিকে, রাস্তা সংস্কারের পর খুলে দেয়া হলে যান চলাচল শুরু হয়। ফলে ভারী মালামাল বহনকারী গাড়িগুলোর কারণে রাস্তা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে কর্তৃপক্ষ পরিদর্শনে এসে ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তা দেখে অসন্তুষ্ট হলে বিল উত্তোলন করতে পারবেন না এমন দাবি ওই ইউপি সদস্যের।

আর এমন ধারণা থেকেই নতুন রাস্তার শেষ দিকে যান চলাচল বন্ধ করতে প্রকল্পের চারজন শ্রমিককে দিয়ে রাস্তা খুঁড়ে প্রায় তিন ফুট গভীর গর্তের সৃষ্টি করেন ইউপি সদস্য বাদশা মিয়া।

ইউপি সদস্য বাদশা মিয়া এমন কাণ্ডের কথা অকপটে স্বীকার করেছেন। বিল পেতে রাস্তার ব্যবহার বন্ধ নিয়ে দুঃখ প্রকাশও করেন তিনি।

এ ব্যাপারে ১নং পাঁকা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেনের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

আপনার মতামত লিখুন :

নাব্যতা সংকটে ফেরি চলাচল ব্যাহত

নাব্যতা সংকটে ফেরি চলাচল ব্যাহত
মাদারীপুর ম্যাপ

দেশের দক্ষিণবঙ্গের মানুষের রাজধানীসহ সারাদেশের সাথে যোগাযোগের অন্যতম নৌরুট কাঁঠালবাড়ি-শিমুলিয়া। এছাড়াও দেশের ব্যস্ততম নৌরুট হওয়া সত্ত্বেও, এ পথে বছরের বিভিন্ন সময়ে ফেরি চলাচল সংকট লেগেই থাকে।

মূলত নাব্যতা সংকটের কারণে ফেরি চলাচল ব্যাহত হয় বর্ষা ও শুষ্ক উভয় মৌসুমেই। তারই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার (২২ আগষ্ট) রাত ১১টা থেকে নাব্যতা সংকটে ব্যাহত হচ্ছে ফেরী চলাচল।

বিআইডব্লিউটিসি'র কাঁঠালবাড়ী ফেরি ঘাটের একটি সূত্র জানিয়েছে, রাতে হঠাৎ করে নদীর লৌহজং টার্নিং পয়েন্টের চ্যানেলের মুখে পানি কমে যাওয়ায় ব্যাহত হচ্ছে ফেরি চলাচল। তাই রাত থেকে বন্ধ রয়েছে রোরো ও ডাম্প ফেরি চলাচল। ৩টি কে-টাইপ ও ১টি মিডিয়ামসহ মাত্র চারটি ফেরি দিয়ে যানবাহন পার করা হচ্ছে। 

বিআইডব্লিউটিসি'র কাঁঠালবাড়ী ফেরি ঘাটের উচ্চমান সহকারী ফিরোজ আহম্মেদ বলেন, ‘রাতে একটি রোরো ফেরি কাঁঠালবাড়ী ঘাটে এসেছে। চ্যানেলের মুখে পানি কম থাকায় ফেরির তলদেশ ডুবো চরে ঠেকে যাচ্ছে। যার কারনে রাত ১১টা থেকে ৩টি রোরো, ও ৫টি ডাম্প ফেরি বন্ধ রাখা হয়েছে। তবে ছোট ছোট চারটি ফেরি চলছে। ঘাটে মানুষ ও গাড়ির তেমন চাপ নেই।’

শত্রুতার জেরে ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে জখম

শত্রুতার জেরে ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে জখম
হামলায় আহত ইউপি সদস্য মোদাচ্ছের সরদার, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার লক্ষীপুর ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোদাচ্ছের সরদারকে কুপিয়ে জখম করেছে সন্ত্রাসীরা। আহত ইউপি সদস্যকে চিকিৎসার জন্য মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা ফজলুল হক বেপারীর সাথে একই এলাকার আওয়ামীলীগ নেতা গেন্দু কাজীর মাঝে বিরোধ সৃষ্টি হয়।

এই জের ধরেই বুধবার (২১ আগস্ট) দুপুরে গেন্দু কাজীর লোকজন ফজলু বেপারীর লোকজনের উপর হামলা করে। পরে উভয়পক্ষ দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়ে। এতে উভয়পক্ষের ৩০ জন আহত হয়। ধারণা করা হচ্ছে, এ ঘটনার জের ধরে ইউপি সদস্য মোদাচ্ছেরের উপর হামলা করা হয়।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/23/1566502631001.jpg

বৃহস্পতিবার (২২ আগষ্ট) রাত আটটার দিকে লক্ষ্মীপুর ইউনিয়ন পরিষদ থেকে মোদাচ্ছের তার বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দিয়ে রায়পুর ভাটাবালী পৌঁছালে পূর্বে থেকে ওঁত পেতে থাকা সন্ত্রাসীরা এ হামলা চালায়।

ইউপি সদস্যের চিৎকার শুনে এলাকাবাসী ঘটনাস্থলে চলে আসলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। এরপর স্থানীয়দের সহায়তায় তাকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। বর্তমানে তার শারীরিক অবস্থা গুরুত্বর।

মাদারীপুর জেলা পুলিশ সুপার (ভারপ্রাপ্ত) উত্তম কুমার পাঠক বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ‘বিষয়টি জানার পর পুলিশ পাঠিয়েছি। এখন এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। বর্তমানে ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।’

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র