Barta24

শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬

English

ক্ষতিগ্রস্ত হাঁস খামারি কাশেমের পাশে ছাত্রলীগ

ক্ষতিগ্রস্ত হাঁস খামারি কাশেমের পাশে ছাত্রলীগ
ক্ষতিগ্রস্ত হাঁস খামারি কাশেমের পাশে ছাত্রলীগ, ছবি: বার্তা২৪.কম
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
নেত্রকোনা
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলার বলাইশিমুল ইউনিয়নের ছবিলা গ্রামের ক্ষতিগ্রস্ত হাঁস খামারি শারীরিক প্রতিবন্ধী আবুল কাশেমের পাশে দাঁড়িয়েছে ছাত্রলীগ। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রব্বানীর নির্দেশে মঙ্গলবার (১১ জুন) বিকেলে নেত্রকোনা জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম-সম্পাদক সোবায়েল আহমদ খান আবুল কাশেমের হাতে ২শ হাঁসের মূল্য বাবদ ২৮ হাজার টাকা তুলে দেন।

রোববার (৯ জুন) আবুল কাশেমের ৪১৩টি হাঁস বিষ দিয়ে মেরে ফেলার অভিযোগ উঠে। গত রোববার বিকেলে উপজেলার বলাইশিমুল ইউনিয়নের ছবিলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি তাৎক্ষণিক পুলিশকে জানান ওই খামারি আবুল কাশেম।

এসব হাঁসের দেওয়া ডিমের উপার্জনে শারীরিক প্রতিবন্ধী আবুল কাশেম সংসার চালাতেন। মরে যাওয়া হাঁসের বাজার মূল্য প্রায় আড়াই লাখ টাকা ছিল বলে জানান তিনি।

ঘটনার বিষয়ে হাঁস খামারের মালিক আবুল কাশেম জানান, রোববার সকালে প্রতিদিনের মতো ১৭শ’ হাঁসকে হাওড়ের পরিত্যক্ত খাবার খেতে ছেড়ে দেন। হাঁসগুলো বাড়ির খামার থেকে বেরিয়ে পাশের একটি পরিত্যক্ত ধান ক্ষেতে খাবার খায়। খাবার খাওয়ার কয়েক মিনিট পরেই হাঁসগুলো মারা যেতে শুরু করে।

আবুল কাশেমের ধারণা, ওই ধান ক্ষেতে কেউ হয়ত শত্রুতাবশত বিষ দিয়ে রেখেছিল। এজন্য হাঁসগুলো এক এক করে দ্রুত মারা যায়।

প্রতিবন্ধী খামারির হাঁস মারা যাওয়ার বিষয়টি নজরে এলে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী তার ফেইসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন। ওই স্ট্যাটাসে তিনি লিখেন, ‘নেত্রকোণার কেন্দুয়া উপজেলার বলাইশিমুল ইউনিয়নের ছবিলা গ্রামের হতদরিদ্র আবুল কাশেম। শারীরিক প্রতিবন্ধী কাশেম ভাই কায়িক শ্রমের কাজ করতে পারেন না বলেই মোটা সুদে ঋণ করে হাঁসের খামার করেছিলেন ভাগ্য ফেরানোর আশায়। বিধি বাম! দুর্বৃত্তদের প্রয়োগ করা বিষে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে তার বেঁচে থাকার অবলম্বন প্রায় ৮০০ হাঁস!’

‘আমরা বাংলাদেশ ছাত্রলীগ পরিবার অসহায় আবুল কাশেম ভাইয়ের পাশে দাঁড়াব। সারা দেশের লাখো লাখো ছাত্রলীগ কর্মীর মাঝে আমরা ৮শ’ কর্মী যদি একটি করে হাঁসের দায়িত্ব নেই, কাশেম ভাইয়ের পরিবার আবার বাঁচার অবলম্বন পাবে।’

‘আমি আজ কথা বলেছি তার সাথে, ইনশাআল্লাহ- আমরা সবাই মিলে কাশেম ভাইয়ের পাশে থাকবো। দ্রুতই ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে তাকে ৮শ’ হাঁস কিনে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে। মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য।’

জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সোবায়েল আহমেদ খান গোলাম রব্বানীর নির্দেশে মঙ্গলবার বিকেলে আবুল কাশেমের বাড়িতে যেয়ে ২শ’ হাঁসের দাম ২৮ হাজার টাকা তার হাতে তুলে দেন। এ সময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন- উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা শহিদুল হক ফকির, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ফজলু মিয়া, জেলা ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক সৈয়দ আল রাকিব, সদস্য সাইফুল ইসলাম শুভ্র, মো. করিম, ওবায়দুর রহমান খান, সাইফুল ইসলাম লালন, জাহিদ হাসান প্রান্ত, তানভীর হাসান বাধন, জাহিদুল হাসান জিকু, তাকবির হোসেন, সাদ সাদেক, আব্দুল্লাহ আল মামুন, মো. মুরসালিন, রাকিব তুষার, মাহফুজুর রহমান পিয়াস, সানোয়ার সাকলাইন, সারিমূল ইসলাম সানি ও সানিমূল ইসলাম তুহিন প্রমুখ।

এ প্রসঙ্গে খামার মালিক আবুল কাশেম জানান, ছাত্রলীগ নেতার সঙ্গে কথা হয়েছে। তারা আমাকে হাঁস কেনার টাকা দিয়েছেন। আমি এখন ছেলে-মেয়ে নিয়ে চলতে পারবো।

সোবায়েল আহমদ খান জানান, কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী ভাইয়ের সাথে কথা বলে তার পক্ষে তিনি এই সহায়তা করেছেন।

আপনার মতামত লিখুন :

শত্রুতার জেরে ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে জখম

শত্রুতার জেরে ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে জখম
হামলায় আহত ইউপি সদস্য মোদাচ্ছের সরদার, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

পূর্ব শত্রুতার জের ধরে মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার লক্ষীপুর ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোদাচ্ছের সরদারকে কুপিয়ে জখম করেছে সন্ত্রাসীরা। আহত ইউপি সদস্যকে চিকিৎসার জন্য মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা ফজলুল হক বেপারীর সাথে একই এলাকার আওয়ামীলীগ নেতা গেন্দু কাজীর মাঝে বিরোধ সৃষ্টি হয়।

এই জের ধরেই বুধবার (২১ আগস্ট) দুপুরে গেন্দু কাজীর লোকজন ফজলু বেপারীর লোকজনের উপর হামলা করে। পরে উভয়পক্ষ দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়ে। এতে উভয়পক্ষের ৩০ জন আহত হয়। ধারণা করা হচ্ছে, এ ঘটনার জের ধরে ইউপি সদস্য মোদাচ্ছেরের উপর হামলা করা হয়।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/23/1566502631001.jpg

বৃহস্পতিবার (২২ আগষ্ট) রাত আটটার দিকে লক্ষ্মীপুর ইউনিয়ন পরিষদ থেকে মোদাচ্ছের তার বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দিয়ে রায়পুর ভাটাবালী পৌঁছালে পূর্বে থেকে ওঁত পেতে থাকা সন্ত্রাসীরা এ হামলা চালায়।

ইউপি সদস্যের চিৎকার শুনে এলাকাবাসী ঘটনাস্থলে চলে আসলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। এরপর স্থানীয়দের সহায়তায় তাকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। বর্তমানে তার শারীরিক অবস্থা গুরুত্বর।

মাদারীপুর জেলা পুলিশ সুপার (ভারপ্রাপ্ত) উত্তম কুমার পাঠক বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ‘বিষয়টি জানার পর পুলিশ পাঠিয়েছি। এখন এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। বর্তমানে ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।’

সরকারি ও মালিকানাধীন জমিতে বালু স্তুপ করে রাখার অভিযোগ

সরকারি ও মালিকানাধীন জমিতে বালু স্তুপ করে রাখার অভিযোগ
সিরাজগঞ্জের ম্যাপ

সিরাজগঞ্জের মতিন সাহেবের ঘাট এলাকায় কতিপয় অসাধু ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে সরকারি ও ব্যক্তি মালিকানাধীন জমিতে বালু স্তুপ করে রাখার অভিযোগ পাওয়া গেছে। কয়েকমাস আগে একই জায়গায় অভিযান চালিয়ে বালু জব্দ করে নিলামে বিক্রি করে দিয়েছিল ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এদিকে উক্ত জমির নিলাম গ্রহীতা ধানবান্ধি সততা বহুমুখী সঞ্চয় সমিতির পক্ষ থেকে জেলা ও উপজেলা প্রশাসন বরাবর অভিযোগও করা হয়েছে।

লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, গত মে মাসে ধানবান্ধি-পুঠিয়াবাড়ী মৌজায় সরকারি সম্পত্তিতে স্তুপ করা বালু জব্দ করে ভ্রাম্যমাণ আদালত। পরে প্রশাসন সেই বালু নিলামে তুলে ছয় লাখ টাকায় বিক্রি করে। সে বালু ক্রয় করে সততা বহুমুখী সঞ্চয় সমিতি। কিন্তু পরে বালু সমিতি বিক্রি করতে না পারায় ওই বালু বন্যার পানিতে তলিয়ে যায়।

এ অবস্থায় যমুনা নদী থেকে বালু উত্তোলন করে কয়েকজন ব্যবসায়ী ওই বালির ওপর জোরপূর্বক স্তুপ করেছে। এছাড়াও পাশের সরকারি ও ব্যক্তি মালিকানাধীন জায়গা দখল করে বালু স্তুপ করেছে তারা। এতে নিলাম কিনে নেয়া সমিতিসহ জমির মালিকরা আর্থিকভাবে ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারেন।

এ অবস্থায় অবিলম্বে বালু উত্তোলন বন্ধে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন সমিতির সদস্যসহ জমির মালিকেরা।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সরকার মোহাম্মদ রায়হান ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) আনিসুর রহমান বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম কে বলেন, ‘সরকারি সম্পত্তিতে বালু স্তুপ রাখা অবৈধ। সার্ভেয়ারের মাধ্যমে খোঁজ খবর নিয়ে জড়িতদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র