Barta24

বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯, ১২ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

সম্পত্তির জন্য বাবাকে মারধর দুই সন্তানের

সম্পত্তির জন্য বাবাকে মারধর দুই সন্তানের
সম্পত্তির জন্য বাবাকে মারধর দুই সন্তানের, ছবি: বার্তা২৪.কম
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
মৌলভীবাজার
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে সম্পত্তির লোভে দুই সন্তান জন্মদাতা পিতাকে মারধর করেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার (১১ জুন) বিকেলে উপজেলার হুগলিয়া (গাজীপুর) এলাকায় আব্দুল ওয়াহিদ (৬৮) এর দুই ছেলে সন্তান জুয়েল মিয়া (২২) ও শামীম আহমেদ (২৫) তাদের বাবাকে মারধর করে। মারধরে আহত আব্দুল ওয়াহিদকে স্থানীয় ইউপি সদস্য ও প্রতিবেশীরা উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে আসেন।

এ ব্যাপারে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আব্দুল ওয়াহিদ শ্রীমঙ্গল থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

আব্দুল ওয়াহিদ জানান, আমার বড় ছেলে জুয়েল মিয়া মাদক সেবনকারী। প্রায় সময় মাদক সেবন করে নেশাগ্রস্ত হয়ে বাড়িতে এসে সম্পত্তি ভাগ করে না দেওয়ায় আসবাবপত্র ভাংচুর করে। আমি তাকে বাধা দিলে আমাকেও মারধর করে। বহু আগে থেকে আমার স্ত্রী জামিনা খাতুন সম্পত্তি ভাগাভাগি করার জন্য ছেলেদের পরামর্শ দেয়। সেই সঙ্গে আমাকে মারধর করার জন্য উসকিয়ে দিয়ে। আগের মতো মঙ্গলবার বিকেলেও আমার স্ত্রীর পরামর্শে বড় ছেলে জুয়েল মিয়া ও শামীম আহমেদ আমাকে মারধর করে রক্তাক্ত করে।

ইউপি সদস্য তারেক আহমেদ জানান, আব্দুল ওয়াহিদের ছেলে নেশাগ্রস্ত হয়ে সম্পত্তির লোভে প্রায়ই তাকে মারধর করতো। মঙ্গলবার খুব বেশি মারধর করে। খবর পেয়ে আমরা কয়েকজন এসে তাকে উদ্ধার করি।

শ্রীমঙ্গল থানা অফিসার ইনচার্জ মো. আব্দুছ ছালেক জানান, অভিযুক্ত আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

আপনার মতামত লিখুন :

ধরলার পানি বৃদ্ধি, কালভার্ট ভেঙে যোগাযোগ বিছিন্ন

ধরলার পানি বৃদ্ধি, কালভার্ট ভেঙে যোগাযোগ বিছিন্ন
কালভার্ট ভেঙে যাওয়ায় শহরের সঙ্গে চরাঞ্চলবাসীর যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন, ছবি: বার্তা২৪

মুষলধারে বৃষ্টিতে ধরলা নদীর পানি হঠাৎ বৃদ্ধি পেয়েছে। পানির চাপে লালমনিরহাট সদর উপজেলার কুলাঘাট ইউনিয়নের ওয়াপদা বাজারের শীবের কুটি চরের পাকা রাস্তার একটি কালভার্ট ভেঙে গেছে। ফলে চার গ্রামের ১০হাজার মানুষ আটকা পড়েছে। রাস্তা পারাপারে ব্যবহার হচ্ছে নৌকা।

বুধবার (২৬ জুন) বিকেলে যোগাযোগ ব্যবস্থা সচল করতে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বালুর বস্তা ফেলে ভেঙ্গে যাওয়া অংশ মেরামত শুরু হয়েছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার (২৫ জুন) রাত ৯টা থেকে মুষলধারে বৃষ্টি হয়। এতে ধরলার পানি এক দশমিক ৭২ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পায়। এ কারণে বুধবার সকালে ১১০ মিটার অংশ ভেঙে যায়। ফলে রাস্তার পূর্ব পাশের বোয়ালমারী চর, খারুয়ার চর, বাশপচাই, দক্ষিণ শিবেরকুটি গ্রামের ১০ হাজার মানুষ আটকা পড়ে যান।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/26/1561567119789.jpg
কালভার্ট মেরামতে কাজ করছেন পাউবো ও সওজ’র কর্মীরা, ছবি: বার্তা২৪ 

 

লালমনিরহাট শহরের একমাত্র সড়কের যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় ভোগান্তিতে পড়েছেন তারা। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে নৌকা দিয়ে পারাপার হচ্ছেন ওই চরাঞ্চলবাসী।

এদিকে, লালমনিরহাট শহরের বেশকয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা সাময়িক চলাচলের জন্য সেচ্চাশ্রম দিয়ে সহযোগিতা করেছেন পানি উন্নয়ন বোর্ড ও সওজকে।

সদর উপজেলা ভূমি অফিসের সহকারী কমিশনার জি.আর সরোয়ার বার্তা২৪.কমকে জানান, চরাঞ্চলের মানুষদের একমাত্র সড়ক ভেঙে যাওয়া সড়ক যোগাযোগ সচল করতে বালুর বস্তা ফেলে মেরামত করা হচ্ছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/26/1561567206863.jpg
বালু বস্তায় ভর্তি করছেন শ্রমিকরা, ছবি: বার্তা২৪ 

 

লালমনিরহাট পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফুল ইসলাম বার্তা২৪.কমকে জানান, ধরলার পানি বৃদ্ধি হওয়ার কারণে কালভার্ট ভেঙে গেছে। তবে বিকেল থেকে ধরলার পানি কমতে শুরু করেছে। যোগাযোগ স্বাভাবিক করতে যৌথ কাজ করছেন পানি উন্নয়ন বোর্ড ও সওজের শ্রমিকরা।

আপ্রাণ চেষ্টা করেও স্বামীকে বাঁচাতে পারলেন না স্ত্রী

আপ্রাণ চেষ্টা করেও স্বামীকে বাঁচাতে পারলেন না স্ত্রী
স্বামীকে বাচানোর আপ্রাণ চেষ্টা করলেন স্ত্রী, ছবি: সংগৃহীত

বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে শত শত পথচারীর উপস্থিতিতে স্ত্রীর সামনে শাহ নেওয়াজ রিফাত শরীফ (২৫) নামে এক যুবককে কুপিয়ে জখম করে সন্ত্রাসীরা।

বুধবার (২৬ জুন) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

গুরুতর আহতাবস্থায় প্রথমে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে অবস্থার অবনতি হলে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে ভর্তির এক ঘণ্টা পর বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে তার মৃত্যু হয়।

নিহত রিফাত শরিফের বাড়ি বরগুনা সদর উপজেলার ৬ নং বুড়িরচর ইউনিয়নের বড় লবনগোলা গ্রামে। তার পিতার নাম আ. হালিম দুলাল শরীফ। বাবা মায়ের একমাত্র ছেলে রিফাত।

এদিকে রিফাতকে কুপিয়ে হত্যার ভিডিও দ্রুত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে তা ভাইরাল হয়। ভিডিওটিতে দেখা যায় সন্ত্রাসী দুই যুবক ধারালো দা দিয়ে কোপাতে থাকে রিফাতকে। এ সময় রিফাত শরীফের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি সন্ত্রাসী দুই যুবককে বারবার প্রতিহত করার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন।

ভিডিওতে দেখা যায়, ভিডিওতে যে দুজন সন্ত্রাসীকে কুপিয়ে জখম করতে দেখা গেছে তাদের একজনের নাম নয়ন বন্ড এবং রিফাত ফরাজী। তারা উভয়েই স্থানীয়ভাবে ছিনতাই ও মাদক ব্যবসাসহ নানা অপকর্মের সাথে সম্পৃক্ত রয়েছে। এসব ঘটনায় একাধিকবার পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছে বলেও জানা গেছে।

নিহতের পারিবারিক সূত্র ও পুলিশ জানায়, নিহত রিফাত দুই মাস আগে নয়াকাটা মাইঠা এলাকার মো. কিশোরের মেয়ে আয়শা সিদ্দিকা মিনিকে বিয়ে করে। বিয়ের পর থেকে মিনিকে উত্ত্যক্ত এবং ফেসবুকে অশ্লীল ছবি পোস্ট করে কলেজ ব্রাঞ্চ রোডের ধানসিড়ি এলাকার আবুবকর সিদ্দিকের ছেলে নয়ন (২৫)। নয়ন মিনির সাবেক প্রেমিক দাবি করায় রিফাত ও নয়নের মধ্যে দ্বন্দ্বের শুরু হয়।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র