Barta24

মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯, ১ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

কাঁঠালবাড়ী ঘাটে বেদেনীদের চাঁদাবাজি, অতিষ্ঠ যাত্রীরা

কাঁঠালবাড়ী ঘাটে বেদেনীদের চাঁদাবাজি, অতিষ্ঠ যাত্রীরা
বেদেনীদের আচরণে অতিষ্ঠ হচ্ছে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের যাত্রীরা। ছবি: বার্তা২৪.কম
মাসুদুর রহমান
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
গোপালগঞ্জ


  • Font increase
  • Font Decrease

মাদারীপুর থেকে: পবিত্র ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে মাদারীপুরের কাঁঠালবাড়ী ঘাটে বেড়েছে ঘরমুখো যাত্রীদের চাপ। আর এই সুযোগে ঘাটে বেদে সম্প্রদায়ের একদল নারীদের চাঁদাবাজির তৎপরতাও বেড়ে গেছে। ফলে বেদেনীদের আচরণে অতিষ্ঠ হচ্ছে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের যাত্রীরা।

কাঁঠালবাড়ী ঘাট এলাকা ঘুরে দেখা যায়, সাপ রাখার ছোট ছোট বাক্স হাতে নিয়ে ভয় দেখিয়ে যাত্রীদের থেকে আদায় করছে বিভিন্ন অংকের টাকা। অর্থ আদায়ের জন্য জোর করে কখনো যাত্রীর গেঞ্জি টেনে ধরছে, আবার কখনো কাঁধের ব্যাগ টেনে ধরে হয়রানি করছে। তবে টাকা আদায় না করা পর্যন্ত যাত্রীদের পিছু ছাড়ে না এ বেদেনীর দল। নিরুপায় হয়ে টাকা গুনতে হচ্ছে যাত্রীদের।

মেহেদী হাসান নামে এক যাত্রী জানান, এমনিতেই ঘাটে যাত্রীদের ভিড় বেশি। মালামাল নিয়ে গাড়িতে ওঠার চেষ্টা করছি। সামনে থেকেই সাপের বাক্স নিয়ে হাজির বেদেনীরা। টাকা না দেওয়া পর্যন্ত পিছুতো ছাড়ছেই না, বরং কাঁধের ব্যাগ টেনে ধরছে। বাধ্য হয়ে টাকা দিতে হচ্ছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/01/1559392528626.jpg

আকাশ নামে আরেক যাত্রী বলেন, ‘ঘাটে বেদেনীরা জোর করলে আমি ৫০ টাকা দিয়ে ৩০ টাকা ফেরত দিতে বলেছি। তারা এক টাকাও ফেরত না দিয়ে চলে গেছে। এদের দ্বারা যাত্রীরা বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছে।’

জোর করে টাকা আদায়ের বিষয়ে জানতে চাইলে ফুরফরি নামে এক বেদেনী বলেন, ‘আমাদের যাযাবর জীবন, তাই মানুষের কাছে হাত পাতি। তবে আমরা কারো কাছ থেকে জোর করে টাকা নিচ্ছি না, বরং খুশি হয়ে যা দিচ্ছে তাই নিচ্ছি।’

শিবচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আসাদুজ্জামান বার্তা২৪.কমকে জানান, কাঁঠালবাড়ী ঘাটে মোবাইল কোর্টের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ঈদযাত্রা নির্বিঘ্ন করতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। ঘাটে যাত্রীদের হয়রানি করার সময় হাতেনাতে বেদেনীরা ধরা পড়লে আইনত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার মতামত লিখুন :

জামালপুরে বন্যার পরিস্থিতির আরো অবনতি

জামালপুরে বন্যার পরিস্থিতির আরো অবনতি
জামারপুরে বন্যা কবলিত এলাকা

উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও টানা ভারী বর্ষণে জামালপুরে বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে। জেলার সাতটি উপজেলার ৪৭ ইউনিয়ন প্লাবিত হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় যমুনার পানি ১৬ সেন্টিমিটার বেড়ে মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) সকালে বাহাদুরাবাদ পয়েন্টে বিপদসীমার ১৩৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

যমুনার পানি বিপদসীমা অতিক্রম করায় জেলার ৪৭টি ইউনিয়ন প্লাবিত হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে এসব এলাকার পুকুরের মাছ, গরুর খাবার ও বিস্তীর্ণ ফসলের মাঠ। বন্ধ হয়ে গেছে সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা। পানি বৃদ্ধির কারণে বন্যা কবলিত এলাকার ৩০০ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়ে গেছে।
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/16/1563247221662.jpg
জামালপুরে বন্যা কবলিত এলাকায় প্লাবিত হয়েছেন ৮০ হাজার পরিবারের ৫ লাখ মানুষ। বন্যার পানি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে শুকনো খাবারের প্রয়োজনের পাশাপাশি শিশু খাদ্য ও বিশুদ্ধ পানির সংকট দেখা দিয়েছে। কিছু এলাকায় দেখা দিয়েছে চর্মরোগ ও শিশুদের সর্দি জ্বর।

বন্যা আক্রান্ত মানুষেরা বলছেন তাদের কাছে এখনো ত্রাণসামগ্রী পৌঁছায়নি। অন্যদিকে ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যরা বলছেন বন্যা কবলিত মানুষের সংখ্যার চেয়ে ত্রাণের পরিমাণ কম থাকায় সবাইকে দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না।

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বন্যা কবলিত মানুষদের জন্য ৬শ’ ৫০ মে. টন চাল, নগদ ৯ লাখ ৫০ হাজার টাকা এবং ২০০০ প্যাকেট শুকনো খাবার বরাদ্দ করা হয়েছে। এছাড়াও প্রতি উপজেলায় ২টি করে মেডিকেল টিম দেওয়া আছে।

নারায়ণগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ১৪ মামলার আসামি নিহত

নারায়ণগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ১৪ মামলার আসামি নিহত
ছবি: প্রতীকী

নারায়ণগঞ্জে মাদকসহ ১৪ মামলার আসামি বিপ্লব হোসেন (৩১) জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছেন৷

সোমবার (১৫ জুলাই) রাত আড়াইটার দিকে ফতুল্লার চাঁদমারী এলাকায় ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের মাইক্রোবাস স্ট্যান্ডের পাশে এ ঘটনা ঘটে৷ ঘটনাস্থল থেকে একটি ওয়ান শুটারগান উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ডিবি৷

নিহত বিপ্লব নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার চাঁদমারী এলাকার সুলতান মিয়ার ছেলে।

জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) কামরুল জানান, তালিকাভুক্ত শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী বিপ্লবের বিরুদ্ধে শুধু ফতুল্লাতেই ১৪টি মাদকের মামলা রয়েছে। ডিবি তাকে গ্রেফতারের জন্য গেলে কয়েকজন সন্ত্রাসী গুলি ছোড়ে৷ ডিবি আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছুড়লে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়৷ পরে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের মাইক্রোবাস স্ট্যান্ডের পাশে বিপ্লবের মরদেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়।

এ ঘটনায় ডিবির উপ-পরিদর্শক (এসআই) ওসমান, সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) সোহেল এবং দুই কনস্টেবল আহত হয়েছেন বলেও দাবি করেন তিনি৷

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র