Barta24

শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৬

English

শীতের সন্ধ্যায় পিঠা উৎসব

শীতের সন্ধ্যায় পিঠা উৎসব
শীতের সন্ধ্যায় পিঠা উৎসব / ছবি: বার্তা২৪
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
যশোর
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘পুনশ্চ যশোর’ জন্মের পর থেকে শীতের সন্ধ্যায় উদযাপন করে আসছে পিঠা উৎসবের। এরই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার (১১ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় নগরীর পিয়ারী মোহন রোড চিরুনী কল মোড়ে এ উৎসবের আয়োজন করা হয়।

‘বারো মাসে তেরো পার্বণের দেশ বাংলাদেশ’ শীর্ষক এ উৎসব আয়োজনে পুনশ্চ যশোরের সদস্যদের প্রচেষ্টা তৈরি হয় নতুন চালের গুড়ো আর খেজুরের গুড়ের নারকেলের পুর দিয়ে বানানো ভাঁজা চন্দ্রপুলি, রসপুলি, চিতই পিঠা, কাঁচিপাড়া, পাটিসাপটা, আন্দোসা পিঠে, ধুপি পিঠা, সবজি দিয়ে বানোনো ঝাঁল পিঠা।

এ উৎসবে পুনশ্চ যশোরের শিশু শিল্পী মৌলী, জয়িতা, সিঁথি, দ্যুতি ও অহনা’ রবীন্দ্র, নজরুল ও লোক সংগীত পরিবেশণা করা হয়।

পুনশ্চ যশোরের প্রতিষ্ঠাতা সুকুমার দাস বলেন, `ব্যস্ত কর্মময় জীবনে এখন শীতের দিনে রান্না ঘরে পরম স্নেহ আর আদরে প্রিয়জনদের জন্য গৃহিণীদের হাসিমাখা মুখে পিঠা তৈরির দৃশ্য বিরল। শহর জীবনে বিলুপ্ত প্রায় শীত ঋতুর সে সোনালী অতীতের স্মৃতি চারণ করতে ও নতুন প্রজন্মের মধ্যে দেশীয় খাবারের স্বাদকে আরো মধুময় করতে এ পিঠা উৎসবের আয়োজন। এ আয়োজনের মাধ্যমে আমরা পারস্পারিক আত্মিক বন্ধনকে আরো সুদৃঢ় করতে চেয়েছি।‘

উৎসবে অতিথি ছিলেন- যশোর সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহিত কুমার নাথ, উপশহর কলেজের অধ্যক্ষ শাহিন ইকবাল, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি যশোর জেলা শাখার সভাপতি হারুণ অর রশীদ, যশোর সংবাদপত্র পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মবিনুল ইসলাম মবিন, প্রেসক্লাব যশোরের সম্পাদক এসএম তৌহিদুর রহমান, যশোর সাংবাদিক ইউনিয়নের সহসভাপতি প্রণব দাস, সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিলন, ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মনিরুজ্জামান মুনির, দৈনিক স্পন্দনের নির্বাহী সম্পাদক মাহাবুব আলম লাভলু, তির্যক যশোরের সাধারণ সম্পাদক দীপংকর দাস রতন, যশোরে জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক যোগেশ দত্ত, জেলা শিল্পকলা একাডেমির সদস্য জাহাঙ্গীর হোসেন, শাহারিয়ার বাবু, আশীষ মুখোপাধ্যায়, চঞ্চল সরকার, সনাক সদস্য অ্যাড. প্রশান্ত দেবনাথ, জেলা মহিলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক সায়েদা বানু, আবৃত্তি শিল্পী মিনারা খন্দকার প্রমুখ।

আপনার মতামত লিখুন :

'ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে অবদানের জন্য কোনো পুরস্কার গ্রহণ করিনি'

'ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে অবদানের জন্য কোনো পুরস্কার গ্রহণ করিনি'
হবিগঞ্জে শোক সভায় বক্তব্য রাখছেন স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম/ ছবি: সংগৃহীত

ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে বিশেষ অবদানের জন্য কোনো পুরস্কার বা স্মারক গ্রহণ করেনননি উল্লেখ করে একটি সংগঠন তাদের প্রথাগতভাবে সম্মাননা জানিয়েছেন বলে দাবি করেছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।

শনিবার (২৪ আগস্ট) দুপুরে হবিগঞ্জ সার্কিট হাউজে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

তাজুল ইসলাম বলেন, ‘একটি বিতর্ক অনুষ্ঠানে অন্য সবার সাথে আমাকেও একটি স্মারক তুলে দেয় আয়োজকরা। কিন্তু এটি ভুলভাবে ব্যাখ্যা করা হচ্ছে। কোনো বিষয়কে আংশিক বা ভুলভাবে পরিবেশন করা দুঃখজনক।’

মন্ত্রী বলেন, ‘ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করছে। সকল প্রতিষ্ঠান আন্তরিকভাবে কাজ করছে। আশা করি ডেঙ্গু মোকাবিলায় আমরা সফল হব।’

পরে তিনি হবিগঞ্জ পৌরসভা আয়োজিত শোক সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে যোগদান করেন। মেয়র মিজানুর রহমান মিজানের সভাপতিত্বে শোক সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সংসদ সদস্য অ্যাড. মো. আবু জাহির, সংসদ সদস্য অ্যাড. আবদুল মজিদ খান, সংসদ সদস্য গাজী শাহনওয়াজ মিলাদ প্রমুখ।

শোক সভায় স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এদেশের মানুষকে ভালোবাসতেন। তিনি স্বপ্ন দেখতেন এদেশকে সোনার বাংলা হিসেবে গড়ে তুলবেন। এ লক্ষ্যে শিক্ষা ও কৃষিকে অগ্রাধিকার দিয়ে যখন তিনি কাজ শুরু করেছিলেন, তখন ষড়যন্ত্রকারীরা তাকে নির্মমভাবে হত্যা করে এদেশের উন্নয়নের অগ্রযাত্রাকে থামিয়ে দেয়।’

এর আগে মন্ত্রী দুই কোটি ৮৫ লাখ টাকা ব্যয়ে হবিগঞ্জ পৌরসভার কিচেন মার্কেটের উদ্বোধন করেন। পরে হবিগঞ্জ সার্কিট হাউজ মিলনায়তনে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর ও জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতর কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন চলমান কার্যক্রমের উপর মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে যোগদান করেন।

শাহজাদপুরে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে আ’লীগ নেতা নিহত

শাহজাদপুরে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে আ’লীগ নেতা নিহত
ছবি: সংগৃহীত

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে পূর্ব বিরোধের জের ধরে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ওসমান আলী (৫৫) নামে আওয়ামী লীগ নেতা নিহত হয়েছেন এবং আহত হয়েছেন নয়জন। এ ঘটনায় দু’জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার (২৪ আগস্ট) সকালে হাবিবুল্লাহনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ গ্রুপের সঙ্গে তারাব আলী গ্রুপের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। নিহত ওসমান হাবিবুল্লাহনগর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- তারাব আলী (৬০) ও এরশাদ আলী (৩৫)।

স্থানীয়রা জানান, শনিবার সকালে উপজেলার হাবিবুল্লাহনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ গ্রুপের সঙ্গে তারাব আলী গ্রুপের মধ্যে পূর্ব বিরোধের জের ধরে হামলা সংঘর্ষেও ঘটনা ঘটে। এ সময় উভয়পক্ষের লোকজন মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে একপক্ষ অপর পক্ষের ওপর হামলা করে। এ সময় উভয় পক্ষের মধ্যে ঘণ্টাব্যাপী ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, হামলা, ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় একজন নিহত হয়েছেন এবং নয়জন আহত হয়েছেন।

ইউপি চেয়ারম্যান মজিদ গ্রুপের আহতরা হলেন- শামছুল আলম (৫২), রহিমা বেগম (৫৫), শরিফ (২৫), সাইদুল (২৫)। এর মধ্যে শামসুল আলমের অবস্থা আশংকাজনক।
অপরদিকে, তারাব আলী গ্রুপের আহতরা হলেন- হোসেন আলী (৪৫), পালো আলী (২৫), গোলজার সরকার(৪৫), কালু(২২), রমজান আলী (২২)। আহতদের সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতাল ও শাহজাদপুরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

হাবিবুল্লাহনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে তারাব আলী গ্রুপের লোকজন এলাকায় আধিপত্য বিস্তার করে ত্রাস সৃষ্টি করে। এতে আমি বাধা দেওয়ায় তারা আমার লোকজনের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়।’

এ বিষয়ে শাহজাদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আতাউর রহমান বলেন, ‘সকালে রতনকান্দি দক্ষিণপাড়া গ্রামে সংঘর্ষের খবর পেয়ে আমরা তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনি। এ ঘটনার পর পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। এছাড়া ঘটনাস্থল থেকে দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ঘটনার পর থেকে এলাকায় টান টান উত্তেজনা বিরাজ করছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে এলাকায় ব্যাপক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। উভয় পক্ষ থেকে থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।’

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র