Barta24

শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৬

English

সৌদিতে এখন মাটি কামড়ে টিকে থাকাটাও মুশকিল!

সৌদিতে এখন মাটি কামড়ে টিকে থাকাটাও মুশকিল!
জাহিদুর রহমান
স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট


  • Font increase
  • Font Decrease

সৌদি আরব (মদিনা) থেকে: আলা (২২) ও আয়েশা (৪০)। এই দুই সৌদি নারী বেশ স্বতঃস্ফূর্তভাবে কাজ করছেন মদিনার একটি পাঁচ তারকা হোটেলে। আগে শুধুমাত্র টেলিফোন অপারেটর হিসেবে নারীরা সৌদি আরবে কাজ করলেও এখন হাউজ কিপিংসহ বিভিন্ন সেক্টরে তাদের দাপুটে অবস্থান চোখে লাগার মতো।

আলা ও আয়েশার সহকর্মী সবাই প্রবাসী। স্থানীয়ভাবে যাদের বলা হয় আজনবি। যার অধিকাংশই আবার বাংলাদেশি। আপাতদৃষ্টিতে এই ছবিটাকে খুবই সৌহার্দ্যের মনে হলেও এর মাঝেই উঁকি দিচ্ছে প্রবাসীদের কর্মক্ষেত্র সঙ্কুচিত হওয়ার নানা শঙ্কা। রয়েছে চাকরি হারানোর ভয়ও।

ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের সংস্কার কর্মসূচি ‘ভিশন ২০৩০' বাস্তবায়নে সৌদি নারীদের বিভিন্ন সুবিধা দিচ্ছে দেশটির সরকার।

রক্ষণশীল অবস্থা থেকে উত্তোরণ ঘটছে এখানকার নারীদের। নিজেদের ক্ষমতায়নে এই নারীরাই বদলে দিচ্ছেন মধ্যপ্রাচ্যের তেলসমৃদ্ধ দেশটির চেহারা।

আর তাদের জায়গা করে দিতেই লাগামহীন ছাঁটাইয়ের শিকার হচ্ছেন প্রবাসী কর্মিরা। কঠোর বৈষম্য আর বঞ্চনার শিকারও হচ্ছেন তারা।

ধরা যাক আবু সালেহ'র কথা। ১৮ বছর ধরে সৌদি প্রবাসী আবু সালেহ (৪৩) কাজ করেন মদিনার খুব কাছের গ্র্যান্ড মারকিউ নামের পাঁচ তারকামানের হোটেলে।

১৮ বছরের অভিজ্ঞতায় তিনি বর্তমানে যে পরিমাণ পারিশ্রমিক পান, মাত্র এক বছর কাজে প্রবেশ করে পদ-পদবীতে কয়েক ধাপ নিচে থেকেও আলা ও আয়েশারা পান তারচে’ ঢের বেশি পারিশ্রমিক ও সুযোগ-সুবিধা।

/uploads/files/Vu4yvB30j59n1MYud0JG4dDvnVt1pVm1Y0wRHm1a.jpeg

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া থানার হাজিরপাড়া গ্রামের মৃত আবদুল বারেকের ছেলে আবু সালেহ ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন রুম বয় হিসেবে। বর্তমান সৌদি সরকারের ভিশন অনুযায়ী প্রবাসীরা ১২টি পেশাগত শ্রেণিতে বিন্যাস অনুযায়ী শীর্ষ কোনো পদে চাকরি কিংবা স্বর্ণ ও মোবাইলসহ নানা ব্যবসায় থাকতে পারবেন না।

এতদিন আবু সালেহরা যেভাবে পদন্নোতি পেয়ে ধাপে ধাপে ওপরে উঠেছেন- সেই পথটাও ক্রমশ রুদ্ধ হয়ে এসেছে।

কেবল নারীর ক্ষমতায়নই নয়, সৌদি বেকার যুবকদের কর্মসংস্থানের ভিশন নিয়ে এগিয়ে চলছে দেশটির সরকার। নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি না হলেও তা পূরণ করা হচ্ছে প্রবাসীদের জায়গাগুলোতে। প্রবাসীদের ওপর চাপানো হচ্ছে বাড়তি করের বোঝা। যে কারণে সবক্ষেত্রেই প্রচণ্ড চাপের মধ্যে রয়েছেন প্রবাসীরা।

কথা হয় গ্র্যান্ড মারকিউ হোটেলের সহকারী এক্সিকিউটিভ হাউস কিপার চাঁদপুরের মতলবের বাসিন্দা শফিকুল ইসলামের (৪০) সঙ্গে।

তিনি জানান, যারা একটু ভালো চাকরি-বাকরি করেন; এমন অনেকেই আগে পরিবার নিয়ে বসবাস করলেও বিরূপ পরিস্থিতির মুখে স্বজনদের দেশের বাইরে পাঠিয়ে দিয়েছেন। ছুটিছাটা না পেলেও তিন থেকে ছয় মাসের জন্যে স্ত্রী, সন্তানকে কাছে রাখবেন সেটাও বেশ জটিল করে দিয়েছে দেশটির সরকার। পরিবারের স্বজনদের জন্যে ভিজিট ভিসা ফি যেখানে ভারতীয় নাগরিকদের জন্যে মাত্র ৩০৫ রিয়াল সেখানে বাংলাদেশিদের জন্য ২ হাজার রিয়াল।

এত টাকা ফি, তার ওপর যাতায়াতসহ বাড়তি খরচের কারণে ভিজিট ভিসায় পরিবারের স্বজনদের নির্দিষ্ট দিনের জন্যে নিয়ে আসাটাও কষ্টকর। এখানে চাকরি করে আর সুখ নেই। পবিত্র মদিনাতে থাকি, ছুটি পেলে মক্কায় যেতে পারি- বলতে পারেন এই সান্তনা নিয়েই কাজ করি।

হোটেলে সিনিয়র সুপারভাইজার টাঙ্গাইল বাসাইলের সালাহউদ্দিনের সঙ্গে। তিনি জানান, সমানে যে দিন আসছে; তাতে করে শিগগির এ দেশ ছেড়ে চলে যেতে হবে। ১৮ বছর এখানে থাকার পর দেশে মানানসই কাজ পাবেন কিনা সে চিন্তাতেও তার মতো অনেকের কপালে ভাঁজ পড়েছে।

দীর্ঘ দেড় দশক থাকার পর চলমান পরিস্থিতিতে হাঁপিয়ে উঠেছে ঢাকার সাভারের মোক্তার হোসেন। লন্ড্রি ম্যানেজার হিসেবে দায়িত্ব পালন করা মোক্তার জানালেন, এখানে এখন মাটি কামড়ে টিকে থাকাটাও মুশকিল।

সহসাই তিনি দেশে ফিরে যাচ্ছেন। হজের পর তার মতো অসংখ্য মানুষকে এ দেশ ছাড়তে হবে, উপায় নেই- জানান মোক্তার হোসেন।

আপনার মতামত লিখুন :

ব্লেন্ডার মেশিন থেকে সাড়ে তিন হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার

ব্লেন্ডার মেশিন থেকে সাড়ে তিন হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার
আটক হওয়া মাদক ব্যবসায়ী, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

রাজধানীর কাফরুল এলাকার একটি বাসার ব্লেন্ডার মেশিনে রক্ষিত অবস্থায় ৩ হাজার ৬৫০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করেছে র‍্যাব-৪। এ ঘটনায় মো. ইউনুস নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‍্যাব।

রোববার (২৪ আগস্ট) রাতে র‍্যাব-৪ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাজেদুল ইসলাম সজল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/24/1566664805904.jpg

সাজেদুল ইসলাম সজল বলেন, 'আজ বিকেল ৫টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‍্যাব-৪ এর একটি দল কাফরুল থানাধীন সেনপাড়া পর্বতা এলাকার একটি আবাসিক ভবনের ৬ তলার ফ্ল্যাটে অভিযান পরিচালনা করে। ফ্ল্যাটটিতে অভিযানের এক পর্যায়ে একটি ব্লেন্ডার মেশিনে রক্ষিত অবস্থায় ৩ হাজার ৬৫০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়। এছাড়া এ ঘটনায় মাদক ব্যবসায়ী ইউসুফকে আটক করা হয়।'

তিনি বলেন, 'প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, ইউসুফ কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থেকে ইয়াবা ট্যাবলেট সংগ্রহ করে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় পাইকারি ও খুচরা বিক্রয় করে থাকে।'

আটকের বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে বলেও তিনি জানান।

আইভি রহমান স্মরণে মিলাদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

আইভি রহমান স্মরণে মিলাদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের সহধর্মিণী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাবেক মহিলা বিষয়ক সম্পাদক আইভি রহমানের ১৫তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শনিবার (২৪ আগস্ট) বাদ আছর আইভি কনকডে অনুষ্ঠিত এ মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে মন্ত্রী, সংসদ সদস্য, আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মী ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ এবং বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচলকগণসহ কর্মকর্তা-কর্মচারী ও আত্মীয়-স্বজন অংশ নেন।

এছাড়া আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য মতিয়া চৌধুরী, অ্যাডভোকেট আবদুল মতিন খসরু, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমাদ হোসেন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, প্রখ্যাত অভিনেতা ও সংসদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠান (ফারুক), তথ্যসচিব আবদুল মালেক ও বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন মিলাদে যোগ দেন।

অনুষ্ঠানে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান এবং ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহত তাঁর পত্নী আইভি রহমানসহ সবার রুহের মাগফেরাত কামনা করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী আইভি রহমানের ছেলে সংসদ সদস্য নাজমুল হাসান পাপনসহ পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন এবং সমবেদনা জানান।

২০০৪ সালের ২১ আগস্ট রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগের শান্তিপূর্ণ সমাবেশে গ্রেনেড হামলায় আইভির রহমান স্প্রিন্টারের আঘাতে গুরুতর আহত হয়ে আজকের এই দিনে মৃত্যুবরণ করেন।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র