Barta24

রোববার, ২৫ আগস্ট ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬

English

ময়মনসিংহ সিটিতেই ২২ রেলক্রসিং, জ্যামের কবলে নগরবাসী

ময়মনসিংহ সিটিতেই ২২ রেলক্রসিং, জ্যামের কবলে নগরবাসী
ট্রেন পার হওয়ার সময় সড়কের দুপাশেই গাড়ির দীর্ঘ লাইন সৃষ্টি হয়, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
উবায়দুল হক
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম
ময়মনসিংহ


  • Font increase
  • Font Decrease

প্রায় আড়াইশো বছরের পুরনো শহর ময়মনসিংহ। পৌরসভা থেকে সিটি করপোরেশনের মর্যাদা লাভের পর শহরটিতে জনসমাগম বেড়েছে কয়েকগুণ। কিন্তু সেই তুলনায় প্রশস্ত হয়নি রাস্তাঘাট। তাই দিন দিন যানজটের শহরে পরিণত হচ্ছে ময়মনসিংহ নগরী।

এরমধ্যে অবৈধ অটোরিকশা চলাচলের সঙ্গে শহরজুড়ে যানজটের একটি বড় কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে রেলের লেভেল ক্রসিং। সিটি করপোরেশন এলাকার বিভিন্ন প্রান্তে ২২টি রেলক্রসিং থাকায় ট্রেন চলাচলের সময় যানজটে আটকে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে নগরবাসীকে।

রিফাত আল হাসান নামে এক শিক্ষার্থী বলেন, 'যত দিন যাচ্ছে আমাদের শহরে যানজট ততই বাড়ছে। কয়েক বছর আগেও যখন চরপাড়া থেকে টাউনহল যেতাম তখন সময় লাগত ১০ থেকে ১৫ মিনিট। আর এখন এই জায়গাটুকু যেতে সময় লেগে যায় প্রায় পৌনে এক ঘণ্টা। এমন কোনো মোড় নাই, যেখানে জ্যাম নাই।'

প্রতিদিন অসহনীয় যানজটের শিকার হওয়া হাবিবুর রহমান মিলন নামের এক অভিভাবক বলেন, 'ট্রেন আসার প্রায় ১০ মিনিট আগেই রেলগেট বেরিয়ার ফেলে রাখা হয়। এটা আমাদের জন্য খুবই কষ্টদায়ক। রোদের মাঝে অপেক্ষা করতে হয়। বাচ্চাদের স্কুলে যেতেও দেরি হয়ে যায়।'

ময়মনসিংহ সিটিতেই ২২ রেলক্রসিং

ব্রিটিশ আমলে নির্মিত এ রেলপথ দিয়ে ঢাকা-ময়মনসিংহ, ময়মনসিংহ-জামালপুর, ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জসহ বেশ কয়েকটি রুটে ২৪ ঘণ্টায় আন্তঃনগরসহ ২৯ জোড়া ট্রেন চলাচল করে। আর এসব ট্রেন চলাচলের সময় শহরে লেভেল ক্রসিংয়ে আটকা পড়ে যানবাহন।

ময়মনসিংহ রেলওয়ে থেকে পাওয়া তথ্য মতে- শহরের সানকিপাড়া, সিকে ঘোষ রোড, সাহেব আলী রোড, পাটগুদাম, ফুলবাড়িয়া বাসস্ট্যান্ডসহ সিটি করপোরেশন এলাকার বিভিন্ন স্থানে ২২টি রেলক্রসিং রয়েছে। বিভিন্ন রুটে ৫৮ বার ট্রেনের যাওয়া আসার সময় থামাতে হয় যানবাহন। যেখানে প্রতিবার সময় ব্যয় হয় ৭ থেকে ১০ মিনিট। সে হিসেবে প্রতিদিন অন্তত সাত ঘণ্টা সময় নষ্ট হয় রেলক্রসিংয়ের জ্যামে।

নগরীতে সরু সড়ক ও লেভেল ক্রসিংয়ের বিষয়টিই যানজটের অন্যতম বড় কারণ হিসেবে বলছেন জেলা পুলিশ সুপার শাহ আবিদ হোসেনও।

ময়মনসিংহ সিটিতেই ২২ রেলক্রসিং

তিনি বলেন, 'বিভাগীয় শহর হিসেবে সড়কগুলো যতটা প্রশস্ত থাকা দরকার, তা নেই। সরু সড়ক যানজটের একটি কারণ। তবে আরেকটি বড় কারণ হচ্ছে শহরের ভেতর থাকা রেলক্রসিং। ২২টি জায়গায় প্রতিদিন ৫৮ বার ট্রেনের জন্য গাড়ি থামানোর কারণে যে জ্যামের সৃষ্টি হয় তা পুরো শহরেই ছড়িয়ে পড়ে।'

যানজট নিরসনে রেলপথকে শহরের বাইরে নেওয়ার পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন।

তিনি বলেন, 'এখানে যেহেতু রেলপথ মন্ত্রণালয় শুধু না, আরও অনেক মন্ত্রণালয় জড়িত আছে। আমরা সেসব মন্ত্রণালয়ের দৃষ্টি আকর্ষণ করব, যেন ভবিষ্যতে এ বিষয়ে পরিকল্পনা গ্রহণ করে রেললাইন শহরের বাইরে সরানো যায় কিনা। যদিও এটি সময় সাপেক্ষ ব্যাপার। তবুও ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন এ ব্যাপারে সচেষ্ট থাকবে।'

এদিকে ময়মনসিংহ রেলওয়ে জোনের সহকারী নির্বাহী প্রকৌশলী সুকুমার বিশ্বাস বলছেন, 'রেলপথ সরানোর কোন সুযোগ নেই। রেল রেলের জায়গায়ই আছে, থাকবে বরং আরও সম্প্রসারণ হবে। রেললাইন রেখেই যানজট নিরসনে নিতে হবে বিকল্প ব্যবস্থা।'

তবে সকল বিভাগের সমন্বয়ে দ্রুত শহরকে যানজট মুক্ত করতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি জোর দাবি নগরবাসীর।

আপনার মতামত লিখুন :

ব্লেন্ডার মেশিন থেকে সাড়ে তিন হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার

ব্লেন্ডার মেশিন থেকে সাড়ে তিন হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার
আটক হওয়া মাদক ব্যবসায়ী, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

রাজধানীর কাফরুল এলাকার একটি বাসার ব্লেন্ডার মেশিনে রক্ষিত অবস্থায় ৩ হাজার ৬৫০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করেছে র‍্যাব-৪। এ ঘটনায় মো. ইউনুস নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‍্যাব।

রোববার (২৪ আগস্ট) রাতে র‍্যাব-৪ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাজেদুল ইসলাম সজল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/24/1566664805904.jpg

সাজেদুল ইসলাম সজল বলেন, 'আজ বিকেল ৫টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‍্যাব-৪ এর একটি দল কাফরুল থানাধীন সেনপাড়া পর্বতা এলাকার একটি আবাসিক ভবনের ৬ তলার ফ্ল্যাটে অভিযান পরিচালনা করে। ফ্ল্যাটটিতে অভিযানের এক পর্যায়ে একটি ব্লেন্ডার মেশিনে রক্ষিত অবস্থায় ৩ হাজার ৬৫০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়। এছাড়া এ ঘটনায় মাদক ব্যবসায়ী ইউসুফকে আটক করা হয়।'

তিনি বলেন, 'প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, ইউসুফ কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থেকে ইয়াবা ট্যাবলেট সংগ্রহ করে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় পাইকারি ও খুচরা বিক্রয় করে থাকে।'

আটকের বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে বলেও তিনি জানান।

আইভি রহমান স্মরণে মিলাদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

আইভি রহমান স্মরণে মিলাদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের সহধর্মিণী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাবেক মহিলা বিষয়ক সম্পাদক আইভি রহমানের ১৫তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শনিবার (২৪ আগস্ট) বাদ আছর আইভি কনকডে অনুষ্ঠিত এ মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে মন্ত্রী, সংসদ সদস্য, আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মী ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ এবং বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচলকগণসহ কর্মকর্তা-কর্মচারী ও আত্মীয়-স্বজন অংশ নেন।

এছাড়া আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য মতিয়া চৌধুরী, অ্যাডভোকেট আবদুল মতিন খসরু, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমাদ হোসেন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, প্রখ্যাত অভিনেতা ও সংসদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠান (ফারুক), তথ্যসচিব আবদুল মালেক ও বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন মিলাদে যোগ দেন।

অনুষ্ঠানে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান এবং ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহত তাঁর পত্নী আইভি রহমানসহ সবার রুহের মাগফেরাত কামনা করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী আইভি রহমানের ছেলে সংসদ সদস্য নাজমুল হাসান পাপনসহ পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন এবং সমবেদনা জানান।

২০০৪ সালের ২১ আগস্ট রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগের শান্তিপূর্ণ সমাবেশে গ্রেনেড হামলায় আইভির রহমান স্প্রিন্টারের আঘাতে গুরুতর আহত হয়ে আজকের এই দিনে মৃত্যুবরণ করেন।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র