Alexa

উত্তরপত্র সঠিক মূল্যায়নের ফলে কমেছে পাসের হার: শিক্ষামন্ত্রী

উত্তরপত্র সঠিক মূল্যায়নের ফলে কমেছে পাসের হার: শিক্ষামন্ত্রী

এবার এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষায় পাসের হার কিছুটা কমেছে। উত্তরপত্রের সঠিক মূল্যায়নের ফলেই গেলবারের তুলনায় পাসের হার কমেছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। রোববার সকালে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল হস্তান্তর করে একথা জানান মন্ত্রী। তবে আস্তে আস্তে এটার উন্নতি হবে। সাধারণভাবে একটা কথা প্রচলিত হয়ে গেছে ওজন করে খাতার মূল্যায়ন করা হয়, এখন সেই সুযোগটা আর নেই বলেও মন্তব্য করেন তিনি। ফলাফল বিশ্পালেষণে দেখা যায়, এবার গড় পাসের হার ৬৮ দশমিক নয় এক শতাংশ। গত বছরের চেয়ে পাসের হার কমেছে পাঁচ দশমিক সাত নয় শতাংশ। সারাদেশে জিপিএ ফাইভ পেয়েছেন ৩৭ হাজার ৭২৬ জন শিক্ষার্থী। জিপিএ-ফাইভ পাওয়ার সংখ্যাও কমেছে ২০ হাজার ৫৫০। পাসের হারে এবারো ছেলেদের তুলনায় এগিয়ে মেয়েরা। রোববার সকালে ফলাফল প্রকাশের পর পরই খুদেবার্তা ও নিজ নিজ প্রতিষ্ঠান থেকে ফলাফল সংগ্রহ করেন শিক্ষার্থীরা। এবছর মোট পরীক্ষার্থী ১১ লাখ তেষট্টি হাজার ৩৭০ জন। পাস করেছেন, ৮ লাখ ১ হাজার ৭১১ জন। ৮টি সাধারণ বোর্ডে পাসের হার ৬৬ দশমিক আট চার শতাংশ। কারিগরি বোর্ডে পাসের হার ৮১ দশমিক তিন তিন শতাংশ। বোর্ড ভিত্তিক ফলাফলে দেখা যায় রাজশাহীতে পাসের হার ৭১ দশমিক তিন শূন্য শতাংশ। দিনাজপুরে পাসের হার ৬৫ দশমিক চার চার শতাংশ। বরিশালে পাসের হার ৭০ দশমিক দুই আট শতাংশ। সিলেটে ৭২ দশমিক শূন্য শতাংশ। যশোর বোর্ডে পাসের হার ৭০ দশমিক শূন্য ০২ শতাংশ। রাজশাহীতে ৫,২৯৪ জন। দিনাজপুরে ২,৯৮৭ জন, বরিশালে ৮১৫ জন, সিলেটে ৭শ’ জন জিপিএ-৫ পেয়েছেন। মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডে পাসের হার ৭৭ দশমিক দুই শূণ্য শতাংশ। জিপিএ-৫ পেয়েছেন ১,৮১৫জন। কারিগরি বোর্ডে পাসের হার ৮১ দশমিক তিন তিন শতাংশ, জিপিএ-৫ পেয়েছেন ২,৬৬৯ জন। রোববার সকালে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে ফলাফলের সারসংক্ষেপ তুলে দেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। এসময়, সেখানে সব শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত লিখুন :