Barta24

শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯, ৫ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

রংপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ

রংপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ
ছবি: বার্তা২৪
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
রংপুর


  • Font increase
  • Font Decrease

রংপুর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট ছাফিয়া খানমের বিরুদ্ধে দুর্নীতি, অনিয়ম ও স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ উঠেছে। বুধবার (২৬ জুন) বিকেলে রংপুর জেলা পরিষদ হলরুমে সংবাদ সম্মেলনে তার বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ আনেন।

তাদের দাবি, রংপুর সিটি করপোরেশনের (রসিক) মেয়রের সাথে কোটি টাকার লেনদেন করে ওরিয়েন্টাল সিনেমা হল নিয়ে চলমান মামলা পরিচালনায় অনাগ্রহ দেখাচ্ছেন চেয়ারম্যান। এতে জেলা পরিষদ প্রায় অর্ধশত কোটি টাকার সম্পত্তি বেহাত হতে পারে। এছাড়াও পরিষদের বিভিন্ন উপজেলার গাছ নামমাত্র দামে বিক্রি করে চেয়ারম্যান তার ব্যক্তিগত স্বার্থ হাসিল করেছেন।

লিখিত বক্তব্যে পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও সদস্য মোহসিনা বেগম বলেন, চেয়ারম্যান ছাফিয়া খানম গত দুই অর্থবছরে অসহায় দরিদ্রদের চিকিৎসা ও শিক্ষা অনুদান দেওয়ার নামে লাখ লাখ টাকা আত্নসাৎ করেছে। সড়কের দু'পাশ থেকে গাছ অপসারণের নামে সদস্যদের না জানিয়ে রাতারাতি গাছ কেটে তার মেয়ের জামাইকে দিয়ে বিক্রি করে প্রচুর অর্থ হাতিয়ে নিয়েছেন। ভুয়া প্রকল্পের মাধ্যমে রাজস্ব খাত থেকে বিপুল পরিমাণ টাকা হেরফের করেছেন। গত দুই অর্থবছরে এডিপি ৪০% কাজ বাস্তবায়িত করতে পারেননি। বরং প্রকল্পের টাকা ব্যাংকে জমা রেখে চেয়ারম্যান ব্যক্তিগত স্বার্থসিদ্ধি করার পাশাপাশি মাসিক লভ্যাংশ নিচ্ছেন।

তিনি অভিযোগ করেন, জেলা পরিষদের প্রত্যেকটি উন্নয়ন কাজে পরিষদ সদস্যদের সম্পৃক্ত থাকার বিধান আছে, কিন্তু চেয়ারম্যান তা মানেন না। সাতটি স্থায়ী কমিটি থাকার পরও তিনি কারো সুপারিশ বা পরামর্শ গ্রাহ্য করেন না। নিয়মিত মাসিক সভা না করেই নিজের মন মত করে ভুয়া বিল ভাউচার তৈরি করে অর্থ আত্মসাৎ করেছেন।

সংবাদ সম্মলনে পরিষদের সদস্য সিরাজুল হক প্রামানিক, পারভীন আকতার, সৈয়দ দিলনাহার, রিয়াজুল, রফিকুল ইসলাম, সেলিনা খাতুন, রফিকুর রহমান, ফিরোজ হোসেন, আনোয়ার হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

পরিষদ সদস্যরা বলেন, আমরা জনগণের কল্যাণ ও উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি নিয়ে নির্বাচিত হয়েছি, কিন্তু চেয়ারম্যানের স্বেচ্ছাচারিতায় পরিষদ আজ অকার্যকর।

এসব অভিযোগ প্রসঙ্গে জানতে চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট ছাফিয়া খানমের সাথে একাধিকবার মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

আপনার মতামত লিখুন :

‘প্রিয়া সাহা ক্ষমার অযোগ্য কাজ করেছেন’

‘প্রিয়া সাহা ক্ষমার অযোগ্য কাজ করেছেন’
আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন কাজী রিয়াজুল হক, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

সাম্প্রদায়িক সম্প্রতির একটা উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত বাংলাদেশ। সেই দেশে বসবাস করে প্রিয়া সাহা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে যে মিথ্যাচার করেছেন তা ক্ষমার অযোগ্য বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সদ্য বিদায়ী চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক।

তিনি বলেছেন, ‘কি জন্য এসব কথা বলেছেন তা খতিয়ে দেখতে হবে।’

শনিবার (২০ জুলাই) বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। 'ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন প্রতিরোধে সামাজিক সংগঠনের ভূমিকা' শীর্ষক আলোচনা সভাটির আয়োজন করে সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন নামের একটি সংগঠন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে কাজী রিয়াজুল হক বলেন, ‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রতির একটা উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত বাংলাদেশ। এটা পরীক্ষিত ও প্রমাণিত। সব সময়ই এটা আমরা দেখেছি। এরকম একটা অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশে বসবাস করে আমেরিকা প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে একটি মিথ্যাচার তিনি (প্রিয়া সাহা) করলেন, আমার মনে হয় এটা তিনি ক্ষমার অযোগ্য কাজ করেছেন।'

তিনি আরও বলেন, ‘প্রিয়া সাহা কিভাবে সেখানে গেলেন সেটা আমি জানি না। তিনি হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য জোটের জয়েন্ট সেক্রেটারি। আমরা তো তাদের কাছ থেকে একটা স্টেটমেন্ট প্রত্যাশা করেছিলাম, কিন্তু তারা তা দেয়নি। এটা কিভাবে করা হয়েছে সেটা বুঝতে পারি না। তাদের (হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য জোটের) প্রতিবাদ করতে অসুবিধা কোথায়? এখন উনি কি উদ্দেশ্য করে বলেছেন, সেটা সে (প্রিয়া সাহা) জানেন। কিন্তু এটা ঠিক ওই কথা বলার মধ্যে দিয়ে দেশের ভাবমূর্তি অনেক খানি ক্ষুণ্ন করে ফেলেছেন। এটা ক্ষতিয়ে দেখতে হবে।'

আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন- নিরাপত্তা বিশ্লেষক মেজর জেনারেল (অব) আবদুর রশীদ, আয়োজক সংগঠনের ঢাকা মহানগরের সভাপতি মো. রেজাউল হক, সহ সভাপতি খান মোহাম্মাদ বাবুল, মো. মনির হোসেন প্রমুখ।

শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনির স্বামী তৌফিক নেওয়াজ আইসিইউতে

শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনির স্বামী তৌফিক নেওয়াজ আইসিইউতে
বাঁশি বাজাচ্ছেন দীপু মনির স্বামী তৌফিক নেওয়াজ, ছবি: সংগৃহীত

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির স্বামী বিশিষ্ট আইনজীবী ও ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) ট্রাস্টি বোর্ড সদস্য ড. তৌফিক নেওয়াজ গুরুতর অসুস্থ। তিনি আইসিইউতে ভর্তি আছেন বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শনিবার (২০ জুলাই) দুপুরে ধানমন্ডিস্থ দলীয় সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব তথ্য জানান।

কাদের বলেন, ‘আমাদের জয়েন্ট জেনারেল সেক্রটারি ডা.দীপু মনির স্বামী অসুস্থ হয়ে হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি আছেন। তিনি দেশবাসীর কাছে স্বামীর সুস্থতার জন্য দোয়া চেয়েছেন।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/20/1563632165115.jpg
তৌফিক নেওয়াজ একজন বিশিষ্ট বংশীবাদক। সুযোগ পেলেই তিনি ঘরোয়া অনুষ্ঠানে বাঁশিতে সুর তোলার চেষ্টা করেন।


জানা গেছে, বৃহস্পতিবার রাতে বাসায় হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়লে ড. তৌফিক নেওয়াজকে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসকরা তাকে আইসিইউতে নেন।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তথ্য কর্মকর্তা আবুল খায়ের জানান, ড. তৌফিক নেওয়াজের মস্তিষ্কের পেছনের কিছু অংশে রক্ত চলাচল করতে পারছে না। তিনি তাকাতে কিংবা হাত-পা নাড়াতে পারছেন না। বিশিষ্ট নিউরো চিকিৎসক ডা. দীন মোহাম্মদসহ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা তাকে দেখছেন। 

চিকিৎসকেরা অনুমতি দিলে ড. তৌফিক নেওয়াজকে উন্নত চিকিৎসার জন্য আগামিকাল রোববার সিঙ্গাপুরে নেওয়া হতে পারেও বলে জানা গেছে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র