Barta24

রোববার, ২১ জুলাই ২০১৯, ৬ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

চার জেলা প্রশাসককে দুদকের চিঠি

চার জেলা প্রশাসককে দুদকের চিঠি
ডিএসসিসি প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবং ওই অঞ্চলের নির্বাহী প্রকৌশলীর সঙ্গে কথা বলে দুদক টিম
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
ঢাকা


  • Font increase
  • Font Decrease

পুরনো ঢাকার বংশালের শহীদ বুদ্ধিজীবী খালেক সর্দার পার্কের অব্যবস্থাপনা ও অনিয়মের অভিযোগে অভিযান পরিচালনা করেছে দুদক। রক্ষণাবেক্ষণের লোক নিয়োগ না দেওয়ার কারণে সংস্কারের ১ মাসের মাথায় পার্কটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, এমন অভিযোগের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান চালায় দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বৃহস্পতিবার (২০ জুন) দুদকের প্রধান কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. রাশেদুল ইসলামের নেতৃত্বে একটি দল এ অভিযান পরিচালনা করে।

অভিযানকালে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবং ওই অঞ্চলের নির্বাহী প্রকৌশলীর সঙ্গে অভিযোগের বিষয়ে আলোচনা করে দুদক দল। পরবর্তীতে ডিএসসিসি ও দুদকের সমন্বিত টিম সরেজমিনে পার্কটি পরিদর্শন করে।

দুদক টিম জানতে পারে, পর্যাপ্ত সংখ্যক রক্ষণাবেক্ষণের জনবল না থাকায় স্থানীয় লোকজন কর্তৃক পার্কে যত্রতত্রভাবে প্রবেশ এবং ব্যবহারের ফলে পার্কটি ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এ অবস্থার উত্তরণে অবিলম্বে রক্ষণাবেক্ষণের জন্য লোক নিয়োগের সুপারিশ দেয় দুদক টিম।

এদিকে দিনাজপুর জেলার বিরল উপজেলার কামদেবপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এবং ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি কর্তৃক অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে অভিযান পরিচালনা করেছে দুদক। সমন্বিত জেলা কার্যালয়, দিনাজপুর-এর সহকারী পরিচালক আহসানুল কবির পলাশের নেতৃত্বে এ অভিযান পরিচালিত হয়।

দুদক টিম বিদ্যালয়ের আর্থিক নথিসমূহ যাচাই করে প্রাথমিকভাবে জানতে পারে, কামদেবপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি মোহাম্মদ আলী এবং প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ সেলিম রিজার্ভ ফান্ডের ১ লাখ ২৭ হাজার ২৫০ টাকা অবৈধভাবে উত্তোলন করে আত্মসাৎ করেছেন। এ অনিয়মের বিষয়ে অভিযান চালানো দল বিস্তারিত প্রতিবেদন দাখিল করবে বলে জানানো হয়।

এদিকে যশোর জেলা কারাগারে নানাবিধ অনিয়মের অভিযোগে অভিযান পরিচালনা করেছে দুদক। সমন্বিত জেলা কার্যালয়, উপ-পরিচালক মো. নাজমুচ্ছায়াদাতের নেতৃত্বে বৃহস্পতিবার এ অভিযান পরিচালিত হয়।

অভিযানকালে দুদক টিম জানতে পারে, ওই কারাগারে কোন স্থায়ী ডাক্তার নেই। কারাগারে কর্মরত সরকারি ফার্মাসিস্ট হাজতিদের মেডিকেল বোর্ডের ট্রান্সফার নিয়ন্ত্রণ করেন। সিভিল সার্জন অফিসের একজন ডাক্তার মাঝেমধ্যে কারাগারে আসলেও মেডিকেল ওয়ার্ডে বদলির প্রত্যয়নপত্রে কোন ডাক্তারের স্বাক্ষর পায়নি দুদক দল। ফলে এ ক্ষেত্রে ব্যাপক অনিয়মের সুযোগ রয়েছে মর্মে দুদক দল অভিমত ব্যক্ত করে। এ অব্যবস্থাপনার বিষয়ে কারাগারের জেলারকে অবহিত করলে তিনি অবিলম্বে হাসপাতালে নিয়মিত ডাক্তার পদায়নের পদক্ষেপ নেবেন মর্মে দুদক দলকে আশ্বস্ত করেন।

এদিকে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ঘুষ দাবির অভিযোগ, পাসপোর্ট অফিসের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে গ্রাহক হয়রানি ও ঘুষ দাবির অভিযোগ, বিআরটিএ অফিসের বিরুদ্ধে সেবা প্রদানে অনিয়ম ও ঘুষ গ্রহণের অভিযোগ এবং ভূমি অফিসের বিরুদ্ধে নানাবিধ অনিয়মের অভিযোগ খতিয়ে দেখতে কুমিল্লা, মাগুরা, মানিকগঞ্জ ও পিরোজপুরের জেলা প্রশাসককে চিঠি দিয়েছে দুদক।

আপনার মতামত লিখুন :

রাজধানীতে কিশোর গ্যাংয়ের ১৪ সদস্য গ্রেফতার

রাজধানীতে কিশোর গ্যাংয়ের ১৪ সদস্য গ্রেফতার
ছবি: সংগৃহীত

রাজধানীর উত্তরা থেকে অস্ত্র ও মাদকসহ ফার্স্ট হিটার বস (এফএইচবি) নামে কিশোর গ্যাং গ্রুপের ১৪ জন সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১।

রোববার (২১ জুলাই) বিষয়টি বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে নিশ্চিত করেছেন র‍্যাব সদরদফতরের সিনিয়র এএসপি মিজানুর রহমান।

তিনি বলেন, ‘অভিযান চালিয়ে এই কিশোর গ্যাং গ্রুপের ১৪ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের কাছে মাদক ও অস্ত্র পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে পরে বিস্তারিত জানানো হবে।’

খুলনায় প্র‌িয়া সাহার বিরুদ্ধে মামলা

খুলনায় প্র‌িয়া সাহার বিরুদ্ধে মামলা
প্রিয়া সাহা, ছবি: সংগৃহীত

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে মিথ্যা অভিযোগ করে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার অপরাধে প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে খুলনার আদালতে রাষ্ট্রদ্রোহিতার দু‌টি মামলা হয়েছে।

রোববার (২১ জুলাই) খুলনার মেট্রোপ‌লিটন ম্যা‌জিসট্রেট আদাৃলতে মামলা দু‌টি করেন জেলা আওয়ামী লী‌গের সাংগঠ‌নিক সম্পাদক মো. কামরুজ্জামান জামাল ও নগরীর স্টেশন রোড এলাকার মৃত রা‌জেন্দ্রনাথ সাহার ছেলে মদন কুমার সাহা। ‌

মে‌ট্রোপ‌লিটন ম্যা‌জি‌স্ট্রেট মো. আমিরুল ইসলাম বা‌দী প‌ক্ষের বক্তব্য শোনেন। যে‌হেতু এ ধারার মামলা গ্রহ‌ণের জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণাল‌য়ের অনুম‌তি প্রয়োজন ‌সে‌ক্ষে‌ত্রে পরব‌র্তী তা‌রিখ নির্ধার‌ণের জন্য রে‌খে‌ছেন।

মামলা দু‌টির ফাই‌লিং আইনজীবীরা হ‌লেন, মো. শাহ আলম ও মোসা. শাম্মী আক্তার।

মামলা দু‌টির অভি‌যো‌গে বলা হয়েছে, আসামি একজন রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারী, নিন্দাকারী তথা রাষ্ট্রদ্রোহী ব্যক্তি । ঘটনার দিন গত বুধবার (১৭ জুলাই) ধর্মীয় নিপীড়িন শিকার হওয়া বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ২৭ জন নারী পুরুষ মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সহিত সাক্ষাৎ করেছেন। সংখ্যালঘুদের বিপদে পাশে দাঁড়ানোর জন্য তারা ট্রাম্পের কাছে কৃতজ্ঞতা জানান। এ সময়ে আসামি প্রিয়া সাহা নিজেকে বাংলাদেশি পরিচয় দিয়ে ট্রাম্পকে জানান যে, বাংলাদেশে প্রায় ৩ কোটি ৭০ লাখ সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষ নিখোঁজ রয়েছেন। বাংলাদেশে তার (আসামির) বাড়িঘর পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে, জায়গা জমি ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছে, তবু তিনি (আসামি) ন্যায় বিচার পাননি।

প্রিয়া সাহা আরও বলেছেন, বাংলাদেশে ১ কো‌টি ৮০ লাখ সংখ্যালঘু রয়েছে, দয়া কের তাদের সাহায্য করুন। তার এ বক্তব্য‌ে বিশ্ব দরবা‌রে বাংলা‌দে‌শের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হ‌য়ে‌ছে। রা‌ষ্ট্রের বিষ‌য়ে এ ধর‌নের ষড়যন্ত্রকারী প্রিয়া সাহা‌কে একজন রাষ্ট্রদ্রোহী হিসেবে বিচারের আওতায় আনা জরুরি।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র