Barta24

শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯, ৫ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

শালবন বিহারে বেহাল সড়ক, শিক্ষার্থী-পর্যটকদের ভোগান্তি

শালবন বিহারে বেহাল সড়ক, শিক্ষার্থী-পর্যটকদের ভোগান্তি
রাস্তার কাদা পানি সেচ দিচ্ছেন একজন, ছবি: বার্তা২৪.কম
জাহিদ পাটোয়ারী
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
কুমিল্লা


  • Font increase
  • Font Decrease

কুমিল্লা কোটবাড়ী শালবন বিহারের সড়কের বেহাল দশা। এতে এখানকার মানুষদের ভোগান্তি চরম আকার ধারণ করেছে। জনগুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটির প্রায় আড়াই কিলোমিটার এলাকাজুড়ে বেহাল দশা দেখা গেছে। অনেক স্থানে তৈরি হয়েছে ছোট-বড় বহু গর্ত। দীর্ঘদিন ধরে খানাখন্দ আর পানি জমে জলাবদ্ধতার কারণে কাদা-মাটিতে একাকার হয়ে গেছে সড়কটি।

এতে করে এ সড়কে যাতায়াতকারী কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় ও কুমিল্লা ক্যাডেট কলেজের হাজার হাজার শিক্ষার্থী, দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা পর্যটকসহ এ সড়কে নিয়মিত যাতায়াতকারী স্থানীয় বাসিন্দারাসহ হাজার হাজার মানুষকে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, বেহাল দশার সড়কটিতে কুমিল্লা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট মোড় থেকে শালবন বিহার পর্যন্ত নিম্নমানের ইট এবং বালু দিয়ে সংস্কার করা হয়েছে। যার ফলে হালকা বৃষ্টি হলেই সড়কে পানি জমে কাদা-মাটি একাকার হয়ে যায়। প্রতিদিন এ সড়ক দিয়ে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়, কুমিল্লা ক্যাডেট কলেজ, শালবন বিহার, ময়নামতি জাদুঘর, টিচার্স ট্রেনিং কলেজসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-শিক্ষক এবং পর্যটকের যাতায়াত।

খালেদ মোর্শেদ নামে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী বার্তা২৪.কম-কে জানান, দীর্ঘদিন ধরে সড়কটির বেহাল দশা চলছে। শিক্ষার্থীদের বহনকারী বাসগুলো প্রায় মাঝপথে ছোট-বড় গর্তের কারণে আটকা পড়ে। এতে করে আমারে ভোগান্তিতে পড়তে হয়। এ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়সহ স্থানীয় সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীরা দীর্ঘদিন ধরে মানববন্ধন কর্মসূচিসহ বিভিন্নভাবে প্রতিবাদ জানিয়ে আসছে। কর্তৃপক্ষ সড়টি সংস্কারে কোনভাবেই নজর দিচ্ছে না।

এ সড়কে চলাচলকারী আবু মুছা নামে সিএনজি চালিত আটোরিকশা চালক বার্তা২৪.কম-কে বলেন, 'সড়কটিতে চলতে গেলে প্রতিনিয়তই গাড়ি জাম্পিং করে এবং সড়কের উপর উল্টিয়ে পড়ে। চাকা ভেঙে যায়। এতে করে যাত্রীরা দুর্ঘটনায় শিকার হয়।'

প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতর, চট্টগ্রাম, সিলেট ও কুমিল্লা বিভাগের সহকারী পরিচালক ড. আহমেদ আবদুল্লাহ বার্তা২৪.কম-কে বলেন, 'এখানে শিক্ষার্থী, পর্যটক এবং দর্শনার্থীরা রীতিমত ভোগান্তির মধ্য দিয়ে চলতে হচ্ছে। আমরা এ বিষয়ে বারবার বিভিন্ন দফতরে তুলে ধরেছি। তবে এখনো সংস্কার করা হয়নি।'

কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মো. আবুল ফজল মীরকে এই বিষয়ে জানানো হলে তিনি আমাদের আশ্বস্ত করে বলেছেন, 'অচিরেই সড়কটি সংস্কার করা হবে।'

এ বিষয়ে কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. মনিরুল হক সাক্কু বার্তা২৪.কম-কে বলেন, 'কুমিল্লা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট থেকে শালবন পর্যন্ত সড়টি টেন্ডার হয়ে গেছে।' জুন মাসের শেষের দিকে সড়কটির সংস্কার কাজ শুরু করা হবে বলে তিনি জানান।

আপনার মতামত লিখুন :

প্রিয়া সাহার বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ বাংলাদেশের

প্রিয়া সাহার বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ বাংলাদেশের
ছবি: সংগৃহীত

বাংলাদেশের বিরুদ্ধে মিথ্যা তথ্য জানিয়ে ১৮ জলাই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে প্রিয়া সাহা যে অভিযোগ জানিয়েছে তার তীব্র প্রতিবাদ বাংলাদেশ। তার এ অভিযোগ উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। 

শনিবার (২০ জুলাই) সকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ প্রতিবাদ জানানো হয়। 

ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে প্রিয়া সাহা বলেন, আমি বাংলাদেশ থেকে এসেছি এবং সেখানে ৩৭ মিলিয়ন (৩ কোটি ৭০ লাখ) হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান এরইমধ্যে উধাও হয়ে গেছে হয়েছে। এখনও এক কোটি ৮০ লাখ আছে। যার মধ্যে ১৭ লাখ শিশু এবং অন্যান্য ধর্মাবলম্বী মানুষ বসবাস করে। আমাদেরকে সাহায্য করুন। আমি আমার ঘর হারিয়েছি, জমি হারিয়েছি। ইতোমধ্যেই আমার বাড়ি-ঘর দখল করেছে। জ্বালিয়ে দিয়েছে। কিন্তু আমরা সরকার থেকে এর কোনো বিচার পাই নাই। আমরা বাংলাদেশেই থাকতে চাই। আমরা বাংলাদেশ ছাড়তে চাই না। দয়া করে আমাদের সাহায্য করুন।

বিপদসীমার ৪১ সেন্টিমিটার ওপরে যমুনার পানি

বিপদসীমার ৪১ সেন্টিমিটার ওপরে যমুনার পানি
ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

বিপদসীমার ৪১ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার আরিচা পয়েন্টের যমুনা নদীর পানি। যমুনা নদীতে পানি বৃদ্ধির ফলে তার প্রভাব পড়েছে পদ্মা নদীতেও। পানির বৃদ্ধির সঙ্গে পদ্মায় বেড়েছে প্রচণ্ড স্রোত। 

এতে করে উত্তাল পদ্মায় মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল। নৌরুটের পাটুরিয়া ফেরিঘাট এলাকায় পারের অপেক্ষায় রয়েছে চার শতাধিক পণ্যবাহী ট্রাক ও দুই শতাধিক বাস। তিন থেকে চার ঘণ্টার অপেক্ষায় বাসগুলো নৌরুট পারাপারের সুযোগ পেলেও দীর্ঘ ভোগান্তিতে পড়েছে ট্রাক চালকেরা।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/20/1563595500778.jpg
পানি বৃদ্ধির সঙ্গে শুরু হয়েছে নদীতে ভাঙন 

 

এদিকে যমুনা নদীতে পানি বৃদ্ধির সঙ্গে ভাঙন শুরু হয়েছে জেলার দৌলতপুর, শিবালয় ও হরিরামপুর উপজেলার বিভিন্ন এলাকায়। ভাঙনের কবলে পড়েছে এসব এলাকার কমপক্ষে তিন শতাধিক পরিবার। এছাড়াও এরই মধ্যে যমুনার পানি প্রবেশ করতে শুরু করেছে বিভিন্ন শাখা নদ নদীগুলোতে। যার ফলে বন্যার সম্ভাবনা আছে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/20/1563595588011.jpg
  দৌলতপুর, শিবালয় ও হরিরামপুর উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ভাঙন শুরু হয়েছে 

 

শনিবার ( ২০ জুলাই) ভোর ৬ টা পর্যন্ত যমুনা নদীর আরিচা পয়েন্টের পানি বিদপসীমার ৪১ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। মানিকগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের পানির স্তর পরিমাপক ফারুক হোসেন বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম-কে এই তথ্য দেন।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/20/1563595680490.jpg
নদী ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে গ্রামবাসীরা  

 

বিআইডব্লিউটিসি আরিচা কার্যালয়ের বাণিজ্য বিভাগের এজিএম জিল্লুর রহমান বলেন, পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌরুটে ছোট বড় মিলে ১৫ টি ফেরি রয়েছে। তবে নদীতে প্রবল স্রোতের কারণে সবগুলো ফেরি নিয়মিতভাবে চলাচল করতে পারছে না। অপরদিকে নৌরুট পারাপারে সময় লাগছে আগের চেয়ে দ্বিগুণ।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/20/1563595982345.jpg
পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় মালবাহী ট্রাক পারাপার হতে পারছে না 

 

যে কারণে নৌরুটে যাত্রী ও যানবাহন পারাপারে ভোগান্তি শুরু হয়েছ। তবে খুব অল্প সময়ের মধ্যে নৌরুটের বহরে বড় আরও কয়েকটি ফেরি যোগ করার পরিকল্পনা রয়েছে। এতে করে কিছুটা হলেও নৌরুট পারাপারের ভোগান্তি লাঘব হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/20/1563596100240.jpg

 

মানিকগঞ্জের ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক বাবুল মিয়া বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম-কে বলেন, 'জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এরই মধ্যে নদী ভাঙন কবলিত এলাকা পরিদর্শন করা হয়েছে। ভাঙন কবলিত মানুষের মধ্যে ৮ মেট্রিক টন চাউল দেওয়া হয়েছে।' এছাড়াও জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আরও কয়েক টন চাল ও শুকনা খাবার বিতরণের ব্যবস্থা চলমান রয়েছে বলেও জানান তিনি।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র