Barta24

বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯, ১২ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

তীব্র খরতা‌পে স্ব‌স্তি খুঁজতে হা‌তির‌ঝিলে ভিড়

তীব্র খরতা‌পে স্ব‌স্তি খুঁজতে হা‌তির‌ঝিলে ভিড়
হাতিরঝিল প্রকল্প, ছবি: বার্তা২৪.কম
রা‌কিবুল ইসলাম
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
ঢাকা
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

রাজধানীর দর্শনীয় স্থানগু‌লোর অন্যতম হা‌তির‌ঝিল। শুধু দর্শনীয় স্থান হ‌য়ে থে‌মে থা‌কেনি বহুল আ‌লো‌চিত হা‌তিরঝিল। হাতির‌ঝিলের চক্রাকার বাস সা‌র্ভিস আর নৌ-প‌রিবহন এ এলাকার মানু‌ষের চলাচলকে ক‌রে‌ছে সহজ। এসবের সঙ্গে চলমান খরতা‌পে সাধারণ মানু‌ষের জন্য স্ব‌স্তির জায়গা হয়ে দাঁড়িয়েছে হা‌তির‌ঝিল। চার‌দি‌কের সবুজ ঘাস, বাহারি গা‌ছের স‌জিব লতাপাতা তাপদা‌হে পোড়া মানুষ‌কে ছাঁয়া দি‌য়ে চল‌ছে নিঃস্বার্থভা‌বে।

মঙ্গলবার (১১ জুন) প্রচণ্ড রোদে ক্লান্ত হয়ে বিশ্রাম নি‌তে আশা মানু‌ষের সঙ্গে আলাপকা‌লে এ স্থানের স্ব‌স্তির কথা শুনা‌লেন তারা।

স‌রেজ‌মি‌নে দেখা যায়, পু‌রো হা‌তির‌ঝিল এলাকার চারপা‌শে আড্ডা দি‌চ্ছেন তরুণ-তরুণীরা, কোথাও গ‌ল্পে ম‌জে‌ছে নানা পেশার নানান বয়‌সী মানুষ। আবার কোথাও রাস্তার পা‌শে প্রাই‌ভেট গাড়ি থা‌মি‌য়ে জি‌রি‌য়ে নি‌তে দেখা গেলো অ‌নেককে। এভাবেই দিনভর নারী-পুরুষ নি‌র্বি‌শেষে সবার স্বস্তির ঠিকানায় পরিণত হয়েছে হা‌তিরঝি‌ল।

এখা‌নকার আশপা‌শের বাসিন্দারা বল‌ছেন, বেলা গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে ঝিলপাড়জু‌ড়ে বে‌ড়ে যায় মানু‌ষের আনা‌গোনা। বাড়‌তে থা‌কে মানু‌ষের চাপ। মানু‌ষের ভিড় থাকে রাত অবধি।

‌শেখ সু‌ফিয়ান, নেওয়াজ মুর্শেদ ও মাহমুদুল হাসান না‌মের মধ্যবয়সী তিন বন্ধু জ‌মে‌ছেন আড্ডায়। তাদের স‌ঙ্গে কথা হয় বার্তা২৪.কম-এর এই প্রতিবেদকের।

আলাপকা‌লে হা‌তির‌ঝি‌লে আসার কারণ বল‌তে গি‌য়ে ‌নেওয়াজ ম‌ুর্শেদ ব‌লেন, যে পরিমাণ তাপদাহ চল‌ছে; বাসায় ফ্যা‌নের বাতাসও গরম হ‌য়ে উ‌ঠে‌ছে। বাইরে যত রোদ থাকুক ঝিলপা‌ড়ে ছাঁয়া থা‌কে, সঙ্গে বাতাসও। তাই জোহরের নামাজ প‌ড়ে বসে আছি এখানে।
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/12/1560292865654.jpg

এ সময় পা‌শে থে‌কে সু‌ফিয়ান ব‌লেন, এখানকার সবই ঠিক আ‌ছে; শুধু পা‌নি‌র গন্ধটা ঠিক কর‌তে পার‌লে হা‌তিরঝিল হ‌বে রাজধানীর বু‌কে নগরবাসীর অন্যতম স্ব‌স্তির জায়গা।

হাতিরঝিলের ভাসমান চা বি‌ক্রেতা নজরুল ব‌লেন, প্রতিদিন এখা‌নে ক‌য়েক শ্রেণির মানুষ ‌দে‌খি। কেউ সকা‌লের দিকে হাঁট‌তে আ‌সে। কেউ সন্ধ্যায় হাঁট‌তে আ‌সে। আবার এক শ্রে‌ণির মানুষ যারা দুপু‌রে শুধুমাত্র বিশ্রামের জন্য আসে। ত‌বে বে‌শি মানুষ থা‌কে চারটা থে‌কে রাত আটটা পর্যন্ত। আ‌মি আ‌গে অন্য জায়গায় হকারি করতাম। কিন্তু এখা‌নে ২০-২৫ দিন ধরে চা বিক্রি করছি। দে‌খি আরামও আ‌ছে, সারা‌দিন টুকটাক বেচা‌বি‌ক্রিও চ‌লে।

হাওয়া খে‌তে এ‌সে‌ রিক্সাচালক জ‌সিম ব‌লেন, সকা‌লে গা‌ড়ি নি‌য়ে বে‌ড়ি‌য়ে‌ছিলাম। দুপুর পর্যন্ত চালা‌নোর পর প্রচণ্ড গর‌মে আর টিক‌তে পার‌ছিলাম না। প‌রে গা‌ড়ি রে‌খে বের হ‌য়ে আসলাম এখা‌নে। একটু বাতাসে থাক‌লে আরাম পা‌বো।

এইচএস‌সি দ্বিতীয় ব‌র্ষের শিক্ষার্থী আরাফাত আমান ব‌লেন, ক্লাস শেষ ক‌রে বন্ধুরা মি‌লে আস‌ছি ঘুরতে। এখা‌নের প‌রি‌বেশটা আড্ডা দেওয়ার মতোই। ঘন্টাখা‌নেক ঘু‌রে ফি‌রে যা‌বো বাসায়।

আপনার মতামত লিখুন :

রাজধানীতে গড়ে উঠা সীসা বার উচ্ছেদের দাবি

রাজধানীতে গড়ে উঠা সীসা বার উচ্ছেদের দাবি
বিশ্ব মাদকবিরোধী দিবসে প্রেসক্লাবে মানববন্ধনে স্কুলছাত্ররা/ ছবি: বার্তা২৪.কম

মাদকদ্রব্যের অপব্যবহার ও অবৈধ পাচার বিরোধী আন্তর্জাতিক দিবস বা বিশ্ব মাদকবিরোধী দিবসে রাজধানী ঢাকায় গড়ে উঠা অবৈধ সীসা বার উচ্ছেদের দাবি জানিয়েছে মাদকবিরোধী সংগঠন ‘প্রত্যাশা’।

বুধবার ( ২৬ জুন) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ‘মাদক কে না বলুন’ শীর্ষক মানববন্ধন এ দাবি জানায় সংগঠনটি। সারাবিশ্বের মতো বাংলাদেশেও বিশ্ব মাদকবিরোধী দিবসটি পালন করা হয়ে থাকে।

‘প্রত্যাশা’র সাধারণ সম্পাদক হেলাল আহমেদের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মাদকদ্রব্য বিরোধী ফেডারেশনের মহাসচিব আশরাফুল আলম কাজল, সংগঠনটির নির্বাহী সদস্য গোলাম কাদের, আব্দুল রাজ্জাক, মনিরউদ্দিন প্রমুখ। এ সময় বিভিন্ন স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/26/1561565422611.jpg

মানববন্ধনে ফেডারেশনের মহাসচিব আশরাফুল আলম কাজল বলেন, ‘দেশে মাদকের ব্যবহার যে হারে বৃদ্ধি পেয়েছে, তা খুবই উদ্বেগজনক। এখনই এর লাগাম টেনে ধরতে না পারলে ভবিষ্যত প্রজন্মকে সুস্থ ও সুন্দরভাবে গড়ে তোলা অসম্ভব হবে।’

হেলাল আহমেদ বলেন, ‘সম্প্রতি মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর নতুন করে প্রাইভেট ক্লাব, অভিজাত শপিংমলসহ বিভিন্ন স্থাপনায় বারের লাইসেন্স প্রদান করছে। এটি বর্তমান সরকারের মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা ও প্রধানমন্ত্রী মাদক নির্মূলে যে অঙ্গীকার করেছেন, তা বস্তবায়নে জটিলতা তৈরি হবে।’

একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির মূল পাঠ্যবই ছাপানোর অভিযোগে গ্রেফতার ২

একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির মূল পাঠ্যবই ছাপানোর অভিযোগে গ্রেফতার ২
র‍্যাবের অভিযানে বইসহ আটক ২, ছবি: সংগৃহীত

এনসিটিবি’র অনুমোদন বিহীন একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির মূল পাঠ্যবই ছাপানোর অভিযোগে ২ জনকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব। এঘটনায় বিপুল পরিমাণ নিন্মমানের নকল পাঠ্যবই উদ্ধার করেছে সংস্থাটি।

বুধবার (২৬ জুন) বার্তা২৪.কমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন র‍্যাব সদরদফতরের সিনিয়র এএসপি মিজানুর রহমান।

র‍্যাব জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দিবাগত রাতে র‌্যাব-১১ ঢাকার সূত্রাপুরে ১৫নং রূপচাঁদ লেন বাড়ির নিচ তলার ভাড়াটিয়া প্রতিষ্ঠান ‘ভাই ভাই বুক বাইন্ডিং’ এবং ঢাকা জেলার ডেমরা থানাধীন মাতুয়াইল হাজী বাদশা মিয়া রোডস্থ ‘ফাইভ স্টার প্রিটিং প্রেস এন্ড পাবলিকেশন্স’ এ অভিযান চালায়।

অভিযানে একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির বাংলা মূল পাঠ্য বইয়ের নকল প্রিন্টেড কপির ৪ হাজার ৫০০টি বইয়ের সমপরিমাণ ৪৭টি বান্ডিল ও বাংলা সাহিত্য ও সহপাঠ মূল বইয়ের এনসিটিবি এর নকল লোগোসহ ২ বান্ডেল বই উদ্ধার করা হয়।

এসময় মূল পাঠ্যবই ছাপানোর অভিযোগে ২ জনকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, ভাই ভাই বুক বাইন্ডিং এর মালিক মোঃ নবী খাঁন (৩৫), ফাইভ স্টার প্রিটিং প্রেস এন্ড পাবলিকেশন্স এর ম্যানেজার মোঃ আইয়ুব হোসেন (৫৩)।

র‍্যাব জানায়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, এই অসাধু ব্যবসায়ীরা দীর্ঘদিন যাবৎ বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় কলেজ ও মাদরাসার মূল পাঠ্য বইয়ের নকল প্রিন্টেড কপির প্রিন্ট, বাইন্ডিং, সংরক্ষণ ও বিক্রয় করে প্রতারণামূলক ব্যবসা চালিয়ে আসছে। নকল এই পুস্তকগুলোতে অনেক মুদ্রনজনিত ত্রুটি ও তথ্যের বিভ্রাট রয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র