Barta24

বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯, ৬ ভাদ্র ১৪২৬

English

শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে খুলনার ঈদ বাজার

শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে খুলনার ঈদ বাজার
খুলনায় কেনাকাটায় ঢল নেমেছে, ছবি: বার্তা২৪
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

ঈদের আর মাত্র একদিন বাকি। রোজার শেষে এ মূহুর্তে জমে উঠেছে খুলনার ঈদ বাজার। শিশু থেকে শুরু করে সব বয়সীদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠেছে খুলনা বিপণি বিতান ও মার্কেট এলাকা। ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড় হওয়ায় দম ফেলার ফুসরত নেই বিক্রেতাদের।

সোমবার (৩ মে) খুলনা নগরীর নিউ মার্কেট, শপিং কমপ্লেক্স, জলিল মার্কেট, হকার্স মার্কেট, শিববাড়ী মোড়ের শোরুম, সোনাডাঙ্গার শো রুম, ডাকবাংলা মোড়, রেলওয়ে মার্কেট, পিকচার প্যালেস মোড়, বড় বাজার, মশিউর রহমান মার্কেট, কবি কাজী নজরুল ইসলাম মার্কেট, দরবেশ চেম্বার, নান্নু সুপার মার্কেট, হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী মার্কেট, হাজী মালেক চেম্বার, নূর চেম্বার, এশা চেম্বার, আড়ং, অঞ্জনস ঘুরে দেখা যায়, প্রতিটি মার্কেট এলাকা ও বিপণি বিতানগুলোতে ঈদের আমেজ বইছে। সব ধরনের ক্রেতা সমাগমে মুখরিত হয়ে উঠেছে দোকানপাট। শেষ মূহুর্তে বেচাকেনায় যেন ধুম পড়েছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/03/1559570512861.jpg
ঈদ বাজারে মানুষের ঢল, ছবি: বার্তা২৪

 

ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সকাল থেকেই প্রচণ্ড গরম আর রোদ উপেক্ষা করে মার্কেটমুখী ক্রেতাদের চাপ বাড়তে থাকে। ঈদ কেনাকাটা করতে আসা ক্রেতাদের চাপে হিমশিম খাচ্ছেন ব্যবসায়ীরা। দুপুরের পর থেকে প্রায় প্রতিটি মার্কেট ও বিপণি বিতান এলাকায় ক্রেতা বাড়তে থাকায় পা ফেলার স্থান নেই।

নগরীর শপিং কমপ্লেক্সের লেটেস্ট কর্নারের স্বত্বাধিকারী লিমন শেখ বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘ঈদ যত ঘনিয়ে আসছে ততই ক্রেতাদের চাপ বাড়ছে। এ বছর রোজার প্রথম দিকে বিক্রি ভাল না হলেও শেষের এ সময়টায় আশানুরূপ বিক্রি হচ্ছে। আশা করছি ঈদের আগে চাঁদ রাতের কেনাবেচায় লাভ হবে অনেক।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/03/1559570541433.jpg
শেষ মুহূর্তের কেনাকাটায় ব্যস্ত খুলনা নগরবাসী, ছবি: বার্তা২৪

 

ব্যবসায়ী এসারত হোসেন বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘ক্রেতাদের চাপ বেড়েছে অনেক। প্রচণ্ড গরম আবার গতকালের বৃষ্টির জন্য অনেকে কেনাকাটা করতে পারেননি। যে কারণে আজ ক্রেতা সমাগম বেশি। এখন যারা আসছেন তারা খালি হাতে ফিরছেন না, কেনাকাটা করতেই আসছেন।

পিকচার প্যালেসের এ্যাপেক্স গ্যালারির ম্যানেজার সুজন ইসলাম বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘এবারের ঈদ বাজার শুরু থেকেই কলকাতামুখী হওয়ায় বিক্রি হওয়ায় চিন্তায় ছিলাম। কিন্তু শেষ দিকে এসে বেশ বিক্রি বেড়েছে। এখনও তো চাঁদ রাত বাকি। আমাদের ক্ষতি পুষিয়ে যাবে এ বিক্রিতে।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/03/1559570581549.jpg
ঈদে নতুন পাঞ্জাবির সঙ্গে টুপি না হলেই নয়, ছবি: বার্তা২৪

 

ক্রেতারা বলছেন, রোজার শেষে ছুটি পেয়ে কেনাকাটা করতে আসতে হয়েছে। মাসের শুরুতে বেতন বোনাসের পাওয়ার পরই অনেকে ঈদের কেনাকাটা করতে এসেছেন।

গোপালগঞ্জ থেকে খুলনায় পরিবারের সঙ্গে ঈদ করতে আসা প্রভাষক রাজু আহমেদ বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘রোজার শুরুতে কাজের চাপে ঈদের কেনাকাটা করতে পারিনি। ছুটি পেয়ে খুলনায় এসে কেনাকাটা করছি। মার্কেটে অনেক ভিড়, কিন্তু উপায় নেই। এখন কেনাকাটা না করলে আর সময় পাবনা।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/03/1559570625061.jpg
শেষ মুহূর্তে কেনাকাটা করছেন নারীরা, ছবি: বার্তা২৪

 

নগরীর ডাকবাংলার ফুটপাত থেকে কেনাকাটা করতে আসা ভ্যানচালক রওশন গাজী বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘রোজার সারা মাস ভ্যান চালায়ে যা কামাইসি, তাই দিয়া সবার জন্য কিনসি। আমার মা আর বৌ’র জন্য শাড়ি কিনসি। আমার জন্য লুঙ্গি কিনসি আর দুই বাচ্চার জামা কিনসি। আর তো সময় নাই, কাইল দিন বাদেই ঈদ।

ক্রেতারা যাতে নির্বিঘ্নে কেনাকাটা করতে পারে এজন্য খুলনায় কেএমপি’র পক্ষ থেকে বিশেষ সতর্কতা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। প্রতিটি মার্কেটেই পর্যাপ্ত পুলিশ টহল দিচ্ছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/03/1559570663828.jpg
জুতার দোকানে ছেলেদের ভিড়, ছবি: বার্তা২৪

 

মার্কেট এলাকায় টহল দেয়ার সময় কনস্টেবল আনারুল ইসলাম বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘প্রতিটি বিপণি কেন্দ্রের আশপাশে পর্যাপ্ত পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোনো ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। আশা করছি ঈদের দিন সকাল পর্যন্ত ক্রেতারা কোনো সমস্যা ছাড়াই কেনাকাটা করতে পারবে।’

আপনার মতামত লিখুন :

রুয়েট ছাত্রীকে যৌন হয়রানির ঘটনায় মামলা

রুয়েট ছাত্রীকে যৌন হয়রানির ঘটনায় মামলা
ছবি: সংগৃহীত

রাজশাহী নগরীতে অটোরিকশায় বখাটেদের যৌন হয়রানির শিকার রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) সেই ছাত্রী মামলা করেছেন। নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানায় দায়েরকৃত মামলায় অজ্ঞাতনামা পাঁচজনকে আসামি করেছেন তিনি।

বুধবার (২১ আগস্ট) দুপুরে রাজশাহী নগরীর বোয়ালিয়া মডের থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিবারণ চন্দ্র বর্মণ এ তথ্য জানান। ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী রুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী।

ছাত্রীর অভিযোগ, সোমবার (১৯ আগস্ট) বিকেলে রুয়েটের সামনে থেকে অটোরিকশায় ওঠার পর তালাইমারী থেকে অটোচালক তার পরিচিত চার যুবককে ওই অটোতে তুলেন। পরে তালাইমারী থেকে নগরভবন পর্যন্ত ওই যুবকরা তাকে হয়রানি করেন। একপর্যায়ে তিনি চিৎকার করলে নগরভবনের সামনে তাকে চলন্ত অটো রিকশা থেকে ফেলে দেওয়া হয়।

আরও পড়ুন: রুয়েট ছাত্রীকে উত্যক্ত করে অটো থেকে ফেলে দিল ৪ যুবক!

ওসি নিবারণ চন্দ্র বর্মণ বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ‘মঙ্গলবার (১৮ আগস্ট) রাত সাড়ে ১০টার দিকে ভুক্তভোগী ছাত্রী থানায় এজহার দাখিল করেন। পরে সেটি মামলা আকারে গ্রহণ করা হয়। মামলায় অজ্ঞাতনামা পাঁচজনকে আসামি করা হয়েছে। এদের মধ্যে একজন অটোরিকশা চালক এবং অন্যরা তার পরিচিত কেউ।’

তিনি আরও বলেন, ‘যে সড়কে ঘটনাটি ঘটেছে, ইতোমধ্যে সেই সড়কের পাশে থাকা ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে। আমরা আসামিদের শনাক্ত করার চেষ্টা করছি। জড়িতদের চিহ্নিত করে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

আরও পড়ুন: রুয়েট শিক্ষককে লাঞ্ছিত ও স্ত্রীকে যৌন হয়রানি, গ্রেফতার ৩

রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের (আরএমপি) গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) উপ-কমিশনার আবু আহাম্মদ আল মামুন বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, ‘রুয়েটের ওই ছাত্রী যৌন হয়রানির শিকার হয়েছেন বলে তার ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়ার পর বিষয়টি আমাদের নজরে আসে। এরপর ওই শিক্ষার্থীকে অভিভাবকসহ থানায় ডাকা হয়। মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) তাকে মহানগর ডিবি পুলিশের কার্যালয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এরপরই থানায় একটি মামলা দায়ের করার সিদ্ধান্ত নেন ভুক্তভোগী।’

গত ১০ আগস্ট রাজশাহী নগরীতে স্ত্রীকে যৌন হয়রানির প্রতিবাদ করে বখাটেদের হামলার শিকার হন রুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. রাশিদুল ইসলাম। ওই ঘটনায় রাজশাহীজুড়ে তুমুল আলোচনা-সমালোচনা সৃষ্টি হয়। সেই ঘটনার রেশ না কাটতেই অটোতে তুলে একই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ ওঠায় প্রশাসনের গাফিলতির অভিযোগ ওঠে। তবে রুয়েট শিক্ষক দম্পতিকে লাঞ্ছিতের ঘটনায় তিন যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সহপাঠীকে ধর্ষণের অভিযোগে শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার

সহপাঠীকে ধর্ষণের অভিযোগে শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার
অভিযুক্ত শিক্ষার্থী শিঞ্জন রায়, ছবি: সংগৃহীত

খুলনায় সহপাঠীকে ধর্ষণের অভিযোগে নর্থ ওয়েস্টার্ন বিশ্ববিদ্যালয়‌ের শিক্ষার্থী শিঞ্জন রায়কে (২৫) সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে।

বুধবার (২১ আগস্ট) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে জানানো হয়, সহপাঠীকে ধর্ষণ ও গর্ভবতী করার অভিযোগে নর্থ ওয়েস্টার্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী শিঞ্জন রায়কে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। একইসঙ্গে ঘটনার তদন্তে ৩ সদস্যর কমিটি গঠিত হয়েছে।

নর্থ ওয়েস্টার্ন বিশ্ববিদ্যালয় খুলনা শাখার উপাচার্য প্রফেসর ড. তারাপদ ভৌমিক বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী শিঞ্জণের ঘটনাটি শোনার পর মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের জরুরি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকের পর নর্থ ওয়েস্টার্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের চেয়ারম্যানের সঙ্গে আলোচনা করে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় শিঞ্জনকে সাময়িক বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি ঘটনাটি তদন্তের জন্য ৩ সদস্যর কমিটি গঠন করা হয়েছে। বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. নওশের আলী মোড়লকে তদন্ত কমিটির প্রধান করা হয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র