Barta24

সোমবার, ২২ জুলাই ২০১৯, ৬ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

প্রকাশ্যে ধূমপান রোধে আইন কার্যকর হবে: তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশ্যে ধূমপান রোধে আইন কার্যকর হবে: তথ্যমন্ত্রী
বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবসের আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন তথ্যমন্ত্রী, ছবি: বার্তা২৪
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
ঢাকা


  • Font increase
  • Font Decrease

উন্মুক্ত স্থানে প্রকাশ্যে ধূমপান নিষিদ্ধ করতে শিগগিরই আইন কার্যকর করা হবে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবস উপলক্ষে শুক্রবার (৩১ মে) জাতীয় প্রেসক্লাবে বেসরকারি সংগঠন ‘মানস’ আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

তামাকের ক্ষতিকর দিকগুলো উল্লেখ করে হাছান মাহমুদ বলেন, আমি আমার জীবনে তামাক জাতীয় পণ্য ছুঁয়েও দেখিনি। আমার মা ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে মারা যান, তখন আমার বয়স মাত্র সাত বছর। এরপর বাবা আমাকে ওয়াদা করান, যেন তামাক জাতীয় পণ্য কোনো দিন না ছুঁই। তাই আমি আর কোনোদিন সিগারেট বা তামাক জাতীয় কিছু খাইনি।

মন্ত্রী বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার দেশকে মাদকের অভয়ারণ্যে পরিণত করেছিল। সেখান থেকে আমরা দেশের উত্তরণ ঘটিয়ে এই জায়গায় নিয়ে এসেছি।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে দেশ এখন উন্নতির দিকে ধাবিত হচ্ছে। আজকের তরুণরাই পরবর্তীতে দেশের হাল ধরবে এবং দেশকে উন্নত হওয়ার পেছনে বড় অবদান রাখবে।

আলোচনা সভায় মাদক ও ধূমপানের বিরুদ্ধে সরকারের নানা উদ্যোগের কথা বলে সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ। বলেন, সরকার মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি অনুসরণ করছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/31/1559303541118.jpg

আলোচনা সভায় অভিনেতা ও সংসদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠান ফারুক বলেন, আমি এক সময় অনেক ধূমপান করতাম। প্রত্যেক দিন অনেকগুলো সিগারেট লাগত আমার। কিন্তু এক সময় আমি এর ভয়াবহতা টের পাই। আমার তখন শারীরিকভাবে নানা সমস্যা দেখা দেয়। তখন আমি সিগারেট ছেড়ে দেই। প্রায় ৩২ বছর হয়ে গেল, তামাক ছেড়েছি। এখন আমি সুস্থ একজন মানুষ।

তরুণদের উদ্দেশে বরেণ্য এই অভিনেতা বলেন, ধূমপান করা যাবে না। এমনকি ধূমপানের কাছেও যাওয়া যাবে না। যারা এর মধ্যে আছেন তাদেরকে এই বিষ ছাড়তে হবে।

অনুষ্ঠানে ‘মানস’ –এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ড. অরূপরতন চৌধুরী বলেন, প্রতি বছর আমাদের দেশে প্রায় ১ লাখ ৮২ হাজার কোটি টাকার তামাক বিক্রি হয়। আমাদের পুরো বছরের বাজেটের অর্ধেক পরিমাণ টাকা নষ্ট হয় তামাকজাত পণ্যে। শুধু ধোঁয়ার মধ্যেই আমাদের বিপুল পরিমাণ এই টাকা নষ্ট হয়। এগুলোর জন্য আমরা নানাভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি। তরুণরা সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। কারণ তামাকজাত পণ্য ও নেশাজাতীয় দ্রব্যের মূল ক্রেতাই হলো তরুণরা। এসব তরুণ যদি এখন এভাবে তাদের জীবনের মূল্যবান সময়গুলোকে ধোঁয়ায় উড়িয়ে দেয়, তাহলে আমাদের পরবর্তী প্রজন্মের জন্য এটি হুমকিস্বরূপ।

আপনার মতামত লিখুন :

ফ্রান্সের নতুন রাষ্ট্রদূত জিন মারিন

ফ্রান্সের নতুন রাষ্ট্রদূত জিন মারিন
ফ্রান্সের পতাকা

বাংলাদেশে ফ্রান্সের নতুন রাষ্ট্রদূত নিযুক্ত হয়েছেন জিন মারিন। সাবেক ফরাসি রাষ্ট্রদূত ম্যারি আনিক বুখডার স্থলাভিষিক্ত হলেন তিনি।

জিন মারিন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের কাছে নিজের পরিচয় জমা দেওয়ার পর দায়িত্ব গ্রহণ করবেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, জিন মারিন সোমবার (২২ জুলাই) ঢাকায় পৌঁছাবেন।

বাংলাদেশে নিযুক্ত সাবেক ফরাসি রাষ্ট্রদূত ম্যারি আনিক বুখডা শুক্রবার ঢাকা ছেড়েছেন।
জিন মারিন এর আগে একই সঙ্গে শ্রীলংকা ও মালদ্বীপে ফরাসি রাষ্ট্রদূত হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তারও আগে দিল্লিতে ফরাসি দূতাবাসে প্রথম সচিব ছিলেন তিনি।

শাহজালালে পায়ুপথে ১ হাজার ইয়াবাসহ গ্রেফতার ২

শাহজালালে পায়ুপথে ১ হাজার ইয়াবাসহ গ্রেফতার ২
আটককৃত দুইজন, ছবি: সংগৃহীত

 

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এক হাজার পিস ইয়াবাসহ এক নারীসসহ দুইজনকে গ্রেফতার করেছে বিমানবন্দর আর্মড পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলেন মো. সাইফুল (২৮) ও মোছা. মুন্নি (২৭)।

রোববার (২১ জুলাই) রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেন হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর আর্মড পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপারেশন্স অ্যান্ড মিডিয়া) আলমগীর হোসেন।

আলমগীর হোসেন বলেন, 'সাড়ে ৫ টার দিকে বিমানবন্দরের অভ্যন্তরীণ টার্মিনালের বহিরাঙ্গন থেকে আটক করা হয় সাইফুলকে। সে সেখানে সন্দেহজনকভাবে ঘোরাফেরা করছিল। পরবর্তীতে সেখানে আসে মোছা. মুন্নি। তাদের সঙ্গে কথা বললে পুলিশ সদস্যদের বিভ্রান্তিকর ও সন্দেহজনক তথ্য দেয়।'

তিনি বলেন, 'পরবর্তীতে দুজনকে বিমানবন্দর আর্মড পুলিশের হেফাজতে নিয়ে তল্লাশি ও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদে সাইফুল তার কাছে ইয়াবা থাকার কথা স্বীকার করে। পরবর্তীতে দেহ তল্লাশি করে সাইফুলের পায়ুপথ থেকে এক হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। এছাড়া মুন্নির কাছ থেকে ৯৬ হাজার ৯০০ টাকা পাওয়া যায়।'

জিজ্ঞাসাবাদে মুন্নি মাদক কেনার জন্য এই টাকা এনেছিল বলে স্বীকার করে। আটককৃত ইয়াবার বাজার মূল্য প্রায় পাঁচ লাখ টাকা বলে জানা গেছে।

তাদের বিরুদ্ধে বিমানবন্দর থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে বলেও তিনি জানান।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র