Alexa

ট্রাফিক আইন ভঙ্গ করলে সাত দিনের প্রশিক্ষণ

ট্রাফিক আইন ভঙ্গ করলে সাত দিনের প্রশিক্ষণ

আইন অমান্যকারীদের মামলা দিচ্ছে পুলিশ, ছবি: বার্তা২৪

রাজধানীর যানজট নিয়ে মহা চিন্তিত সংশ্লিষ্টরা। নানামুখী পদক্ষেপ নিয়েও কোনোভাবেই যানজট নিয়ন্ত্রণে আনতে পারছেন না আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী। যানজট নিরসনে এবার ১৯ দফা সুপারিশ দিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ।

এই দফাগুলোর মধ্যে মধ্যমেয়াদী পরিকল্পনার অংশ হিসেবে বাংলাদেশ পুলিশ ঢাকা মহানগরে একটি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র তৈরি করে উক্ত প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে ট্রাফিক আইন ভঙ্গকারী ড্রাইভারদের সকাল ৭টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত সাত দিনব্যাপী রাস্তায় গাড়ি চালানোর আইন কানুন, শারীরিক ও মানসিক বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করতে বলা হয়েছে। অন্যান্য বিভাগীয় শহরেও একইভাবে প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপনের কথা বলা হয়েছে।

রাস্তায় ভিভিআইপি, ভিআইপিদের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে সব সময় ট্রাফিক পুলিশ হিমশিম খায়। তাই সেটাকে নিয়ন্ত্রণে আনতে ভিভিআইপি এবং ভিআইপি’র নাম বা গাড়ি ব্যবহারকারীর গাড়ি কোনভাবেই যেন উল্টো রাস্তা দিয়ে চলতে না পারে সে বিষয়ে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করার সুপারিশ করা হয়েছে।

ট্রাফিক আইন ভঙ্গের জরিমানার পরিমাণ বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। যেসকল ব্যক্তিবর্গের গাড়িতে পতাকা এবং স্টিকার ব্যবহারের অনুমতি (ফ্লাগরুল, স্টিকার রুল এবং ভিআইপি রুল অনুযায়ী) রয়েছে তাদের গাড়ি ব্যতীত অন্য সকল গাড়ি থেকে ফ্লাগস্ট্যান্ড, স্টিকার এবং ভিআইপি হর্ন সরিয়ে ফেলার সুপারিশ করা হয়েছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/22/1558536944848.jpg
যানজটের কারণে ঘণ্টার পর ঘণ্টা নষ্ট হচ্ছে নগরবাসীর, ছবি: বার্তা২৪

এছাড়া ভিআইপিদের ব্যবহারের জন্য দুটি গাড়ি ব্যতীত অন্য সকল গাড়ি থেকে পতাকা স্ট্যান্ড নামিয়ে ফেলার ব্যবস্থা করতে বলা হয়েছে। মহানগরের বাইরে শুধুমাত্র জেলা প্রশাসনের একটি গাড়ি ব্যতীত অন্য সকল গাড়ি থেকে পতাকা স্ট্যান্ড নামিয়ে ফেরার প্রস্তাব করা হয়েছে।

ঢাকা শহরে গাড়ি পার্কিং ব্যবস্থায় শৃঙ্খলা আনয়নে ভূ-উপরিভাগের বর্তমান সুবিধা অক্ষুণ্ণ রেখে এবং প্রাকৃতিক পরিবেশের কোন ক্ষতি না করে বেসরকারিখাতের মাধ্যমে ভূ-গর্ভস্থ পার্কিং ব্যবস্থা সৃষ্টির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

উদাহরণ হিসেবে ঢাকা মোহামেডান ও সংলগ্ন ক্লাবগুলোর ভূ-উপরিভাগ খেলার জন্য উন্মুক্ত রেখে আন্ডার গ্রাউন্ড বহুতল পার্কিং ব্যবস্থা নির্মাণ। একইভাবে জীবন বীমার সামনের রাস্তা ও পার্কের নিচে, গুলিস্তান পার্ক, ওসমানী উদ্যান, শাহবাগ মোড় থেকে টিএসসি মুখী রাস্তার নিম্নভাগে, সাইন্সল্যাবের মাঠ, ঢাকা কলেজের মাঠ, নিউমার্কেটের পেছনে কাঁচা বাজারে নিচে, কলাবাগান স্টাফ কোয়ার্টারের নিচে, কলাবাগান ক্লাব সংলগ্ন শিশু পার্কের নিচে, আবাহনী খেলার মাঠ ও লালমাটিয়ার খেলার মাঠ সুপারিশ করা হয়েছে।

স্বল্পমেয়াদী সুপারিশ হিসেবে ঢাকা শহরের ক্রসিংমোড় এবং ইউটার্নগুলো যানজটের অন্যতম প্রধান কারণ। শ্যামলী, নতুন বাজার, রামপুরা-হাতিরঝিল এর ন্যায় বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় সিটি করপোরেশনের সঙ্গে সমন্বয় করে ডিএমপি কর্তৃক ইউ লুপ নির্মাণ এবং অপরাপর সংস্থা কর্তৃক রামপুরা-হাতিরঝিলের ন্যায় ভূমি উপরিভাগে ইউ লুপ নির্মাণের সুপারিশ করা হয়েছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/22/1558537137774.jpg
গরম ও তীব্র যানজটে অতিষ্ঠ নগরবাসী, ছবি: বার্তা২৪



এছাড়া রয়েছে মিরপুর রোড, বিমানবন্দর রোড, সাতরাস্তা রোড, প্রগতি সরণি, সাতমসজিদ রোড এছাড়া গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলোতে সকাল ৭ টা হতে ১০ টা পর্যন্ত এবং বিকেল ৫ টা হতে রাত ১০ টা পর্যন্ত বাস বে-পদ্ধতি চালু করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

মধ্যমেয়াদী প্রকল্পের আওতায় গুলশান, বনানী, মহাখালী এলাকার আবাসিক ভবন থেকে বিভিন্ন অফিস, রেস্তোরাঁ, স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় অন্যত্র সরিয়ে নেয়ার সুপারিশ করা হয়েছে। পুরাতন লক্কড় ঝক্কর বাস তুলে দিয়ে নতুন পাবলিক বাস চালু করার সুপারিশ করা হয়।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে বুধবার (২২ মে) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের উপ সচিব ও কাউন্সিল অফিসার আবু হাসনাত মো. মঈনউদ্দিন স্বাক্ষরিত কার্যপত্রে এসব সুপারিশ করা হয়। ওই কার্যপত্রের অনুলিপি বার্তা২৪.কম এর কাছেও রয়েছে।

এ বিষয়ে সংসদীয় কমিটির সভাপতি মো. শামসুল হক টুকু বার্তা২৪.কম-কে বলেন, ‘যানজটের বিষয়ে সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগ অবগত। আমরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো যাদের পার্কিং এর অনুমোদন নিয়েও পার্কিং ব্যবস্থা রাখেনি তাদের সাথে সংশ্লিষ্ট বিভাগের যোগাযোগ করতে বলেছি। এছাড়া স্বল্প মেয়াদী, মধ্য মেয়াদী, দীর্ঘ মেয়াদী প্রস্তাব করা হয়েছে।'

আপনার মতামত লিখুন :