Alexa

রাজমিস্ত্রি সেজে আসামি ধরলেন এসআই

রাজমিস্ত্রি সেজে আসামি ধরলেন এসআই

রাজমিস্ত্রি সাজে এসআই, ছবি: সংগৃহীত

পরনে লুঙ্গি-গেঞ্জি, পায়ে ছেঁড়া স্যান্ডেল। কাঁধে রাজমিস্ত্রির কাজে ব্যবহৃত বেলচা। দেখে একজন সাধারন রাজমিস্ত্রি মনে হলেও তিনি আসলে রাজধানীর কদমতলী থানার এসআই মো. লালবুর রহমান। হত্যা মামলার এক আসামি ধরতে এই ছদ্মবেশ।

কদমতলী থানা সূত্রে জানা গেছে, গত ১৪ মার্চ রাজধানীর কদমতলীর ধনিয়ায় একটি বাড়িতে পারিবারিক কলহের জের ধরে শারমিন আক্তারকে গলা টিপে হত্যা করে পালিয়ে যায় তার স্বামী মাসুদ হাওলাদার। এ সংক্রান্তে শারমিনের ভাই বাদী হয়ে কদমতলী থানায় গত ১৫ মার্চ একটি হত্যা মামলা করেন।

হত্যা মামলা রুজু হওয়ার পর মামলাটির তদন্তভার দেওয়া হয় কদমতলী থানার এসআই মো. লালবুর রহমানকে।

আরও জানা গেছে, আক্তারের স্বামী মাসুদ শনিরআখড়া দোকানের পজিশনের টাকা ফেরত নিতে দোকানের মালিকের পক্ষের লোকের সঙ্গে যোগাযোগ করে। দোকানের অগ্রিম টাকা ফেরত নিতে ডেমরার মিন্টু চত্বর এলাকায় আসে মাসুদ।

এর আগেই, এসআই লালবু তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় দোকান মালিক পক্ষের লোকের সঙ্গে যোগাযোগ করে হত্যাকাণ্ডের বিষয় তাদের জানিয়ে পুলিশকে সহায়তা করতে বলেন।

রোববার (১৯ মে) ২টার দিকে মাসুদ তার দোকানের টাকা নিতে মিন্টু চত্বরে আসেন। আর এই খবর মালিক পক্ষ এসআই লালবুরকে জানায়।

সংবাদ পাওয়া মাত্রই মামলার আইও এসআই লালবুর ও এএসআই মো. জসিম ঘটনাস্থলে যায়। কিন্তু ঘটনাস্থলে অনেক মানুষ থাকায় মাসুদকে সরাসরি গ্রেফতার করতে পারছিলেন না লালবু। আর ভালো পোশাক ও চালচলনের কাউকে দেখলে পালিয়ে যেতে পারেন মাসুদ। এই বিষয়টি এসআই মাসুদের মাথায় কাজ করছিল। তাই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী রাজমিস্ত্রির পোশাকে মিন্টু চত্বর এলাকায় অবস্থান করতে থাকেন এসআই লালবুর ও এএসআই জসিম।

অপেক্ষার এক পর্যায়ে মাসুদকে সুবিধা মতো জায়গায় পেয়ে কালক্ষেপণ না করে মাসুদকে পেছন থেকে ঝাপটে ধরেন এসআই লালবুর। হঠাৎ জনসম্মুখে এমন ঝাপটে ধরার কারণ স্থানীয় লোকজন জানতে চাইলে নিজের পরিচয় দেন এসআই লালবুর।

সে সময় উৎসুক জনতাকে তিনি বলেন, যাকে ধরা হয়েছে সে হত্যা মামলার আসামি। তৎক্ষণাৎ পুলিশের এমন কাজের জন্য স্থানীয়দের প্রশংসায় প্রশংসিত হন কদমতলী থানা পুলিশের এই অফিসার।

এই পুলিশ অফিসারের সাহসী এই কাজের বিষয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া ও পাবলিক রিলেশন্স বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) মাসুদুর রহমান এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে গণমাধ্যমকে জানান।

আপনার মতামত লিখুন :