Barta24

শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬

English

চট্টগ্রাম বিজ্ঞান কলেজে বিনামূল্যে পড়ার সুযোগ

চট্টগ্রাম বিজ্ঞান কলেজে বিনামূল্যে পড়ার সুযোগ
চট্টগ্রাম বিজ্ঞান কলেজ, ছবি: সংগৃহীত
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

চট্টগ্রাম বিজ্ঞান কলেজে বিনামূল্যে একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণিতে পড়ালেখা করতে পারবেন শিক্ষার্থীরা। মেধাবী শিক্ষার্থীদের জন্য কলেজ কর্তৃপক্ষ এ সুযোগ করে দিয়েছে।  

২০১৯ সালে প্রকাশিত এসএসসি পরীক্ষায় বিজ্ঞান বিভাগে যেসব শিক্ষার্থী ১ হাজার ১০০ নম্বর পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছেন তাদের প্রত্যেকে এই সুযোগ পাবেন।

বিনামূল্যে অধ্যয়নের পাশাপাশি এই শিক্ষার্থীরা কলেজের অন্যান্য সুযোগ-সুবিধাও ভোগ করতে পারবেন। গ্রাম অথবা শহরের যেসব শিক্ষার্থী গরিব অথচ মেধাবী তাদের পাশে দাঁড়াতে শিক্ষা বৃত্তিসহ নানা উদ্যোগ নিয়ে আসছে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

জানা গেছে, প্রতিবছর একটি নির্দিষ্ট নম্বর পেয়ে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের সম্পূর্ণ বিনা মূল্যে অধ্যয়নের সুযোগ তৈরি করে দেওয়া হয়। গত বছর ১ হাজার ৫০ নম্বর পেয়ে উত্তীর্ণ হয়ে বিজ্ঞান কলেজে ভর্তি হওয়া অন্তত ২০ জন শিক্ষার্থী বিনামূল্যে পড়াশোনা করছেন।

বিনামূল্যে অধ্যয়নের সুযোগ পাওয়া শিক্ষার্থীদের একজন ইমন তালুকদার। বাংলাদেশ নৌ বাহিনী স্কুল থেকে গত বছর জিপিএ-৪ দশমিক ৭৮ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়ে বিজ্ঞান কলেজে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি।

বিজ্ঞান কলেজের শিক্ষার্থী জিয়াউল হক ইমন বলেন, ‘আমি এসএসসিতে ১ হাজার ১২২ নম্বর পেয়ে এখানে বিনা মূল্যে পড়াশোনা করছি। এখানে শ্রেণি কার্যক্রমে প্রতিদিন অংশ নেওয়ায় ক্ষেত্রে যেমন বাধ্যবাধকতা রয়েছে তেমনি পঠনপাঠনেও আধুনিক পদ্ধতি অনুসরণ করা হয়। কলেজের শিক্ষকেরা অত্যন্ত বন্ধু বৎসল এবং শিক্ষার্থী বান্ধব।’

তিনি বলেন, ‘ভবিষ্যতে আমি চিকিৎসক হতে চাই। আমার এই উচ্চাশা তৈরি হয়েছে এ কলেজে ভর্তি হওয়ার পর।’

চট্টগ্রাম বিজ্ঞান কলেজের অধ্যক্ষ ড. মোহাম্মদ জাহেদ খান বলেন, ‘১৯৯৮ সাল থেকে শিক্ষা নিয়ে কাজ করি। অর্থের জন্য কোনো শিক্ষার্থী পড়াশোনা করতে পারবে না সেটি আমি মানতে পারি না। আমি বিশ্বাস করি মেধাবী শিক্ষার্থীদের সামনে এগিয়ে দিতে প্রতিটি শিক্ষকের কাজ করা দরকার। আমি দায়বোধ থেকে শিক্ষার্থীদের জন্য কিছু করার চেষ্টা করি। তাই প্রতি বছর ব্যক্তিগত সামর্থ্যের মধ্যে সর্বোচ্চ সহায়তা দেওয়ার চেষ্টা করি।’ 

ড. মোহাম্মদ জাহেদ খান বলেন, ‘আমাদের কলেজে পড়াশোনার আধুনিক পদ্ধতি রয়েছে। কলেজ থেকেই বিজ্ঞানের প্রতিটি বিষয়ে হ্যান্ড নোট দেওয়া হয়। এসব হ্যান্ডনোট অত্যন্ত সহজ এবং সাবলীল ভাষায় তৈরি করা হয় বলে শিক্ষার্থীরা খুব সহজে আয়ত্ত করতে পারে। এর ফলে ভালো ফলাফলও করতে পারে তারা।’

আপনার মতামত লিখুন :

রাজশাহীতে স্কুলছাত্রীকে অপহরণের চেষ্টা, গ্রেফতার ৩

রাজশাহীতে স্কুলছাত্রীকে অপহরণের চেষ্টা, গ্রেফতার ৩
অপহরণের অভিযোগে গ্রেফতারকৃত তিনজন, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

রাজশাহীতে স্কুল থেকে ফেরার পথে সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া এক ছাত্রীকে অপহরণের চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার (২২ আগস্ট) দুপুর ২টার দিকে হামিদপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে ক্লাস শেষে স্কুল ছুটির পর নিজ বাড়িতে ফেরার পথে আমচত্বর থেকে ওই ছাত্রীকে তুলে নেওয়া হয়। পরে সন্ধ্যার দিকে নগরীর নওদাপাড়ায় ফেলে রেখে যায় তারা।

ভুক্তভোগী ছাত্রীর পরিবারের অভিযোগের প্রেক্ষিতে অভিযান চালিয়ে বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে তিন যুবককে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতরা হলেন- নগরীর আমচত্বর এলাকার ওয়েল্ডিং মিস্ত্রী আতিকুর রহমান, সহযোগী শিমুল ও অটোরিকশা চালক ফয়সাল।

নগরীর শাহ মখদুম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এসএম মাসুদ পারভেজ বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম-কে জানান, ছুটি শেষে বাড়ি ফেরার পথে প্রায়শ আমচত্বর এলাকার দোকানে কাজ করা ওয়েল্ডিং মিস্ত্রী আতিকুর ভুক্তভোগীকে বিরক্ত করতো। মাঝেমধ্যে প্রেমের প্রস্তাব দিতো।

বৃহস্পতিবারও সে প্রতিদিনের মতো দুপুর ২টার পর স্কুল শেষে বাড়ি ফেরার পথে আমচত্বর পৌঁছালে আতিকুর তার সহযোগি শিমুল ও অটোরিক্সা চালক ফয়সালের সহযোগীতায় জোরপূর্বক ভুক্তভোগীকে রাস্তা থেকে অটোতে তুলে নিয়ে চলে যায়।

ওসি আরও জানান, ওই ছাত্রী বাড়িতে না ফেরায় পরিবারের লোকজন বিষয়টি শাহমখদুম থানায় জানায়। মৌখিকভাবে জানানোর পর থেকেই পুলিশ তাকে উদ্ধারে তৎপরতা শুরু করে। তবে সন্ধ্যার দিকে অপহরণকারী বখাটেরা ওই ছাত্রীকে আমচত্বর ফেলে রেখে চলে যায়। ছাত্রীর কাছ থেকে পরিচয় জেনে পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাদের তিনজনকে আটক করে।

ওসি এসএম মাসুদ পারভেজ বলেন, ‘রাতে ওই ছাত্রীর মা সাহেব জানবিবি বাদী হয়ে তিন যুবকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে। মামলা গ্রেফতার দেখিয়ে আটককৃতদের আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হবে।’

যোগ্যতা নিয়েই রাজনৈতিক দলে অংশ নিতে চান খুলনার নারী নেত্রীরা

যোগ্যতা নিয়েই রাজনৈতিক দলে অংশ নিতে চান খুলনার নারী নেত্রীরা
খুলনায় নারী নেত্রীদের মতবিনিময় সভা, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

যোগ্যতা নিয়েই রাজনৈতিক দলের কার্যক্রমে অংশ নিতে চান খুলনার নারী নেত্রীরা। খুলনার নারী নেত্রীরা বলেছেন, স্বামী, সন্তান, সংসার, চাকরি সামলে নারীদের কাজ করতে হয়। তারপরও তারা এগিয়ে চলছে। তাই কোটা নয়, যোগ্যতার ভিত্তিতেই নারীরা এগিয়ে যাবে। রাজনৈতিক দলের কমিটিতে যোগ্যতার ভিত্তিতে ৩৩ শতাংশ নারীর অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে।

বৃহস্পতিবার (২২ আগস্ট) দুপুরে নগরীর উমেশচন্দ্র পাবলিক লাইব্রেরি মিলনায়তনে নারীর রাজনৈতিক ক্ষমতায়ন বিষয়ক মতবিনিময় সভায় এক মঞ্চে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির তৃনমূলের নারী নেত্রীরা এসব কথা বলেন। ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনাল এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন।

খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বিএমএ সালামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের বক্তব্য দেন, জেলা বিএনপির সভাপতি অ্যাড. এস এম শফিকুল আলম মনা, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাড. ফরিদ আহমেদ, নিমাই মন্ডল, জুবায়ের আহমেদ জবা, বিএনপি নেতা বিএম কামরুজ্জামান টুক, মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী অধ্যক্ষ দেলোয়ারা বেগম, হোসনে আরা চম্পা, মহিলা দলের জেলা সভাপতি অ্যাডভোকেট তসলিমা খাতুন ছন্দা, নারী নেত্রী শোভা রাণী হালদার প্রমুখ।

এতে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নারী সংগঠনের অর্ধ শতাধিক প্রতিনিধি অংশ নেন।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র