Barta24

সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯, ৪ ভাদ্র ১৪২৬

English

রাজধানীতে 'বন্দুকযুদ্ধে' ২ ছিনতাইকারী নিহত

রাজধানীতে 'বন্দুকযুদ্ধে' ২ ছিনতাইকারী নিহত
পুরনো ছবি
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
ঢাকা


  • Font increase
  • Font Decrease

রাজধানীর হাজারীবাগ থানার মধুসিটির সামনে র‍্যাবের সঙ্গে ছিনতাইকারীদের 'বন্দুকযুদ্ধের' ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ২ ছিনতাইকারী নিহত হয়েছেন। এছাড়া র‍্যাবের দুই সদস্য আহত হয়েছেন।

সোমবার (২০ মে) ভোরে র‍্যাবের চেকপোস্টে এ ঘটনা ঘটেছে বলে বার্তা২৪.কম-কে বিষয়টি নিশ্চিত করেন র‍্যাব-২ এর এসপি মহিউদ্দিন ফারুকী।

মহিউদ্দিন ফারুকী বলেন, 'ভোর রাতে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল থেকে ছিনতাই করা ইস্পাহানী চা ভর্তি কাভার্ড ভ্যান হাজারীবাগ থানার মধুসিটির সামনে দিয়ে যাচ্ছিল। এ সময় সেখানে থাকা র‍্যাবের চেকপোস্ট গাড়িটিকে থামানোর সিগন্যাল দেয়। ছিনতাইকারীরা গাড়িটি না থামিয়ে র‍্যাবকে উদ্দেশ্য করে গুলি চালায়।'

আত্মরক্ষার্থে র‍্যাব ও পাল্টা গুলি চালালে গাড়ি ছিনতাইকারী মনির (৪৬) সহ ২ জন নিহত হয়। এ ঘটনায় র‍্যাবের দুই সদস্য আহত হয় বলেও জানান তিনি।

তিনি আরও জানান, ঘটনাস্থল হতে ৯ টন চা পাতাসহ হাইজ্যাক করা কাভার্ড ভ্যান, বিদেশি পিস্তল ও গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :

থাই পেয়ারার সঙ্গে মিশ্র ফল চাষে লাভবান আব্দুল লতিফ

থাই পেয়ারার সঙ্গে মিশ্র ফল চাষে লাভবান আব্দুল লতিফ
নিজের তৈরি পেয়ারার বাগানে আব্দুল লতিফ/ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার কাঁঠালবাড়ি ইউনিয়নের শিবরাম গ্রাম। সেই গ্রামের হতদরিদ্র আব্দুল লতিফ চাষাবাদের মাধ্যমে ভাগ্যকে জয় করে নিয়েছেন। প্রথমে থাই পেয়ারা দিয়ে শুরু করলেও এখন রয়েছে তার মাল্টা, কমলা, থাই কুল, লিচুসহ বিভিন্ন ফলের বাগান। আব্দুল লতিফকে দেখে তার গ্রামের অনেকেই গড়ে তুলছেন থাই পেয়ারার সাথে মিশ্র ফলের বাগান।

সোমবার (১৯ আগস্ট) বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে সঙ্গে কথা হয় তার জীবন পাল্টে ফেলার গল্প নিয়ে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/19/1566201147908.jpg

লতিফ জানান, তিন বছর আগে ৪০০ থাই পেয়ারার চারা রংপুরের হর্টিকালচার নার্সারি থেকে ১২ হাজার টাকা দিয়ে কিনে এনে তার নিজের বসতভিটার ৬০ শতক জমিতে বাগান করেন। প্রথম বছরে গাছ বড় হতে সময় লাগায় পেয়ারা ধরেনি। পরের বছর ২০১৮ সালে গাছে পেয়ারা ধরে। সে বছর ১১০ মণ পেয়ারা এক লাখ ২০ হাজার টাকায় বিক্রি করেন। চলতি বছর ২০১৯ সালে ২২০ মণ পেয়ারা ২ লাখ ৩০ হাজার টাকায় বিক্রি করেছেন।

লতিফ এখন পেয়ারা বাগানের পাশাপাশি গড়ে তুলছেন মাল্টা, কমলা, থাই কুল, লিচুসহ বিভিন্ন ফলের মিশ্র বাগান। তাকে অনুসরণ করে ঐ এলাকার অনেকেই এগিয়ে আসছেন ফল চাষে।

পেয়ারা চাষি আব্দুল লতিফ আরও জানান, তার বাগানে রাসায়নিক সারের পরিবর্তে নিজের তৈরি ভার্মি কম্পোস্ট সার ব্যবহার করেন। তাই ফলন যেমন ভালো হয় তেমনি সুস্বাদু হওয়ায় তার বাগানে উৎপাদিত পেয়ারার বেশ চাহিদা বাজারে রয়েছে বলে তিনি জানান।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/19/1566201169008.jpg

তিনি আরও জানান, আমি পেয়ারা চাষে সফলতা পেয়েছি। যদি কোনও কৃষক পেয়ারা চাষে উৎসাহিত হয়ে আমার কাছে আসে তাহলে আমি তাকে সব ধরনের পরামর্শ দিয়ে সহযোগিতা করব।

আব্দুল লতিফকে অনুসরণকারী কে এম রমজান আলী ও রফিকুল ইসলাম জানান, সবজি জাতীয় ফসলের চেয়ে কম খরচে থাই পেয়ারা চাষ করা যায়। এতে বেশি লাভ হওয়ায় পেয়ারার বাগান আমরাও তৈরি করছি।

কুড়িগ্রাম সদর উপজেলা উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা মোঃ তরিকুল ইসলাম বলেন, কুড়িগ্রামের মাটি থাই পেয়ারাসহ মিশ্র ফল চাষের উপযোগী হওয়ায় কৃষি বিভাগ থাই পেয়ারার পাশাপাশি মিশ্র ফল বাগান তৈরি করতে কৃষকদের আগ্রহী করে তুলছেন।

আগুনে ক্ষতিগ্রস্তদের ঠাঁই হয়েছে বিদ্যানিকেতনে

আগুনে ক্ষতিগ্রস্তদের ঠাঁই হয়েছে বিদ্যানিকেতনে
বঙ্গবন্ধু বিদ্যানিকেতনে বস্তিবাসীদের রাখা হয়েছে, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

রাজধানী মিরপুরের-৭ নম্বর সেকশনের ঝিলপাড় বস্তিবাসীদের অবশেষে ঠাঁই হয়েছে পাশের বঙ্গবন্ধু বিদ্যানিকেতন স্কুলে।

অস্থায়ী এই আশ্রয় কেন্দ্র ঘুরে দেখা যায়, তাদের জন্য এখানে খাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। পাশাপাশি সরকারি বেসরকারি এনজিওগুলো তাদের জন্য বিশুদ্ধ খাবার পানির ব্যবস্থা করেছে। সেই সঙ্গে তাদের তত্ত্বাবধানে অসুস্থ বস্তিবাসীদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/19/1566200677362.jpg
সব কিছু হারিয়ে নিঃস্ব বস্তিবাসী, ঠাই হয়েছে বিদ্যানিকেতনে, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

 

সোমবার (১৯ আগস্ট) দুপুরে সরেজমিনে মিরপুরের চলন্তিকা মোড় এলাকায় অবস্থিত এই বিদ্যানিকেতনে এমন চিত্র দেখা যায়। স্কুলের রুমগুলোতে তাদের থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। থাকা, খাওয়ার ব্যবস্থা করা হলেও তাদের চোখে মুখে ছিল আতঙ্ক। সব হারিয়ে নিঃস্ব তারা।

আরও পড়ুন: বৃষ্টিতে রাস্তায় রাত কাটিয়েছেন ঘরপোড়া বস্তিবাসী

বিদ্যানিকেতনে আশ্রয় নেওয়া জলি খাতুন বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, 'সেদিনের আগুনের ঘটনায় আমাদের পুরো পরিবার নিঃস্ব হয়ে গেছে। এখানে ছোট বাচ্চা নিয়ে আর কতদিনই বা থাকা যাবে। সরকার ঘরগুলো ঠিক করে দিলে আমরা আবার পরিবার নিয়ে সেখানে থাকতে পারব।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/19/1566200797035.jpg
কোথায় যাবেন, কই থাকবেন জানেন না তারা, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

 

বিদ্যানিকেতনে আশ্রয় নেওয়া রবিউল ইসলাম অভিযোগ করে বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, 'আমরা এই বিদ্যানিকেতনে থাকতে চাই না। এখানে থাকলে আমাদের অনেক কষ্ট হচ্ছে। যদিও তিনবেলা খাবার দেওয়া হচ্ছে। আমাদের কাপড় চোপড় নাই। খুব কষ্টে দিন যাপন করতে হচ্ছে। সরকারের কাছে আমরা অনুরোধ করছি আমাদের দ্রুত আর্থিক সহায়তা করে স্থায়ী থাকার ব্যবস্থা করে দিন।’

আরও পড়ুন: বস্তিতে অগ্নিকাণ্ড: বাতাসে এখনো পোড়া গন্ধ

ক্ষতিগ্রস্তদের একজন মুরাদ বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, 'চারদিন পার হয়ে গেলও সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে আমাদের কোনো ধরনের আশ্বাস দেওয়া হচ্ছে না। আমাদের কোথায় থাকার ব্যবস্থা করা হবে। এমন অবস্থায় আমরা পুরোপুরি বাস্তুহারা হওয়ার মধ্যে পড়ে গেছি।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/19/1566200844845.jpg
আবারও ঘুরে দাঁড়াতে চান বস্তিবাসী, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

 

ক্ষতিগ্রস্ত বস্তিবাসীদের জন্য কাজ করা বেসরকারি এনজিও রিসোর্স ইন্টিগ্রেশন সেন্টারের প্রকল্প পরিচালক বেবি রিটা বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে বলেন, 'আমরা আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া পরিবারগুলোর জন্য স্যানিটেশন ও বিশুদ্ধ পানির ব্যবস্থা করে থাকি। সরকারের পক্ষ থেকে আমরা এখন পর্যন্ত কোনো ইঙ্গিত পাইনি তাদের কোথায় স্থায়ীভাবে থাকতে দেওয়া হবে। সেটা জানতে পেলে আমরা পুরোদমে কাজ করতে পারব।’

আরও পড়ুন: ২ ছেলেকে জড়িয়ে ধরে, পেছনে ফিরতেই সব পুড়ে শেষ!

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার (১৬ আগস্ট) সন্ধ্যা ৭টা ২২ মিনিটে মিরপুরের এই বস্তিতে আগুনের ঘটনা ঘটেছিল। ফায়ার সার্ভিসের ২০ ইউনিটের তিন ঘণ্টা চেষ্টায় রাত ১০টা ৩৫ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে বলে জানা যায়।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র