Barta24

রোববার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ৩ ভাদ্র ১৪২৬

English

রাজশাহীতে পদ্মায় ডুবে শিক্ষার্থীর মৃত্যু

রাজশাহীতে পদ্মায় ডুবে শিক্ষার্থীর মৃত্যু
পদ্মায় ডুবে শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হয় / ছবি: বার্তা২৪
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম
রাজশাহী


  • Font increase
  • Font Decrease

রাজশাহী নগরীর পাঠানপাড়া মুক্তমঞ্চের সামনে পদ্মা নদীতে গোসলে নেমে পানিতে ডুবে সাজিদ হোসেন (১৬) নামে এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে।

রোববার (১৯ মে) বিকেলে তাকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে সন্ধ্যার দিকে তিনি মারা যান। সাজিদ হোসেন পুঠিয়া উপজেলার ধোপাপাড়া এলাকার কায়েস উদ্দিন সাগরের ছেলে। তিনি চলতি বছর এসএসসি পাশ করেছে।

সাজিদের বন্ধুরা জানান, সাজিদসহ তারা কয়েকজন মিলে রোববার দুপুরের দিকে পদ্মায় গোসল করতে নামেন। কিন্তু সাজিদ সাঁতার না জানায় একপর্যায়ে পানিতে ডুবে যান। বন্ধুরা বিষয়টি বুঝতে পেরে তাকে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। তবে সাজিদের সন্ধান না পেয়ে তারা রাজশাহী ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স দফতরে খবর দেয়। ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি নুরুন্নবীর নেতৃত্বে স্থানীয় জেলেদের সহযোগিতায় ডুবুরি রিপন ও জুয়েল সাজিদকে উদ্ধার করে।

তারা আরও জানান, পরে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের ৩২ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। তবে কিছুক্ষণ পরই কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

আপনার মতামত লিখুন :

কলকাতায় নিহত ২ বাংলাদেশির পরিবার ক্ষতিপূরণ চাইতে পারবে

কলকাতায় নিহত ২ বাংলাদেশির পরিবার ক্ষতিপূরণ চাইতে পারবে
নিহত দুই বাংলাদেশির পাসপোর্টের ছবি

কলকাতায় গাড়িচাপায় নিহত দুই বাংলাদেশির পরিবার ভারতে ক্ষতিপূরণ চাইতে পারবে। এ জন্য নিহত পরিবারের আত্মীয়কে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে।

রোববার (১৮ আগস্ট) বার্তাটোয়েন্টিফোর.কমকে এসব তথ্য জানিয়েছেন কলকাতায় বাংলাদেশ উপ-হাইকমিশনের প্রথম সচিব মোফাখখারুল ইকবাল।

আরও পড়ুন: কলকাতায় গাড়িচাপায় ২ বাংলাদেশির মৃত্যু, ঘাতক গ্রেফতার

তিনি বলেন, ‘নিহত ব্যক্তিদের পরিবার ক্ষতিপূরণ চেয়ে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন করলে, সেটি আমাদের হাইকমিশনে পাঠিয়ে দিলে আমরা ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মারফত সংশ্লিষ্টদের পৌঁছে দিতে পারব। ইতোমধ্যে দোষীকে সিসি ক্যামেরায় সনাক্ত করে বেশ কয়েকটি মামলা দেওয়া হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘মরদেহ সড়ক পথে অ্যাম্বুলেন্সে করে শনিবার (১৭ আগস্ট) দিবাগত রাত ২টার দিকে পাঠানো হয়েছে। ডেথ সার্টিফিকেট নিয়ে বাংলাদেশি নাগরিক হিসেবে শনাক্ত করে ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আঞ্চলিক দফতরের সঙ্গেই যোগাযোগ করে সব কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়েছিল। কলকাতার বাংলাদেশ উপহাইকমিশন এ বিষয়ে সব রকম সহযোগিতা করছে এবং ভবিষ্যতেও করবে। 

শুক্রবার (১৬ আগস্ট) দিবাগত রাতে কলকাতার শেক্সপিয়র সরণিতে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই বাংলাদেশি নিহত হন। তারা হলেন- মহম্মদ মইনুল আলম (৩৬) ও ফারহানা ইসলাম তানিয়া (৩০)।

ময়মনসিংহে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

ময়মনসিংহে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২
ময়মনসিংহে সড়ক দুর্ঘটনা, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় এক নারীসহ দুইজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও ছয়জন। নিহতরা হলেন সায়েম (১৫) ও রেজিয়া (৫০)

রোববার (১৮ আগস্ট) বিকেলে ফুলপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইমারত হোসেন গাজী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, বিকেল ৪টায় ময়মনসিংহ-শেরপুর মহাসড়কে ফুলপুর উপজেলার হোসেনপুর মোড়ল বাড়ি এলাকায় ঢাকা-শেরপুরগামী সোনার বাংলা পরিবহণের একটি বাসের সঙ্গে নালিতাবাড়ি-ফুলপুরগামী একটি সিএনজি চালিত অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়।

এতে ঘটনাস্থলেই সায়েম নামে ওই কিশোর নিহত হয়। এসময় আহত হন সায়েমের বাবা-মা ও বোনসহ ৫ জন। পরে আহতদের উদ্ধার করে ফুলপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

এদিকে, সকালে ১১টায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে ফুলপুর থেকে ঢাকাগামী একটি মাইক্রোবাসের চাকা পাংচার হয়ে গেলে গাড়িটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে এক রিকশাকে চাপা দেয়। এতে রিকশার চালক ও যাত্রী গুরতর আহত হন।  তাদেরকে উদ্ধার করে প্রথমে ফুলপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুর ১২ টার দিকে রিকশার যাত্রী রেজিয়ার মৃত্যু হয়।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র