Alexa

রাজশাহীতে ধর্ষকের সাজা ‘কানটানা’, ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার

রাজশাহীতে ধর্ষকের সাজা ‘কানটানা’, ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার

উপজেলার যোগিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল, ছবি: বার্তা২৪

রাজশাহীর বাগমারা উপজেলায় স্কুলছাত্রী ধর্ষণে অভিযুক্ত যুবককে মীমাংসা বৈঠকে ‘কানটানা’ সাজা দিয়ে ছেড়ে দেওয়ায় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতার মোস্তফা কামাল উপজেলার যোগিপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি।

বৃহস্পতিবার (১৬ মে) দুপুরে যৌন হয়রানির মামলায় সহযোগী আসামি হিসেবে গ্রেফতার দেখিয়ে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এর আগে বুধবার (১৫ মে) রাতে নিজ বাড়ি থেকে বাগমারা থানা পুলিশ চেয়ারম্যান মোস্তফা কামালকে গ্রেফতার করে।

বাগমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতাউর রহমান বার্তা২৪.কম-কে জানান, গত ৩ মে উপজেলার যোগিপাড়া ইউনিয়নের বারুইহাটি গ্রামে তৌহিদ আলী (২৫) নামে এক যুবক ষষ্ঠ শ্রেণি পড়ুয়া এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। বিষয়টি জানাজানি হলে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল ভুক্তভোগীর পরিবার ও অভিযুক্ত ধর্ষককে ইউনিয়ন পরিষদে ডেকে বিষয়টি মীমাংসা করে দেন।

সেখানে শাস্তি হিসেবে অভিযুক্ত তৌহিদের ‘কানটানা’ হয়। তবে এই মীমাংসা ও শাস্তি গ্রহণ করেনি ভুক্তভোগীর পরিবার। গত ৫ মে এ ঘটনায় ভুক্তভোগীর দাদা বাদী হয়ে বাগমারা থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। মামলায় সালিশি মীমাংসার বিষয়টিও উল্লেখ করে তাদেরও শাস্তি দাবি করা হয়।

ওসি বলেন, মামলার পরদিন ৬ মে মূল আসামি তৌহিদকে গ্রেফতার করা হয়। বৃহস্পতিবার (১৬) রাতে ধর্ষণ চেষ্টাকারীকে সহায়তা করার অভিযোগে চেয়ারম্যান মোস্তফা কামালকে গ্রেফতার করা হয়। মীমাংসা করার জন্য ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কোনো আর্থিক লেনদেন করেছেন, কিনা বিষয়টিও তদন্ত করা হচ্ছে।

আপনার মতামত লিখুন :