Alexa

শুক্রবার থেকে আবারও বাড়বে তাপমাত্রা

শুক্রবার থেকে আবারও বাড়বে তাপমাত্রা

গরমে তৃষ্ণা মেটাতে পানি পান করছেন এক শ্রমিক / পুরনো ছবি

অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে সোমবার (১৩ মে) রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টি হয়। মঙ্গলবারও ছিল এর প্রভাব। কিছুটা তাপমাত্রাও কমে। এর ফলে ঘূর্ণিঝড় ফণীর আঘাতের পরবর্তী সময় থেকে তীব্র দাবদাহের পর জনজীবনে ফিরে স্বস্তি। এছাড়া রমজান মাস হওয়ায় রোজাদারদের মধ্যেও কিছুটা ফিরে প্রশান্তি।

তবে আবহাওয়া অফিস বলছে, বৃহস্পতিবার (১৬ মে) রাজধানীসহ দেশের কয়েক জায়গায় বৃষ্টি শেষে ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পাবে তাপমাত্রা। ৩৪ ডিগ্রি থেকে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত এ তাপমাত্রা বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ফলে রোদের প্রখরতাও বাড়বে। আবারও দাবদাহে জনজীবনে অস্বস্তি বাড়তে পারে। রোজাদারদের মধ্যেও পড়বে এর প্রভাব।

বুধবার (১৫ মে) সকালে রাজধানীতে রোদের তাপ থাকলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে রোদের ফাঁকে ফাঁকে মেঘও চোখে পড়ে। ১০ থেকে ১৫ কিলোমিটার বেগে বাতাস বয়ে যাচ্ছে।

আবহাওয়াবিদ আফতাব উদ্দিন বার্তা২৪.কমকে বলেন, ‘রোববার থেকে রংপুর বিভাগে বৃাষ্টি হয়। সোমবার রাজশাহী, ঢাকা, ময়মনসিংহ, রংপুর, খুলনা বিভাগে বৃষ্টি হয়। এরপর মঙ্গলবার দু-একটি জেলা ছাড়া দেশের সব বিভাগেই কমবেশি বৃষ্টি হয়েছে। আজও বেশ কয়েকটি স্থানে হচ্ছে। তবে ঢাকায় রাতের দিকে হালকা বৃষ্টি হতে পারে।’

তিনি আরও বলেন, ‘কালকেও (বৃহস্পতিবার) বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। শুক্রবার থেকে তাপমাত্রা আবারও বৃদ্ধি পাবে। এ তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত হতে পারে। তবে সপ্তাহ দুইয়ের মধ্রে আবারও বৃষ্টি দেখা মিলতে পারে। আর এখন গ্রীষ্মকাল হওয়ায় দেশে গরম বিরাজমান থাকবে।’

বুধবারের আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রংপুর, ময়মনসিংহ, ঢাকা ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ী দমকা বা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকতে পারে। ঢাকায় দক্ষিণ বা দক্ষিণ-পূর্ব থেকে ১০ থেকে ১৫ কিলোমিটার বেগে বয়ে যাওয়া বাতাস বৃদ্ধি পেয়ে ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটারে বৃদ্ধি পেতে পারে।

বুধবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা খুলনা ও পটুয়াখালীতে ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপামাত্রা রংপুরে ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। মঙ্গলবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল খুলনায় ৩৬ দশমিক 8 ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ডিমলায় ২১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সোমবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল রাজশাহীতে ৩৭.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল তেঁতুলিয়ায় ১৯.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় বুধবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৫.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৪.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। মঙ্গলবারের তাপমাত্রা ছিল ৩৪.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২২.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

নদীবন্দরের সর্তক বর্তায় বলা হয়েছে, রাজশাহী, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, ঢাকা, খুলনা, যশোর, কুষ্টিয়া, ফরিদপুর, মাদারীপুর, নোয়াখালী, কুমিল্লা, বরিশাল, পটুয়াখালী, চট্টগ্রাম এবং সিলেট অঞ্চলের উপর দিয়ে পশ্চিম বা উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ী ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দরকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

আরও পড়ুন: অবশেষে কাঙ্ক্ষিত বৃষ্টি, স্বস্তিতে রাজধানীবাসী

আরও পড়ুন: রাজধানীতে দমকা হাওয়াসহ বৃষ্টি

আপনার মতামত লিখুন :

জাতীয় এর আরও খবর