Alexa

পঞ্চম বর্ষে চ্যানেল আই অনলাইন

পঞ্চম বর্ষে চ্যানেল আই অনলাইন

ছবি: সংগৃহীত

‘পাঁচ এ ৫’ প্রতিপাদ্যে পঞ্চম বছরে পদার্পণ করলো চ্যানেল আই অনলাইন। রোববার (২১ এপ্রিল) বিকেলে নানা আয়োজনে রাজধানীর তেজগাঁওয়ে চ্যানেল আই ভবনে উদযাপিত হয় পঞ্চমবর্ষে পদার্পণ অনুষ্ঠান।

এতে উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক, লেখক ও গবেষক সৈয়দ আবুল মকসুদ, চ্যানেল আইয়ের পরিচালক ও বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজ এবং চ্যানেল আই অনলাইনের সম্পাদক ও চ্যানেল আইয়ের প্রধান বার্তা সম্পাদক (সিএনই) জাহিদ নেওয়াজ খান।

চ্যানেল আইয়ের সিনিয়র বার্তা সম্পাদক মীর মাসরুর জামানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে চ্যানেল আই অনলাইন ও চ্যানেল আইয়ের বার্তা বিভাগের কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

‘গণমাধ্যমে গণমানস’ শীর্ষক বক্তৃতায় সৈয়দ আবুল মকসুদ চ্যানেল আই অনলাইনের নীতি নিষ্ঠা, কর্তব্যপরায়ণ সাংবাদিকতার প্রশংসা করে বলেন, ‘নতুন মাধ্যম হিসেবে রেডিও, টেলিভিশন ও সংবাদপত্রকে চ্যালেঞ্জ জানাচ্ছে অনলাইন গণমাধ্যম। প্রচলিত গণমাধ্যমের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর এই গণমাধ্যম সংবাদ পরিবেশনে বড় অবদান রাখছে।’

অনলাইন গণমাধ্যম প্রশাসন ও রাষ্ট্রের জন্য ভিন্নরকম এক জবাবদিহিতার পরিবেশ তৈরি করেছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘তবে সব অনলাইন গণমাধ্যম একরকম নয়। অনেক সময় কোনো কোনো অনলাইন বিভ্রান্তি ছড়ায়, যা নানা ক্ষেত্রে বিশৃঙ্খলা তৈরি করে।’

চ্যানেল আইয়ের পরিচালক, বার্তা প্রধান ও চ্যানেল আই অনলাইনের প্রকাশক শাইখ সিরাজ বলেন, ‘অন্য গণমাধ্যমকর্মীদের তুলনায় অনলাইন সাংবাদিকদের অনেক বেশি দায়িত্বশীল হতে হয়। এখানে প্রচণ্ড রকমের প্রতিযোগিতার মধ্যে কাজ করতে হয়। তথ্য যাচাই-বাছাই করে দ্রুত কে কতো আগে সংবাদ দেবে, সেই প্রতিযোগিতা করতে গিয়ে অনেক সময় ভুল হয়ে যেতে পারে, যা অনেক বড় চ্যালেঞ্জের।’

চ্যানেল আই অনলাইনের সম্পাদক ও চ্যানেল আইয়ের প্রধান বার্তা সম্পাদক জাহিদ নেওয়াজ খান সবাইকে পাঁচ বছরে পদাপর্ণের শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, ‘বলা হচ্ছে দেশের গণমাধ্যম একটা সংকটকাল পার করছে। এর একটি কারণ দিনে দিনে ডিজিটাল মাধ্যমনির্ভর হচ্ছে পাঠক/দর্শক। অন্য আরেকটি কারণ হতে পারে, বর্তমান প্রচলিত গণমাধ্যমের উপর মানুষের এক ধরনের আস্থার সংকট তৈরি হয়েছে। আমাদেরকে সেই আত্ম অনুসন্ধান করতে হবে।’

অনুষ্ঠানে ‘চ্যানেল আই অনলাইন সেরা কর্মী পুরস্কার’ দেওয়া হয়। এবার পুরস্কার পেয়েছেন তানজীমা এলহাম বৃষ্টি, মেহরাব হোসেন রবিন, আরেফিন তানজীব, সাজ্জাদ খান, নুসরাত শারমিন, রেজাউল করিম এবং শর্মিলা সিনড্রেলা।

আপনার মতামত লিখুন :