Barta24

বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯, ৩ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

নুসরাত হত্যার আসামিদের শাস্তি সুনিশ্চিত করা হবে

নুসরাত হত্যার আসামিদের শাস্তি সুনিশ্চিত করা হবে
জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরী। ছবি: বার্তা২৪.কম
স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
রংপুর
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

নুসরাত হত্যা মামলার সঙ্গে জড়িত সকলকে আইনের আওতায় এনে শাস্তি সুনিশ্চিত করা হবে। এই হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের শাস্তির ব্যাপারে সকল পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

সোমবার (১৫ এপ্রিল) বিকেলে নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর তরুণ-তরুণীদের ওয়েল্ডিং অ্যান্ড ফেব্রিকেশন বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে এসব কথা জানান জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরী। রংপুর কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে এ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।

স্পিকার ড. শিরিন শারমিন চৌধুরী বলেন, 'নুসরাতকে যারা আগুন দিয়ে হত্যা করেছে। যারা হত্যার পরিকল্পনা করেছে, ইতোমধ্যেই অনেক আসামিদের গ্রেফতার করা হয়েছে। সরকার বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখছে।'

প্রশিক্ষণ কর্মসূচির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রংপুরের জেলা প্রশাসক এনামুল হাবীবের সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন- প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব নারায়ণ চন্দ্র বর্মা, বিএমইটির পরিচালক (কর্মসংস্থান) ও উপসচিব ডি এম আতিকুর রহমান, রংপুর কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের অধ্যক্ষ প্রকৌশলী লুৎফর রহমান, প্রাকটিক্যাল অ্যাকশন বাংলাদেশের জব প্লেসমেন্ট ও ভোকেশনাল স্পেশালিস্ট রফিকুল ইসলাম।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, 'সরকার দক্ষ জনগোষ্ঠী তৈরির লক্ষ্যে বিভিন্ন প্রকল্পের বাস্তবায়নে কাজ করছে। সবাইকে নিয়ে দেশের উন্নয়ন ধারাবাহিকতা এগিয়ে নিতে হবে। নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর তরুণ তরুণীদের আরও উদ্যোগী হতে হবে। আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টি এবং স্বাবলম্বী হতে প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই। আমরা যুব সমাজকে উন্নয়নের মূল চালিকা শক্তি হসেবে ব্যবহার করতে চাই। এজন্য দক্ষতা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে তথ্য প্রযুক্তি নির্ভর প্রশিক্ষণ নিতে হবে।'

অনুষ্ঠানে রংপুর কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের বিভিন্ন ট্রেডের অর্ধশত জনকে সনদ ও বিদেশ গমনে ইচ্ছুক ৫ নারীকে চাকরির নিয়োগপত্র দেয়া হয়।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন- রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (সদর দপ্তর ও প্রশাসন) মহিদুল ইসলাম, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (অপরাধ) শহিদুল্লাহ কাওছার, পীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা টিএমএ মমিন, পীরগঞ্জ পৌর মেয়র তাজিমুল ইসলাম শামীম, পীরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ মণ্ডল, রংপুর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মেহেদী হাসান সিদ্দিকী রনি প্রমুখ।

আপনার মতামত লিখুন :

৫০ ভাগ চিকিৎসা আসছে বেসরকারি খাত থেকে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

৫০ ভাগ চিকিৎসা আসছে বেসরকারি খাত থেকে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী
সেমিনারে বক্তব্য দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

দেশের ৫০ শতাংশ চিকিৎসা সেবা বেসরকারি হাসপাতালসহ বিভিন্ন চিকিৎসাকেন্দ্রগুলো থেকে আসছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) হোটেল প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁওয়ে ‘সার্বজনীন স্বাস্থ্যসেবা অর্জনের লক্ষ্যে দেশের স্বাস্থ্যসেবাকে অধিকতর কার্যকরী ও মানসম্পন্ন করা’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এ তথ্য জানান। স্বাস্থ্য অধিদফতর এ সেমিনারের আয়োজন করে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘চিকিৎসায় বেসরকারি সেক্টরে ৫০ শতাংশ চিকিৎসা সম্পন্ন হলেও আমরা তাদেরকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারছি না। অনেক সমস্যার কথা আমরা শুনি। কিন্তু সমাধান করতে পারি না। কেননা আমাদের সেই চর্চা নেই। আমাদের ক্ষমতা রয়েছে দুর্নীতিগ্রস্ত যেকোনো হাসপাতালকে বন্ধ করে দেওয়ার। কিন্তু আমরা তা করতে পারছি না আমাদের চিকিৎসকদের সংযুক্তি বা যারা এ দায়িত্বে আছেন, তাদের সদিচ্ছা না থাকার কারণে।’

তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘দেশের চিকিৎসা খাতে মেডিকেল হেলথ কেয়ার প্রোভাইডাররা (সিএইচসিপি) রোগীদেরকে এন্টিবায়োটিক ওষুধ প্রেসক্রাইব করছে। এ ধরনের কাজ সম্পূর্ণ নিয়ম বহির্ভূত। তাদেরকে রাখা হয়েছে শুধুমাত্র প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করার জন্য। এন্টিবায়োটিক প্রেসক্রাইব করতে পারবে শুধুমাত্র এ সংক্রান্ত বিষেজ্ঞ বা চিকিৎসকরা। আমাদেরকে এ বিষয়ে জোর পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/18/1563442343997.jpg

মন্ত্রী বলেন, ‘দেশের শিশু-কিশোরদেরকে ও চিকিৎসায় শিক্ষিত করতে হবে। আমাদের প্রাইমারি হেলথ কেয়ার ব্যবস্থাপনা অন্যান্য উন্নয়নশীল দেশের থেকে উন্নত। রোগ প্রতিরোধে শুরু হয় এই প্রাইমারি হেলথ কেয়ার থেকে। যার মাধ্যমে দেশের জনগণ নিজেরাই নিজেদের সেবা করতে পারবে। এই সেবাকেও ঢেলে সাজাতে হবে। কেননা দেশের বিভিন্ন স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রগুলোর মাধ্যমে এই সেবা পুনরাবৃত্তি হচ্ছে। এটাকে বন্ধ করতে হবে।’

নন-কমিউনিকেবল ডিজিজের প্রতি বিশেষ দৃষ্টি দেওয়া প্রয়োজন উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘রোগগুলো আমাদের দেশে বাড়ছে। এজন্য আমাদের জীবনযাত্রার মান পুনঃনির্ধারণ করতে হবে। কেননা আমরা এই ধরনের রোগ প্রতিরোধে এখনো প্রস্তুত না। তাই এটাকেও প্রাইমারি হেলথ কেয়ারের অন্তর্গত করতে হবে।’

চিকিৎসকদের মেডিকেল প্র্যাক্টিস সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘আমাদের রেফারেল সিস্টেম এখনো দুর্বল। চিকিৎসকদের এক্ষেত্রে আরও মনোযোগী হতে হবে। বিষয়টি নিয়ে আমরা আলোচনা করছি কিন্তু এখনো বাস্তবায়ন করা হয়নি। এছাড়া চিকিৎসকদেরকে প্রাইভেট প্র্যাকটিসের সময় কমাতে হবে। সরকারি হাসপাতালে তাদেরকে বেশি সময় দিতে হবে। দুই ধরনের প্র্যাকটিস বিশ্বের অন্যান্য দেশে নাই। এ ক্ষেত্রে সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসকদের বেতন বাড়ানোর কথা আমরা ভাবছি।’

স্বাস্থ্য খাতে বাজেট সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘বাজেটে মেনটেনেন্সের জন্য মাত্র ৬ থেকে ৭ কোটি টাকা বরাদ্দ রয়েছে। কিন্তু এ বরাদ্দ প্রয়োজন ৪০০ থেকে ৫০০ কোটি টাকা। বাজেটের দিকে আমরা আরও নজর বাড়াব। বিশেষজ্ঞদের নিয়ে আলোচনা করে বাজেটের বিষয় নির্ধারণ করব।’

তিনি আরও বলেন, ‘দেশের এনজিওগুলো স্বাস্থ্য খাতে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করছে না। তারা নিজেরাও কাজ করছে না, আমাদেরকেও দিচ্ছে না। এতে আমাদের নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা লক্ষ্যভ্রষ্ট হচ্ছে। এক্ষেত্রে আমরা নজরদারি বাড়াচ্ছি। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এর বাইরে কর্মকর্তাদের সংস্পর্শ বেশি। এটা অবশ্যই কমাতে হবে।’

সেমিনারে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক পাঁচটি জাতীয় গাইডলাইনের মোড়ক উন্মোচন করেন। গাইডলাইনগুলো হলো- ন্যাশনাল স্ট্র‍্যাটেজিক প্ল্যানিং অব পেশেন্ট সেফটি, ন্যাশনাল গাইডলাইন অব ইনফেকশন প্রিভেনশন অ্যান্ড কন্ট্রোল, অ্যান্টি মাইক্রোবিয়াল স্টেয়ার্ডশিপ কিউআই ফ্রেমওয়ার্ক, ন্যাশনাল আর এমএনসিএএইচ কিউআই ফ্রেমওয়ার্ক, ন্যাশনাল আইসিইউ কিউআই ফ্রেমওয়ার্ক।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে সেমিনারে আরও উপস্থিত ছিলেন- স্বাস্থ্য অধিদফতরের সাবেক মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এম এ ফায়েজ, ইউএনএফপিএ'র সিনিয়র উপদেষ্টা ডা. এস এ জে মো. মুসা, অধিদফতরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার সাবেক পরিচালক অধ্যাপক ডা. বে-নজির আহমেদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের হেলথ ইকনোমিকস বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. এম এ হামিদ, আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা প্রতিষ্ঠান, বাংলাদেশের বিশেষজ্ঞ ইকবাল আনোয়ার, অধ্যাপক ডা. মো. লিয়াকত আলী, ডা. মো. আমিরুল ইসলাম প্রমুখ।

ইতিবাচক দৃ‌ষ্টিভ‌ঙ্গি নিয়ে সংবাদ প‌রিবেশনের আহ্বান মু‌ক্তিযুদ্ধমন্ত্রীর

ইতিবাচক দৃ‌ষ্টিভ‌ঙ্গি নিয়ে সংবাদ প‌রিবেশনের আহ্বান মু‌ক্তিযুদ্ধমন্ত্রীর
বক্তব্য রাখছেন মু‌ক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণাল‌য়ের মন্ত্রী আ ক ম মোজ্জা‌ম্মেল হক, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

সাংবা‌দিক‌দের ইতিবাচক দৃ‌ষ্টিভ‌ঙ্গি নি‌য়ে যে কোনো সমস্যা তু‌লে ধ‌রে সংবাদ প‌রি‌বেশন করার আহ্বান জা‌নি‌য়েছেন সরকা‌রের মু‌ক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণাল‌য়ের মন্ত্রী আ ক ম মোজ্জা‌ম্মেল হক।

বৃহস্প‌তিবার (১৮ জুলাই) জাতীয় প্রেসক্লা‌বের ভিআই‌পি লাউঞ্জে 'গাজীপুর উন্নয়‌নের চ্যা‌লেঞ্জ ও করণীয়: জনপ্র‌তি‌নি‌ধি ও পেশাজীবী‌দের ভূ‌মিকা' শীর্ষক গোল‌টে‌বিল বৈঠক ও মুক্ত আ‌লোচনা সভায় প্রধান অ‌তিথির বক্ত‌ব্যে এ আহ্বান জানান তিনি।

মন্ত্রী তার বক্ত‌ব্যে সামা‌জে সাংবা‌দিকদের গুরুত্ব তু‌লে ধ‌রে ব‌লেন, ‘যেখা‌নে যে সমস্যাই হোক না কেন, তা সাংবা‌দিকরা তু‌লে ধর‌লে, কাজ করা সহজ হয়। সমস্যাগু‌লো কেন্দ্রীয় সরকা‌রের হোক বা স্থানীয় সরকারের হোক। সব সমস্যাই ইতিবাচক দৃ‌ষ্টিভ‌ঙ্গি নিয়ে লিখলে সং‌শ্লিষ্ট বিষ‌য় সরকা‌রের কা‌ছে প‌রিষ্কার হ‌বে, ব্যবস্থা নি‌তে সু‌বিধা হবে। কাউ‌কে হেয় করার জন্য নিউজ করার দরকার আ‌ছে ব‌লে ম‌নে ক‌রি না। জনগণের স্বা‌র্থে ইতিবাচকভাবে সরকা‌রের দৃ‌ষ্টি আকর্ষণ কর‌লে অনেক কা‌জে আ‌সে।’

1
বক্তব্য রাখছেন মু‌ক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণাল‌য়ের মন্ত্রী আ ক ম মোজ্জা‌ম্মেল হক, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

 

‌তি‌নি ব‌লেন, ‘সারা‌দে‌শের নদীর সমস্যা একটি জাতীয় সমস্যা। বর্জ্য ব্যবস্থাপনা নি‌য়ে সরকা‌রের পক্ষ থে‌কে অ‌নেক প‌রিকল্পনা নেওয়া হ‌য়ে‌ছে। নদীর স্রোত বা নাব্যতা ফি‌রি‌য়ে আনার জন্য কাজ কর‌ছি। সম্পূর্ণ এখনও বাস্তবায়ন হয় নাই। ঢাকার আ‌শপা‌শের চারটা নদী খনন করার প্রকল্প হাতে নেওয়া হ‌য়ে‌ছে। এ কাজটা শেষ করতে সময় লাগ‌বে। প্রকল্পটা বাস্তবায়ন হ‌লে নদী নি‌য়ে সমস্যা সমাধা‌নের প‌থে এ‌গিয়ে যা‌ব আমরা।’

হাসপাতালের উন্নয়ন করার জন্যও কাজ হ‌চ্ছে এবং আগামী এক বছ‌রের ম‌ধ্যে সমস্যাগু‌লো নিরসন হ‌বে ব‌লেও জানান মন্ত্রী।

জাতীয় সংস‌দের সংর‌ক্ষিত সংসদ সদস্য শামসুর নাহার ভূঁইয়ার সভাপ‌তি‌ত্বে অনুষ্ঠা‌নে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন ক‌রেন বঙ্গবন্ধু গ‌বেষণা প‌রিষ‌দের সভাপ‌তি লায়ন মো. গ‌নি মিয়া বাবুল। বি‌শেষ অতিথি হি‌সে‌বে উপ‌স্থিত ছি‌লেন জাতীয় প্রেসক্লা‌বের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র