Alexa

চাল আমদানিতে শুল্ক বৃদ্ধির প্রস্তাব

চাল আমদানিতে শুল্ক বৃদ্ধির প্রস্তাব

ছবি: সংগৃহীত

কৃষকের ধান-চালের নায্যমূল্য নিশ্চিত করতে বিদেশি চাল আমদানির ক্ষেত্রে আমদানি শুল্ক বাড়ানোর প্রস্তাব করেছে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। তাছাড়া ধান, গম ও অন্যান্য খাদ্যশস্যের সরকার নির্ধারিত প্রকৃত মূল্য কৃষক যেন পায় সেজন্য তদারকি বাড়ানোর প্রস্তাব করেছে কমিটি।

রোববার (৭ এপ্রিল) একাদশ জাতীয় সংসদের খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির প্রথম বৈঠকে এ প্রস্তাব করা হয়।

বৈঠকে সম্প্রতি খাদ্যে ভেজালের বিরুদ্ধে করণীয়, দেশের খাদ্য গুদামগুলোর খাদ্য মজুদের পরিমাণ সংক্রান্ত তথ্যাদি উপস্থাপন, খাদ্য মন্ত্রণালয় ও খাদ্য অধিদপ্তরের অধীন বিভিন্ন সংস্থার শূন্য পদ ও পদ পূরণের ক্ষেত্রে সর্বশেষ অগ্রগতি এবং গৃহীত ব্যবস্থা সম্পর্কে আলোচনা হয়।

নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করণে ভেজালমুক্ত খাদ্য অভিযান জোরদার করতে মন্ত্রণালয়কে পরামর্শ দেওয়া হয়। রমজান মাসে খাদ্যদ্রব্যের মূল্য নিয়ন্ত্রণ ও নিরাপদ খাদ্য সরবরাহের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার সুপারিশ করা হয়। এ লক্ষ্যে প্রয়োজনে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলোর মন্ত্রী ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সম্মিলিত বৈঠকের মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ  নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়।

ধান, গম ও অন্যান্য খাদ্যশস্যের প্রকৃত সরকার নির্ধারিত মূল্য যাতে কৃষক পায় সেজন্য প্রয়োজনীয় তদারকি জোরদার করতে হবে এবং চাল আমদানিতে শুল্ক বাড়ানোর বিষয়েও মন্ত্রণালয়কে পরামর্শ দেয় কমিটি।

দেশে যাতে কোনো ধরণের কৃত্রিম খাদ্য সংকট তৈরি না হয় সেজন্য চাল মজুদের হিসাব সভায় জানানো হয়। প্রকৃতপক্ষে গুদামে চালের সেই পরিমাণ মজুদ আছে কিনা বা সরবরাহ করা হচ্ছে কিনা সে বিষয়টি অতি গুরুত্বের সঙ্গে নজরদারি রাখতে মন্ত্রণায়কে পরামর্শ দেওয়া হয়।

খাদ্য ব্যবস্থাপনা আরও কার্যকরী করা এবং মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রমকে আরও বেগবান করার ক্ষেত্রে যে জনবল সংকট রয়েছে তা নিরসনে শূন্যপদে দ্রুত নিয়োগ কার্যক্রম সম্পন্ন করার সুপারিশ করা হয়।

কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ নাসিমের সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটি সদস্য খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার, নুরুল ইসলাম নাহিদ, মো. আতিউর রহমান আতিক, ধীরেন্দ্র দেবনাথ শম্ভু, মো. আব্দুল হাই, মো. আয়েন উদ্দিন, আতাউর রহমান খান, আঞ্জুমান সুলতানা অংশগ্রহণ করেন।

এছাড়াও খাদ্য মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিবসহ মন্ত্রণালয়ের অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ এবং জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত লিখুন :