Alexa

গণশুনানিতে গণ ঘুমে ব্যস্ত ছিল ঐক্যফ্রন্ট নেতারা: তথ্যমন্ত্রী

গণশুনানিতে গণ ঘুমে ব্যস্ত ছিল ঐক্যফ্রন্ট নেতারা: তথ্যমন্ত্রী

সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, ছবি: বার্তা২৪

নির্বাচন নিয়ে ঐক্যফ্রন্ট যে গণশুনানি করেছে সেখানে সবাই গণ ঘুমে ব্যস্ত ছিল বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

তিনি বলেন, ‘আমরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেখেছি, গণশুনানির সময় তারা সবাই ঘুমাচ্ছিল। গণশুনানির নামে জনগণের চোখে ধুলা দেয়ার একটি নাটক মঞ্চায়ন করা হয়েছে। গণশুনানির কোনো আবেদন তারা জনগণের কাছে তৈরি করতে পারেননি। তাদের দলের একজন নেতা বলেছেন, গণশুনানির পাশাপাশি তাদের নেতাদের শুনানি করা প্রয়োজন। আমিও মনে করি তাদের নেতাদের শুনানি করা প্রয়োজন।'

মঙ্গলবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুর সোয়া একটায় বাংলাদেশ ক্লাইমেট চেঞ্জ জার্নালিস্ট ফোরামের (বিসিজেএফ) সাথে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, 'ড. কামাল, মির্জা ফখরুলসহ তাদের একটি প্রতিনিধিদল ইউএস অ্যাম্বাসেডরসহ কয়েকজন কূটনৈতিকের সাথে সাক্ষাত করেছে। জনগণই হচ্ছে ক্ষমতার মালিক। বিএনপি কিংবা ঐক্যফ্রন্ট ঘনঘন বিদেশিদের সঙ্গে দেখা করার মাধ্যমে তাদের রাজনৈতিক দেউলিয়াত্ব প্রকাশ পায়। দেশে কোন কিছু হলেই তারা বিদেশিদের কাছে ধরনা দেয়। এটি দেশকে অপমান করা শুধু নয় তাদের নিজেদের অপমান করা, নিজেদের দলকে অপমান করা। তাদের ধরনা দেয়া উচিত জনগণের কাছে। বিদেশিদের কাছে নয়। রাজনৈতিক দল হিসেবে তারা যদি জনগণের দল হয় তাহলে তারা ধর্না দেবে জনগণের কাছে। বিদেশিদের কাছে কেন?'

পরিবেশ সচেতনতা সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘পরিবেশ সচেতনতা যদি স্কুল থেকে শুরু হয় তাহলে আমাদের পরিবেশটা অনেক ভালো থাকবে, ভালো হবে। বিদেশে বাচ্চারা রাস্তায় কোনো কাগজ ফেলে না আর আমাদের দেশে অনেক শিক্ষিত মানুষ রাস্তায় ময়লা আবর্জনা ফেলে। একটা সচেতনতার ব্যাপক অভাব রয়েছে। পরিবেশ সচেতনতা ও জলবায়ুর পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবেলা করাসহ সমস্ত বিষয়ে আমাদের তথ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে যে প্রকল্পগুলো আছে সেখানে আরও ব্যাপকভাবে অন্তর্ভুক্ত করার উদ্যোগ গ্রহণ করব।'

বাংলাদেশ ক্লাইমেট চেঞ্জ জার্নালিস্ট ফোরামের সভাপতি কাউসার রোমানের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাসউদুল হক।

আপনার মতামত লিখুন :