Alexa

পরীক্ষার আগে অনৈতিক পথের খোঁজ করবেন না: দীপু মনি

পরীক্ষার আগে অনৈতিক পথের খোঁজ করবেন না: দীপু মনি

ডা. দীপু মনি

প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধ করে সুন্দর, সুষ্ঠু, নকল ও ক্রুটিমুক্ত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত লক্ষ্যে অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের সহায়তা চাইলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি বলেন, পরীক্ষার আগে আপনারা অনৈতিক কোনো পথের খোঁজে নামবেন না। পরীক্ষার্থী ঠিকভাবে, ভালোভাবে পরীক্ষা দিবে, ভালো ফল অর্জন করবে। অনৈতিক কোনো পথে হেঁটে ভালো ফল অর্জন করা যায় না।

মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) দুপুর সোয়া ১২টায় নগরীর এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে ৪৮তম শীতকালীন জাতীয় স্কুল, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষা ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রশ্নফাঁসরোধে সকলের দায়িত্ব জানিয়ে দীপু মনি বলেন, প্রশ্নপত্র পাবার ব্যাপারে অভিভাবক ও পরীক্ষার্থীর একাংশের বিশাল আগ্রহ, চেষ্টা না থাকলে যারা এই অপকর্ম করছে তারা লাভবান হতে পারবে না। এর পাশাপাশি আমরা চেষ্টা করবো কোনো দুর্বৃত্ত এ প্রক্রিয়াকে যেনো নষ্ট  না করতে পারে। এক্ষেত্রে সকলকেই নিজ নিজ অবস্থান থেকে ভূমিকা রাখতে হবে।

আগামী ২ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হচ্ছে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা। এ পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে প্রথম থেকেই প্র্রশ্নফাঁস রোধে কোচিং সেন্টার বন্ধ, প্রশ্নপত্র প্রণয়নে প্রিন্টিংয়ে আধুনিক প্রযুক্তির কথা জানানো হয়েছিল।

সরকারের গৃহীত পদক্ষেপের কথা তুলে দীপু মনি বলেন, গত এক দশকে প্রতিটি শিশুকে শিক্ষার আওতায় আনার লক্ষ্যে এবং শিক্ষার মানউন্নয়নের আমরা ব্যাপক কর্মসূচি হাতে নিয়েছি। সেই সাথে মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ নিমূল করতে শিশুদের ক্রীড়া প্রতিযোগিতাসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত করেছি।  আমাদের ছেলে-মেয়েরা মেয়েরা বিশ্বের বিভিন্ন জায়গায় সুনামের সাথে বিশ্বমাত করছে।  এমন এমন ধারাবাহিতকতা নিয়ে আমরা অনেক দূরে এগিয়ে যাব।

ভালো ফলাফল শিক্ষার্থীদের একমাত্র লক্ষ্য হওয়া উচিত নয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, ভালো ফলাফল অর্জন করা জরুরি। বিজ্ঞান, প্রযুক্তিতে উন্নত হওয়াও জরুরি। কিন্তু সেটি কেবল একমাত্র বিষয় হতে পারে না। আমি ভালো মানুষ হলাম কিনা, আমার মাঝে মানবিকতাবোধ, নীতিকথা, সুনাগরিক হিসেবে সুস্থ, সুন্দর দেহ মন নিয়ে বড় হচ্ছে কিনা তাও জরুরি। বঙ্গবন্ধু প্রতিটি দিন যেভাবে সংগ্রাম, ত্যাগ করে স্বপ্নে সোনার বাংলাদেশ তৈরি করেছে। তেমন মর্যাদা সংগ্রামের পৌঁছাতে হলে সুনাগরিক সোনার মানুষ লাগবে। জিপিএ ফাইভ পাওয়া একমাত্র পথ হতে পারে না। ইতিহাস, ঐতিহ্য, মৃক্তিযুদ্ধে চেতনায়, দেশ, পরিবেশ ,মানুষের অধিকার সম্পর্কে সচেতন হতে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তেব্য উপমন্ত্রী অ্যাডভোকেট মহিবুল হাসান নওফেল বলেন, মানকিস বিকাশ এবং পড়াশুনার সাথে খেলাধূলার সম্পর্ক নিবির। খেলাধুলার মাঝে শিক্ষার সূত্র লুকিয়ে আছে। বর্তমানে টেলিফোন, ইন্টারনেট, এমন আর্কষণে শিশুদের ঘরে বসে থাকতে উৎসাহিত করে।

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক  প্রফেসর ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে  জেলা প্রশাসক মো. ইলিয়াস হোসেন, বিভাগীয় কমিশনার আবদুল মান্নান, বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান এ কে এম ছায়েফ উল্যা, বরিশাল মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. ইউনুস, যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. আবদুল আমিন, রাজশাহী মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. আবুল কালাম আজাদ, ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক জিয়াউল হক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত লিখুন :