Barta24

রোববার, ২৫ আগস্ট ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬

English

আ.লীগে একক, বিএনপি’তে একাধিক প্রার্থী

আ.লীগে একক, বিএনপি’তে একাধিক প্রার্থী
ছবি: বার্তা২৪
গনেশ দাস
ডিস্ট্রিক করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

আসন্ন নির্বাচনে বিএনপি অধ্যুষিত বগুড়া-১ (সারিয়াকান্দি-সোনাতলা) আসনে আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী থাকলেও বিএনপির একাধিক প্রার্থী প্রচারণায় নেমেছেন।

জানা গেছে,  স্বাধীনতার পর ২০০৮ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল মান্নান সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এরপর টানা ১০ বছর ধরে তিনি এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। কিন্তু দলের অভ্যন্তরীণ কোন্দলে নির্বাচনের আগে মাথা চাড়া দিয়ে উঠছেন অনেক নেতা। ইতোমধ্যে তারা নির্বাচনী শুভেচ্ছা জানিয়ে এলাকায় পোস্টারিং শুরু করেছেন। যদিও এই আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী পরিবর্তন হওয়ার সম্ভাবনা খুব কম। তবে বিএনপির প্রার্থী মনোনয়নের উপর নির্ভর করছে আওয়ামী লীগের জয় পরাজয়। এখানে বিএনপি থেকে প্রার্থী হতে চান অনেকেই তাদের মধ্যে তিনজন হাঁকডাক দিয়েই নির্বাচনী মাঠে নেমেছেন।

আরো জানা গেছে, ২০০১ সালের নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী আলহাজ্ব কাজী রফিকুল ইসলাম আওয়ামী লীগ প্রার্থী আব্দুল মান্নানকে পরাজিত করে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০০৭ সালে দেশে জরুরি অবস্থা জারির পর কাজী রফিকুল ইসলাম সংস্কারপন্থী  হিসেবে চিহ্নত হন। একারণে ২০০৮ সালের ডিসেম্বর মাসে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে জেলা বিএনপির উপদেষ্টা শোকরানাকে মনোনয়ন দেয় বিএনপি। ওই নির্বাচনে ৫ হাজার ৬০০ হাজার ভোট বেশি পেয়ে আওয়ামী লীগ প্রথমবারের মতো এই আসনে বিজয়ী হয়।

২০১৪ সালের নির্বাচনে বিএনপি অংশ না নেয়ায় আব্দুল মান্নান বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আবারও নির্বাচিত হন। ফলে গত ১০ বছর ধরে এই আসনে রাস্তাঘাট, ব্রিজ-কালভার্ট, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ভবন নির্মাণ ছাড়াও যমুনা নদীর ভাঙ্গন রোধে ব্যাপক উন্নয়ন কাজ করেন তিনি। তবে এসবের পরও ভোটাররা বিএনপিকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করতে পারেন বলে জানিয়েছেন অনেকে। কারণ অভ্যন্তরীণ কোন্দলে আওয়ামী লীগের অবস্থান নড়বড়ে হয়ে গেছে।

জানা গেছে, নিজের দলের মধ্যেই আব্দুল মান্নানের প্রতিদ্বন্দ্বী তৈরি হয়েছে। যদিও এতদিন কেউ মুখ খোলার সাহস পাননি। তবে জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক উপদেষ্টা ডা. মকবুলার রহমান এবং সারিয়াকান্দি পৌরসভার চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলমগীর শাহী সুমন মনোনয়ন পাওয়ার চেষ্টা করছেন।

এদিকে, বিএনপি থেকে সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব কাজী রফিকুল ইসলাম দীর্ঘ ১০ বছর মাঠে না থাকলেও এখন মাঝে মধ্যে এলাকায় যাতায়াত করছেন। তবে জেলা বিএনপির উপদেষ্টা শোকরানা ২০০৮ সালের নির্বাচনে পরাজয়ের পর থেকেই ১০ বছর ধরে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন নির্বাচনী এলাকায়। এলাকার নেতাকর্মীদের বিভিন্ন সমস্যা, রাজনৈতিক মামলার খোঁজ খবর নেয়া ছাড়াও নির্বাচনী কাজ করে যাচ্ছেন। এদিকে নতুন করে লিফলেট বিতরণ শুরু করেছেন সারিয়াকান্দি পৌরসভার সাবেক মেয়র ও সাবেক বিএনপি নেতা টিপু সুলতান। এছাড়াও সোনাতলা উপজেলা চেয়ারম্যান ও সোনাতলা উপজেলা বিএনপির সভাপতি আহসানুল তৈয়ব জাকিরের নাম শোনা গেলেও তিনি নিজ  এলাকা ছাড়াও নির্বাচনী পোস্টার লাগিয়েছেন বগুড়া শহরে। আর ঢাকায় বসবাসরত শিল্পপতি আলহাজ্ব মোরাশফ হোসেন মাঝে মধ্যে সোনাতলা উপজেলা আসেন এবং ভোটারদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।

আপনার মতামত লিখুন :

ব্লেন্ডার মেশিন থেকে সাড়ে তিন হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার

ব্লেন্ডার মেশিন থেকে সাড়ে তিন হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার
আটক হওয়া মাদক ব্যবসায়ী, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

রাজধানীর কাফরুল এলাকার একটি বাসার ব্লেন্ডার মেশিনে রক্ষিত অবস্থায় ৩ হাজার ৬৫০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করেছে র‍্যাব-৪। এ ঘটনায় মো. ইউনুস নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‍্যাব।

রোববার (২৪ আগস্ট) রাতে র‍্যাব-৪ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাজেদুল ইসলাম সজল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/24/1566664805904.jpg

সাজেদুল ইসলাম সজল বলেন, 'আজ বিকেল ৫টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‍্যাব-৪ এর একটি দল কাফরুল থানাধীন সেনপাড়া পর্বতা এলাকার একটি আবাসিক ভবনের ৬ তলার ফ্ল্যাটে অভিযান পরিচালনা করে। ফ্ল্যাটটিতে অভিযানের এক পর্যায়ে একটি ব্লেন্ডার মেশিনে রক্ষিত অবস্থায় ৩ হাজার ৬৫০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়। এছাড়া এ ঘটনায় মাদক ব্যবসায়ী ইউসুফকে আটক করা হয়।'

তিনি বলেন, 'প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, ইউসুফ কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থেকে ইয়াবা ট্যাবলেট সংগ্রহ করে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় পাইকারি ও খুচরা বিক্রয় করে থাকে।'

আটকের বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে বলেও তিনি জানান।

আইভি রহমান স্মরণে মিলাদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

আইভি রহমান স্মরণে মিলাদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের সহধর্মিণী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাবেক মহিলা বিষয়ক সম্পাদক আইভি রহমানের ১৫তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শনিবার (২৪ আগস্ট) বাদ আছর আইভি কনকডে অনুষ্ঠিত এ মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে মন্ত্রী, সংসদ সদস্য, আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মী ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ এবং বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচলকগণসহ কর্মকর্তা-কর্মচারী ও আত্মীয়-স্বজন অংশ নেন।

এছাড়া আওয়ামী লীগ প্রেসিডিয়াম সদস্য মতিয়া চৌধুরী, অ্যাডভোকেট আবদুল মতিন খসরু, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমাদ হোসেন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, প্রখ্যাত অভিনেতা ও সংসদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠান (ফারুক), তথ্যসচিব আবদুল মালেক ও বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন মিলাদে যোগ দেন।

অনুষ্ঠানে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান এবং ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহত তাঁর পত্নী আইভি রহমানসহ সবার রুহের মাগফেরাত কামনা করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী আইভি রহমানের ছেলে সংসদ সদস্য নাজমুল হাসান পাপনসহ পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন এবং সমবেদনা জানান।

২০০৪ সালের ২১ আগস্ট রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আওয়ামী লীগের শান্তিপূর্ণ সমাবেশে গ্রেনেড হামলায় আইভির রহমান স্প্রিন্টারের আঘাতে গুরুতর আহত হয়ে আজকের এই দিনে মৃত্যুবরণ করেন।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র