Barta24

শনিবার, ২৪ আগস্ট ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৬

English

কোহলিই অধিনায়ক, ধোনি-হার্দিক বিশ্রামে

কোহলিই অধিনায়ক, ধোনি-হার্দিক বিশ্রামে
ধোনি ও হার্দিককে ছাড়াই মাঠে নামবেন কোহলি
স্পোর্টস ডেস্ক
বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে ভারতের নেতৃত্বে কে থাকবেন? বিরাট কোহলি নাকি রোহিত শর্মা? এনিয়ে নানা গুঞ্জন উড়ে বেড়িয়েছে গণমাধ্যমে। কোহলিকে বিশ্রাম দিয়ে রোহিতের কাঁধে নেতৃত্বভার দেওয়ার কথাও শোনা গিয়েছিল। রটে ছিল নেতৃত্ব ভাগ করে দেওয়ার গুঞ্জনও। কিন্তু শেষমেশ সব গুঞ্জন উড়িয়ে দিয়ে ক্যারিবিয়ান সফরে তিন সংস্করণেই ভারতকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন কোহলি।

শনিবারই খবর রটে যায়, ক্রিকেট থেকে এখনই অবসর নিচ্ছেন না মহেন্দ্র সিং ধোনি। যাচ্ছেন না উইন্ডিজ সফরেও। ক্রিকেট থেকে ছুটি নিয়ে যোগ দিচ্ছেন সেনাবাহিনীতে। বাস্তবে সেটাই হল। ক্যারিবিয়ান সফরের দলে নেই ধোনি। তবে চোট কাটিয়ে একদিনের ও টি-টুয়েন্টি দলে ফিরেছেন ওপেনার শিখর ধাওয়ান।

তবে তিন ধরণের ক্রিকেটেই বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে হার্দিক পান্ডিয়াকে। সীমিত ওভারের সিরিজে নেই জাসপ্রিত বুমরাহ। খেলবেন শুধু লাল বলের ম্যাচে। তবে রিশব পান্থ তিন সংস্করণেই আছেন।

সীমিত ওভারের দলে নির্বাচকরা জায়গা করে দিয়েছেন এক ঝাঁক তরুণ ক্রিকেটারকে। টি-টুয়েন্টিতে জায়গা হয়নি কেদর যাদবের। প্রত্যাশা মাফিক টেস্টে রিশব পান্থের ব্যাক-আপ হিসেবে ডাক পেয়েছেন ঋদ্ধিমান সাহা। টেস্ট দলে উমেশ যাদবকে জায়গা করে দিতে ছিটকে গেছেন ভুবনেশ্বর কুমার।

৩ আগস্ট থেকে শুরু হওয়া সফরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিনটি করে টি-টুয়েন্টি ও ওয়ানডে এবং দুটি টেস্ট খেলবে ভারত।

টেস্ট দল: বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), অজিঙ্কা রাহানে (সহ-অধিনায়ক), মায়াঙ্ক আগরওয়াল, লোকেশ রাহুল, চেতেশ্বর পূজারা, হনুমা বিহারী, রোহিত শর্মা, রিশব পান্থ, ঋদ্ধিমান সাহা, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, রবীন্দ্র জাদেজা, কুলদীপ যাদব, ইশান্ত শর্মা, মোহাম্মদ সামি, জাসপ্রিত বুমরাহ ও উমেশ যাদব।

ওয়ানডে দল: বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), রোহিত শর্মা (সহ-অধিনায়ক), শিখর ধাওয়ান, লোকেশ রাহুল, শ্রেয়াস আইয়ার, মনিশ পান্ডে, রিশব পান্থ, রবীন্দ্র জাদেজা, কুলদীপ যাদব, যুবেন্দ্র চাহাল, কেদর যাদব, মোহাম্মদ সামি, ভুবনেশ্বর কুমার, খলিল আহমেদ ও নবদীপ সাইনি।

টি-টুয়েন্টি দল: বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), রোহিত শর্মা (সহ-অধিনায়ক), শিখর ধাওয়ান, লোকেশ রাহুল, শ্রেয়াস আইয়ার, মনিশ পান্ডে, রিশব পান্থ, ক্রুনাল পান্ডিয়া, রবীন্দ্র জাদেজা, ওয়াশিংটন সুন্দর, রাহুল চাহার, ভুবনেশ্বর কুমার, খলিল আহমেদ, দীপক চাহার ও নবদীপ সাইনি।

আপনার মতামত লিখুন :

সেপ্টেম্বরেই পাকিস্তান সফরে যাচ্ছে শ্রীলঙ্কান দল

সেপ্টেম্বরেই পাকিস্তান সফরে যাচ্ছে শ্রীলঙ্কান দল
লাহোরে একই সঙ্গে ক্যামেরাবন্দি শ্রীলঙ্কা ও পাকিস্তান দল, ছবি: সংগৃহীত

এক দশকের মধ্যে সবচেয়ে দীর্ঘতম দ্বিপাক্ষিক ক্রিকেট সিরিজ আয়োজন করতে যাচ্ছে পাকিস্তান। এবং তা ঘরের মাঠেই। আগামী সেপ্টেম্বরে তাদের মেহমান হচ্ছেন শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটাররা।

পাকিস্তান সফরে তিনটি করে ওয়ানডে ও টি-টুয়েন্টি ম্যাচ খেলবে শ্রীলঙ্কা। ২৭, ২৯ সেপ্টেম্বর ও ২ অক্টোবর ওয়ানডে ম্যাচ তিনটি হবে করাচির ন্যাশনাল স্টেডিয়ামে। আর ৫, ৭ ও ৯ অক্টোবর টি-টুয়েন্টি ম্যাচ তিনটির আয়োজক শহর লাহোর।

তার মানে ১৮ মাসের মধ্যে প্রথম কোনো আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সিরিজ হতে যাচ্ছে পাকিস্তানে।

অক্টোবরে পাকিস্তান-শ্রীলঙ্কার মধ্যে দুটি টেস্ট খেলার কথা ছিল। পাকিস্তান ম্যাচ দুটি নিজেদের দেশেই খেলতে চেয়েছিল। কিন্তু শ্রীলঙ্কা তাতে সায় দেয়নি। তাই টেস্ট দুটি ডিসেম্বর পর্যন্ত স্থগিত রাখা হয়েছে। তবে সন্দেহ নেই আসন্ন সীমিত ওভারের সিরিজ পাকিস্তানে টেস্ট ক্রিকেট ফেরানোর ট্রায়াল হিসেবে কাজ করবে।

এর আগে শ্রীলঙ্কান ক্রীড়ামন্ত্রী হারিন ফার্নান্ডো জানিয়ে ছিলেন, চলতি বছরের শেষ দিকে পাকিস্তান সফরে যাচ্ছে লঙ্কান টিম। দেশটিতে টেস্ট খেলার মতো পরিস্থিতি এখনো তৈরি হয়নি। সফরে সীমিত ওভারের ম্যাচ খেলবে তারা।

শুক্রবার পিসিবি চেয়ারম্যান এহসান মানি ও এসএলসি প্রেসিডেন্ট শাম্মি সিলভার মধ্যে ফোন আলাপের পর ঠিক হয় শ্রীলঙ্কার সফরসূচি। অতিথি দল শ্রীলঙ্কা করাচিতে পৌঁছবে ২৫ সেপ্টেম্বর। সফর শেষে দেশে ফিরবে ১০ অক্টোবর।

২০১৫ সালে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে পাকিস্তান সফরে গিয়ে ছিল জিম্বাবুয়ে। ২০১৭ সালে পিএসএল ফাইনাল পাকিস্তানে হওয়ার পর দেশটিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরার পথ সুগম হয়।

লাহোরে ২০০৯ সালের মার্চে সন্ত্রাসী হামলার শিকার হওয়ার পর শ্রীলঙ্কা প্রথমবার পাকিস্তান সফরে গিয়েছিল ২০১৭ সালে। অক্টেবরে একটি টি-টুয়েন্টি খেলে তারা।

২০১৯ সালের ২১ এপ্রিল ইস্টার সানডেতে শ্রীলঙ্কায় ভয়াবহ বোমা হামলায় ২৫০ জন নিহত ও আহত হয় ৫০০ জনের অধিক। ফলে বিদেশী দলের আগমন নিয়ে শঙ্কায় পড়ে গিয়েছিল শ্রীলঙ্কা।

কিন্তু তারপরও মর্মান্তিক সেই ঘটনার এক মাস পর ৫০ ওভারের ম্যাচ খেলতে শ্রীলঙ্কা সফরে যায় পাকিস্তান অনূর্ধ্ব-১৯ দল। সেসুবাদেই দুদেশের ক্রিকেট বোর্ডের মধ্যে সম্পর্কটা হয় দৃঢ়। যার ফলশ্রুতিতে হচ্ছে এ সফর।

শ্রীলঙ্কার পাকিস্তান সফরসূচি

প্রথম ওয়ানডে - ২৭ সেপ্টেম্বর, করাচি
দ্বিতীয় ওয়ানডে - ২৯ সেপ্টেম্বর, করাচি
তৃতীয় ওয়ানডে - ২ অক্টোবর, করাচি

প্রথম টি-টুয়েন্টি - ৫ অক্টোবর, লাহোর
দ্বিতীয় টি-টুয়েন্টি - ৭ অক্টোবর, লাহোর
তৃতীয় টি-টুয়েন্টি - ৯ অক্টোবর, লাহোর

সাইফের ব্যাটে শতরান, আফিফ ৬৮

সাইফের ব্যাটে শতরান, আফিফ ৬৮
সাইফ হাসানের ব্যাটে ১১৭ রানের দারুণ এক ইনিংস

সিরিজে ১-১ সমতা। আজ শনিবার যারা জিতবে সিরিজ তাদেরই। এমনই এক ম্যাচে কথা বলল সাইফ হাসানের ব্যাট। আগের ম্যাচে হাফসেঞ্চুরির পর এবার তুলে নিয়েছেন শতরান। তার ব্যাটেই খুলনায় শনিবার শ্রীলঙ্কা ইমার্জিং দলের বিপক্ষে চ্যালেঞ্জিং পুঁজি পেয়েছে বাংলাদেশ হাই পারফরম্যান্স দল (এইচপি) দল।

তৃতীয় ও শেষ আনঅফিসিয়াল ওয়ানডেতে ৫০ ওভারে ৫ উইকেটে ২৬৯ রান করেছে স্বাগতিকরা। সাইফের ব্যাটে ১১৭, আফিফ হোসেন তুলেছেন ৬৮ রান।

শনিবার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে টস ভাগ্য ছিল শ্রীলঙ্কার পক্ষে। টস হেরে ব্যাট করতে শুরুটা অবশ্য ভালো ছিল না এইচপি দলের। শুরুতেই ফিরে যান নাঈম শেখ। তবে এরপরই নাজমুল হোসেন শান্ত-সাইফ জুটিতে দল সামলে উঠে ধাক্কা! দু'জন যোগ করেন ৭৪ রান। কিন্তু এরপরই অধিনায়ক শান্ত ফেরেন ৩৯ রানে। তাকে অনুসরণ করে ইয়াসির আলী (৬) দ্রুত ফিরলে চাপে পড়ে দল।

ঠিক তখনই সাইফ ও আফিফের ব্যাটে ফের পথ খুঁজে নেয় এইচপি দল। চতুর্থ উইকেট জুটিতে তারা করেন ১২৫ রান। সাইফ দারুণ দক্ষতায় পেয়ে যান সেঞ্চুরি।

১৩০ বলে করেন ১১৭। ৪ চার ও ৭ ছক্কায় সাজানো ছিল সাইফের ইনিংস। আফিফ ৭০ বলে করেন ৬৮ রান। ১৩ রান আসে ইয়াসিনের ব্যাটে। শ্রীলঙ্কা ইমার্জিং দলের কালানা পেরেরা শিকার করেন দুই উইকেট।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র