Barta24

সোমবার, ২২ জুলাই ২০১৯, ৭ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

চোখের জল ফেলে বিশ্বকাপের মঞ্চ ছাড়লেন ধাওয়ান

চোখের জল ফেলে বিশ্বকাপের মঞ্চ ছাড়লেন ধাওয়ান
হতাশা নিয়েই বিশ্বকাপ শেষ শিখর ধাওয়ানের
সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

আশায় ছিলেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি। মনে করেছিলেন সেমি-ফাইনাল আর ফাইনাল ম্যাচের আগে ফিট হয়ে উঠবেন শিখর ধাওয়ান। কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না। অপ্রত্যাশিতভাবেই বিশ্বকাপ শেষ হয়ে গেল এই তারকা ক্রিকেটারের। একদিন আগেই ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট জানিয়ে দিয়ে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে আর খেলতে পারছেন না এই ওপেনার।

তার বদলে রিশব পান্ত এখন ভারতীয় দলের সদস্য। আইসিসি’র ইভেন্ট টেকনিক্যাল কমিটির অনুমোদনও পেয়ে গেছে ভারত।

এভাবে বিশ্বকাপ শেষ হওয়ায় যারপরনাই হতাশ ধাওয়ান। অফিসিয়ালি দল ছাড়ার আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্রিকেটপ্রেমীদের উদ্দেশ্যে আবেগঘন বার্তা দিলেন শিখর ধাওয়ান। নিজের অফিসিয়াল টুইটার পেজে ধাওয়ান একটি ভিডিও পোস্ট করেন তিনি।

ধাওয়ান বলেন, ‘আপনাদের সবার সমর্থন আর প্রার্থনায় আপ্লুত হয়ে এই ভিডিওটি পোস্ট করেছি আমি। দূর্ভাগ্যজনক ব্যাপার হল-আমার আমার বুড়ো আঙুলের চোট ঠিক সময়ে সেরে ওঠা সম্ভব নয়। আমি মরিয়া হয়ে বিশ্বকাপে দেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করতে চেয়েছি। কিন্তু এখন আমাকে ফিরে যেতে হবে আর সুস্থ হয়ে পরবর্তী মিশনের জন্য প্রস্তুত হতে হবে। আমার সতীর্থরা বিশ্বকাপে দারুণ খেলে যাচ্ছে। আমি নিশ্চিত ওরা আরও ভালো খেলবে আর বিশ্বকাপ জিতবে। আমাদের জন্য সবাই প্রার্থনা করুন। আপনাদের প্রার্থনা আর সমর্থন আমার খুবই প্রয়োজন।’

এখানেই শেষ নয়, সেই ভিডিওর সঙ্গে অশ্রুসজল শিখর ধাওয়ান লিখেছেন, ‘এটা বলতে নিজেকে আবেগতাড়িত মনে হচ্ছে যে, আমি আর বিশ্বকাপ মিশনের অংশ থাকছি না। দূর্ভাগ্যের বিষয় হল আমার বুড়ো আঙুল ঠিক সময়ে সারবে না। কিন্তু খেলা তো চলতে থাকবে। সবার সমর্থনে আমি কৃতার্থ। জয় হিন্দ।’

কেনিংটন ওভালে ৯ জুন ওভালে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ব্যাটিংয়ের সময় বাঁ-হাতের বুড়ো আঙুলে চোট পান ধাওয়ান। কোল্টার-নাইলের ও প্যাট কামিন্সের বলও আঘাত হাতে তার হাতে। ম্যাচে দুবার আঘাত নিয়েও শতরান করেন তিনি। সেই চোটই শেষ করে দিয়েছে ভারতীয় এই ক্রিকেটারের বিশ্বকাপ।

অজিদের বিপক্ষে ধাওয়ান খেলেন ১০৯ বলে ১১৭ রানের দারুণ এক ইনিংস! চোটের কারণে পরে ফিল্ডিং করেননি। এরপর স্ক্যান করে প্রতিবেদনে জানা যায়- তার বৃদ্ধাঙ্গুলির হাড়ে চিড় ধরা পড়েছে। সেই চোটেই শেষ বিশ্বকাপ!

ধাওয়ানের সেই ভিডিও বার্তা-

আপনার মতামত লিখুন :

জ্ঞান ফিরতেই কোচের প্রশ্ন, ‘স্কোর কী?’

জ্ঞান ফিরতেই কোচের প্রশ্ন, ‘স্কোর কী?’
মাঠেই অজ্ঞান হয়ে যান ডাইনামো কোচ ইউজেন নেয়াগো (বাঁয়ে)

ইউনিভার্সিটাটিয়া ক্রাইওবার বিপক্ষে মাঠে লড়ছিল ক্লাব ডাইনামো বুখারেস্ট। ডাইনামো কোচ ইউজেন নেয়াগো বেঞ্চে বসেই উপভোগ করছিলেন শিষ্যদের খেলা। কিন্তু ক্লাব ফুটবলারদের বিক্ষিপ্ত পারফরম্যান্স দেখে দুশ্চিন্তায় পড়ে যান কোচ।

এতোটাই দুশ্চিন্তায় ছিলেন যে ম্যাচের ২৫ মিনিটের মাথায় হঠাৎ করেই শ্বাস-প্রশ্বাস বেড়ে যায় কোচ নেয়াগোর। এবং এক পর্যায়ে অজ্ঞান হয়ে পড়েন তিনি।

অনাকাঙ্ক্ষিত এ ঘটনায় থমকে যায় ন্যাশনাল অ্যারেনায় রোমানিয়ান লিগা ওয়ানের ম্যাচটি। ১৫ মিনিট ধরে চলে তার সেবা-শুশ্রুষা। পরে অ্যাম্বুলেন্সে করে বুখারেস্টের ফ্লোরিয়াস্কা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় নেয়াগোকে।

হাসপাতালে জ্ঞান ফেরার পর চিকিৎসকদের কাছে ৫১ বছরের এ কোচের প্রশ্ন শুনলে আপনি অবাক হয়ে যাবেন! সবাইকে তাজ্জব বানিয়ে তিনি জানতে চান ‘স্কোর কী?’ তবে উত্তরে ভালো খবর পাননি তিনি। কারণ রোববারের ম্যাচে তার দল যে হেরে গেছে ২-০ গোলে। আসলে এ ব্যাপারটা আঁচ করতে পেরেই অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি।

সন্দেহ করা হচ্ছে, কোচ নেয়াগো হার্ট অ্যাটাকের শিকার হয়ে ছিলেন। তবে চিকিৎসকরা স্পষ্ট করে কিছু জানাননি। তারা শুধু জানিয়েছেন, তিনি এখন ভালো আছেন। কঠিন পরিস্থিতি সামলে সবার সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছেন। তবে দুই দিনের নিবিড় পর্যবেক্ষণে থাকতে হবে তাকে।

এর আগে ২০১৬ সালে ডাইনামো বুখারেস্টের মিডফিল্ডার প্যাট্রিক একেং হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মাঠেই মারা যান।

রাজশাহী কিংসেই থাকছেন ক্লুজনার

রাজশাহী কিংসেই থাকছেন ক্লুজনার
বিপিএলে দল পাল্টাচ্ছেন না কোচ ল্যান্স ক্লুজনার

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) গত আসরে রাজশাহী কিংসের প্রধান কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন ল্যান্স ক্লুজনার। ডিসেম্বরে অনুষ্ঠেয় বিপিএলের আগামী আসরেও একই দলে থাকছেন তিনি। মানে রাজশাহীতেই থেকে যাচ্ছেন দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক এ তারকা অলরাউন্ডার।

টুর্নামেন্টের আগামী আসরকে সামনে রেখে রাজশাহী কিংসের সঙ্গে ক্লুজনার ইতোমধ্যে চুক্তি নবায়ন করেছেন। খবরটা নিশ্চিত করে ফ্র্যাঞ্চাইজিটি নিজেদের অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টে এক টুইটে জানায়, “রাজশাহী কিংস খুশীর সঙ্গে ঘোষণা করছে যে ল্যান্স ‘দ্য জুলু’ ক্লুজনার বিপিএলের আগামী মৌসুমে আমাদের প্রধান কোচ হিসেবে থেকে যাচ্ছেন।”

ক্লুজনারের অধীনে পঞ্চম হয়ে বিপিএলের গত আসর শেষ করে রাজশাহী। ১২ ম্যাচে ৬ জয় ও ৬ হারে ১২ পয়েন্ট নিয়েও প্লে-অফের টিকিট পায়নি তারা। কিন্তু তাদের সমান পয়েন্ট নিয়েও চতুর্থ দল হিসেবে শেষ দিকে শেষ চারে জায়গা করে নেয় ঢাকা ডায়নামাইটস। শুধু রান-রেটে পিছিয়ে থাকায় স্বপ্ন ভেঙে যায় রাজশাহীর। তবে সন্দেহ নেই, সেই দুর্ভাগ্যটা ভুলে এবার নতুন করে সামনে এগিয়ে যাবে তারা।

রাজশাহীতে ক্লুজনারের পূর্বসূরী ছিলেন নিউজিল্যান্ডের ড্যানিয়েল ভেট্টোরি। কিন্তু গত আসরটা পিছিয়ে গেলে দায়িত্ব ছেড়ে দেন সাবেক এ কিউই অধিনায়ক। এই সুযোগে তার উত্তরসূরি হিসেবে দলে যোগ দেন ক্লুজনার।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র