Barta24

সোমবার, ২২ জুলাই ২০১৯, ৭ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

‘বিশ্বকাপ জয় পাকিস্তানের জন্য দিবাস্বপ্ন’

‘বিশ্বকাপ জয় পাকিস্তানের জন্য দিবাস্বপ্ন’
বিশ্বকাপে পাকিস্তানের আশা দেখছেন না কামরান আকমল- ছবি: টুইটার
স্পোর্টস ডেস্ক
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

ওল্ড ট্রাফোর্ডে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের কাছে ৮৯ রানে হারের লজ্জা হজম করে মানসিকভাবে অনেকটাই ভেঙে পড়েছে পাকিস্তানের ক্রিকেটাররা। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভক্ত-সমর্থক ও সাবেক ক্রিকেটারদের সমালোচনার বন্যায় রীতি মতো ভেসে যাচ্ছেন তারা।

সমালোচকদের তালিকায় আছেন কামরান আকমলও। পাকিস্তানের এ উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যানের মতে, পাকিস্তানের পক্ষে এবার বিশ্বকাপ জেতা সম্ভব নয়, ‘পাকিস্তানের বিশ্বকাপ জয়ের চিন্তা মানেই দিবাস্বপ্ন ছাড়া আর কিছুই নয়।’

বিশ্বকাপে পাকিস্তানের সম্ভাবনা নিয়ে কামরান আকমল বলেন, ‘পাকিস্তানের তো শেষ চারে খেলার যোগ্যতাই নেই। তাদের কাছে বিশ্বকাপ ট্রফি প্রত্যাশা আর দিনের বেলা স্বপ্ন দেখা একই। পাকিস্তানের ব্যাটিং লাইন-আপ একেবারেই যাচ্ছে তাই। এমনকি অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদের মধ্যে নেতৃত্ব গুণের ছিটে-ফোঁটাও নেই। শুরু থেকে ভুল করে আসছেন তিনি। যা সবার জন্য কষ্টদায়ক।’

পাকিস্তানের পক্ষে বড় কোনো প্রতিপক্ষকে হারানো সম্ভব নয়। তাই বিশ্বকাপে প্রিয় দলকে নিয়ে আর কোনো স্বপ্ন দেখতে চান না কামরান। তবে মন থেকে চান সম্মানজনক অবস্থান থেকে বিশ্বকাপ মিশন শেষ করুক তার দেশ।

এনিয়ে কামরান বলেন, ‘আগেই বলেছিলাম, শক্তিশালী প্রতিদ্বন্দ্বীকে হারানোর সামর্থ্য নেই পাকিস্তানের। দল নির্বাচনই ছিল প্রশ্নবিদ্ধ। ওয়ানডে ক্রিকেটের মহাযজ্ঞ নিয়ে কোনো রণকৌশল, প্রস্তুতির তোড়জোড় কিছুই ছিল না। পাকিস্তান দলের এখন লক্ষ্য হওয়া উচিত বাকি ম্যাচ গুলোতে যতটা সম্ভব জয় ছিনিয়ে নেওয়া। এবং মর্যাদার জায়গা থেকে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নেওয়া।’

ইংল্যান্ড ও ওয়েলস বিশ্বকাপে সময়টা মোটেই ভালো যাচ্ছে না পাকিস্তানের। পাঁচ ম্যাচ খেলে এক জয় (ইংল্যান্ডের বিপক্ষে) আর তিন হারে (ওয়েস্ট ইন্ডিজ, অস্ট্রেলিয়া ও ভারতের বিপক্ষে) ৩ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার নবম স্থানে এখন তারা। বৃষ্টির কারণে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তাদের ম্যাচ মাঠে গড়ায়নি।

শেষ চারে খেলতে হলে নিজেদের বাকি চার ম্যাচের (দক্ষিণ আফ্রিকা, নিউজিল্যান্ড, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশের বিপক্ষে) প্রতিটি জিততে হবে। ১৯৯২ বিশ্বকাপ জয়ীদের জন্য যা কষ্টসাধ্য। সঙ্গে প্রতিপক্ষের হার কামনা করে চোখ রাখতে হবে রানরেটের দিকে।

রোববার পাকিস্তান মাঠে নামবে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে।

আপনার মতামত লিখুন :

জ্ঞান ফিরতেই কোচের প্রশ্ন, ‘স্কোর কী?’

জ্ঞান ফিরতেই কোচের প্রশ্ন, ‘স্কোর কী?’
মাঠেই অজ্ঞান হয়ে যান ডাইনামো কোচ ইউজেন নেয়াগো (বাঁয়ে)

ইউনিভার্সিটাটিয়া ক্রাইওবার বিপক্ষে মাঠে লড়ছিল ক্লাব ডাইনামো বুখারেস্ট। ডাইনামো কোচ ইউজেন নেয়াগো বেঞ্চে বসেই উপভোগ করছিলেন শিষ্যদের খেলা। কিন্তু ক্লাব ফুটবলারদের বিক্ষিপ্ত পারফরম্যান্স দেখে দুশ্চিন্তায় পড়ে যান কোচ।

এতোটাই দুশ্চিন্তায় ছিলেন যে ম্যাচের ২৫ মিনিটের মাথায় হঠাৎ করেই শ্বাস-প্রশ্বাস বেড়ে যায় কোচ নেয়াগোর। এবং এক পর্যায়ে অজ্ঞান হয়ে পড়েন তিনি।

অনাকাঙ্ক্ষিত এ ঘটনায় থমকে যায় ন্যাশনাল অ্যারেনায় রোমানিয়ান লিগা ওয়ানের ম্যাচটি। ১৫ মিনিট ধরে চলে তার সেবা-শুশ্রুষা। পরে অ্যাম্বুলেন্সে করে বুখারেস্টের ফ্লোরিয়াস্কা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় নেয়াগোকে।

হাসপাতালে জ্ঞান ফেরার পর চিকিৎসকদের কাছে ৫১ বছরের এ কোচের প্রশ্ন শুনলে আপনি অবাক হয়ে যাবেন! সবাইকে তাজ্জব বানিয়ে তিনি জানতে চান ‘স্কোর কী?’ তবে উত্তরে ভালো খবর পাননি তিনি। কারণ রোববারের ম্যাচে তার দল যে হেরে গেছে ২-০ গোলে। আসলে এ ব্যাপারটা আঁচ করতে পেরেই অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি।

সন্দেহ করা হচ্ছে, কোচ নেয়াগো হার্ট অ্যাটাকের শিকার হয়ে ছিলেন। তবে চিকিৎসকরা স্পষ্ট করে কিছু জানাননি। তারা শুধু জানিয়েছেন, তিনি এখন ভালো আছেন। কঠিন পরিস্থিতি সামলে সবার সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছেন। তবে দুই দিনের নিবিড় পর্যবেক্ষণে থাকতে হবে তাকে।

এর আগে ২০১৬ সালে ডাইনামো বুখারেস্টের মিডফিল্ডার প্যাট্রিক একেং হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মাঠেই মারা যান।

রাজশাহী কিংসেই থাকছেন ক্লুজনার

রাজশাহী কিংসেই থাকছেন ক্লুজনার
বিপিএলে দল পাল্টাচ্ছেন না কোচ ল্যান্স ক্লুজনার

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) গত আসরে রাজশাহী কিংসের প্রধান কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন ল্যান্স ক্লুজনার। ডিসেম্বরে অনুষ্ঠেয় বিপিএলের আগামী আসরেও একই দলে থাকছেন তিনি। মানে রাজশাহীতেই থেকে যাচ্ছেন দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক এ তারকা অলরাউন্ডার।

টুর্নামেন্টের আগামী আসরকে সামনে রেখে রাজশাহী কিংসের সঙ্গে ক্লুজনার ইতোমধ্যে চুক্তি নবায়ন করেছেন। খবরটা নিশ্চিত করে ফ্র্যাঞ্চাইজিটি নিজেদের অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্টে এক টুইটে জানায়, “রাজশাহী কিংস খুশীর সঙ্গে ঘোষণা করছে যে ল্যান্স ‘দ্য জুলু’ ক্লুজনার বিপিএলের আগামী মৌসুমে আমাদের প্রধান কোচ হিসেবে থেকে যাচ্ছেন।”

ক্লুজনারের অধীনে পঞ্চম হয়ে বিপিএলের গত আসর শেষ করে রাজশাহী। ১২ ম্যাচে ৬ জয় ও ৬ হারে ১২ পয়েন্ট নিয়েও প্লে-অফের টিকিট পায়নি তারা। কিন্তু তাদের সমান পয়েন্ট নিয়েও চতুর্থ দল হিসেবে শেষ দিকে শেষ চারে জায়গা করে নেয় ঢাকা ডায়নামাইটস। শুধু রান-রেটে পিছিয়ে থাকায় স্বপ্ন ভেঙে যায় রাজশাহীর। তবে সন্দেহ নেই, সেই দুর্ভাগ্যটা ভুলে এবার নতুন করে সামনে এগিয়ে যাবে তারা।

রাজশাহীতে ক্লুজনারের পূর্বসূরী ছিলেন নিউজিল্যান্ডের ড্যানিয়েল ভেট্টোরি। কিন্তু গত আসরটা পিছিয়ে গেলে দায়িত্ব ছেড়ে দেন সাবেক এ কিউই অধিনায়ক। এই সুযোগে তার উত্তরসূরি হিসেবে দলে যোগ দেন ক্লুজনার।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র