Barta24

সোমবার, ২২ জুলাই ২০১৯, ৬ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

মাঠে না নেমেই বিশ্বকাপ শেষ!

মাঠে না নেমেই বিশ্বকাপ শেষ!
দুঃস্বপ্নের মতো বিশ্বকাপ শেষ হলো ডেল স্টেইনের
সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

দুর্ভাগ্য! ঠিক তাই। ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের মাঠেই নামতে পারলেন না তিনি। তার আগেই সর্বনাশ!

চোট নিয়ে ইংল্যান্ড ও বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচ দুটোতে ছিলেন ড্রেসিংরুমে। দলের হার দেখে ফেরার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন ডেল স্টেইন। কিন্তু কে জানতো এভাবে মাঠের বাইরে থেকেই শেষ হয়ে যাবে তার বিশ্বকাপ?

ভারতের বিপক্ষে বুধবারের ম্যাচের আগে শুনতে হয়েছে দুঃসংবাদ! কাঁধের ইনজুরিতে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গেলেন তারকা পেসার ডেইল স্টেইন। তাকে ছাড়াই এই বিশ্বকাপে লড়তে হবে প্রোটিয়াদের। বয়স ৩৫ ছাড়িয়েছে। সন্দেহ নেই এটিই ছিল এই পেসারের শেষ বিশ্বকাপ। কে জানে এবার হয়তো ক্যারিয়ারটাও শেষ হয়ে যাচ্ছে স্টেইনের। 

এই পেসারের বিকল্পও খুঁজে নিয়েছে প্রোটিয়ারা। বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা আইসিসি এক টুইটে জানিয়েছে দলে জায়গা পেলেন বাঁ-হাতি পেসার বেয়ুরান হেনরিক্স। মাত্র দুই ওয়ানডে খেলা ক্রিকেটারকেই দলে নিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকান টিম ম্যানেজম্যান্ট।

সন্দেহ নেই 'স্টেনই-গান' হারিয়ে বিপাকে পড়কে দক্ষিণ আফ্রিকা। কারণ আরেক পেসার লুঙ্গি এনগিডিও চোটে আছেন। তবে কাগিসো রাবাদা, আন্দিলে ফেলুকায়ো ও ক্রিস মরিসরা আছেন দলে।

স্টেইনকে কাঁধের ইনজুরি ভোগাচ্ছিল অনেক দিন ধরেই। ২০১৬ সালে অস্ত্রোপচারও করিয়েছিলেন। তারপর বিরতি শেষে মাঠেও ফেরেন। বিশ্বকাপ নিয়ে পরিকল্পনা ছিল তার। কিন্তু মাঠেই যে নামতে পারলেন না!

বলা হচ্ছে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) খেলতে গিয়েই সর্বনাশ হয় স্টেইনের। রয়্যাল চ্যালেঞ্জার ব্যাঙ্গালুরুর হয়ে দুই ম্যাচ খেলেই চোটে পড়েন তিনি। সেই ধাক্কা সামলে উঠতে লড়ছিলেন। কিন্তু ভাগ্য সঙ্গে থাকল না!

স্টেইনের বিদায়ে দারুণ হতাশ ফাফ দু প্লেসিস। প্রোটিয়া অধিনায়ক বলছিলেন, ‘দলে ফিরতে অনেক পরিশ্রম করেছিল স্টেইন। নিজের শেষ বিশ্বকাপে মাঠে থাকতে তার চেষ্টার সাক্ষী আমরা। কিন্তু কিছুই করার নেই। স্টেইন ফিট হতে পারল না। আইপিএলে খেলা দুই ম্যাচেই ইনজুরিতে পড়েেন তিনি। এই টুর্নামেন্টে না খেললে হয়তো অন্যকিছুও হতে পারতো।’

অন্যকিছু হয়নি। হতাশা নিয়েই ফিরে যাচ্ছেন স্টেইন। বিশ্লেষকরা বলছেন এবার হয়তো ক্যারিয়ারেও ইতি টানতে পারেন ১২৫ ওয়ানডে খেলা এই পেসার!

আপনার মতামত লিখুন :

আইসিসির হয়ে খেলবেন বাংলাদেশের জাহানারা-ফারজানা

আইসিসির হয়ে খেলবেন বাংলাদেশের জাহানারা-ফারজানা
আইসিসির দলে জায়গা পেলেন জাহানারা ও ফারজানা

অনন্য সম্মান পেলেন বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের দুই সদস্য। আইসিসি গ্লোবাল ডেভেলপমেন্ট স্কোয়াডে ডাক পেলেন জাহানারা আলম ও ফারজানা হক। বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থার এই দলটির হয়ে খেলতে ইংল্যান্ডে যাবেন তারা। র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ আটের বাইরে থাকা দেশের সেরা খেলোয়াড়দের নিয়ে এই দল গঠন করা হয়েছে।

কিছুদিন আগেই বাংলাদেশের প্রথম নারী ক্রিকেটার হিসেবে খেলে এসেছেন ভারতের টি-টুয়েন্টি ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে। বল হাতে দাপটও দেখিয়েছেন জাহানারা আলম। সেই সাফল্যের পথ ধরে এবার আইসিসির গ্লোবাল ডেভেলপমেন্ট স্কোয়াডে খেলার সুযোগ মিলেছে। ৮ বছর ধরে জাতীয় দলে খেলা জাহানারার ক্যারিয়ারে নতুন আরেক অর্জন যোগ হচ্ছে এবার।

জাহানারার সঙ্গে আছেন বাংলাদেশের ব্যাটার ফারজানা হক। যিনি জাতীয় দলের জার্সিতে এরইমধ্যে খেলেছেন ৩৫টি ওয়ানডে ম্যাচ। জাতীয় দলে নিজের জায়গাটা বেশ পোক্ত করে নিয়েছেন তিনি।

সব কিছু ঠিক থাকলে ২৫ জুলাই রাতে ইংল্যান্ডের পথে ঢাকা ছাড়বেন জাহানারা ও ফারজানা। দশদিন তাদের দেশটিতে থাকার কথা রয়েছে।

এই সফরে ইংল্যান্ড সুপার লিগের দলগুলোর বিপক্ষে পাঁচটি টি-টুয়েন্টি ম্যাচ খেলবে আইসিসি ডেভেলপমেন্ট দল।

ইমরুল-সাব্বিরদের ফের লজ্জায় ডুবাল আফগানরা

ইমরুল-সাব্বিরদের ফের লজ্জায় ডুবাল আফগানরা
টানা দ্বিতীয় ওয়ানডেতে হতাশ করলেন ইমরুল কায়েসরা

সেই একই গল্প! ব্যর্থতার বৃত্তেই হাঁটছে বাংলাদেশ ‘এ’ দল। আরো একবার আফগানিস্তানের সামনে নাজেহাল ইমরুল কায়েসরা। আগের ম্যাচে দল হেরেছিল ১০ উইকেটে। এবার স্বাগতিকদের ৪ উইকেটে হারাল আফগানিস্তান ‘এ’ দল।

রোববার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় আনঅফিশিয়াল ওয়ানডেতেও চেনা গেল না বাংলাদেশের তারকাদের। এনিয়ে টানা দুই ম্যাচ হারল তারা। এই জয়ে পাঁচ ম্যাচ সিরিজে ২-০ তে এগিয়ে গেল আফগানিস্তান। এর আগে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ তারা জিতেছিল ১-০ ব্যবধানে।

যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটির বিপক্ষে বেশ শক্তিশালী দল নিয়েই নেমেছিল বাংলাদেশ ‘এ’। দলে ইমরুল কায়েস, এনামুল হক, বিজয়, মোহাম্মদ মিঠুন ও সাব্বির রহমানদের সঙ্গে ফরহাদ রেজা, আবু জায়েদ রাহি, শফিউল ইসলাম, আবু হায়দার রনিরা ছিলেন। কিন্তু তাদেরও পাত্তা দেয়নি আফগানরা।

এদিন টস হেরে শুরুতে ব্যাটিংয়ে নামে বাংলাদেশ দল। ৫০ ওভারে তারা ৯ উইকেট হারিয়ে করে ২৭৮ রান। জবাবে নেমে ৪৯.১ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে নোঙর করে সফরকারীরা।

টস ভাগ্যটা সঙ্গে না থাকলেও ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশের শুরুটা মন্দ ছিল না। ৫৬ রানের জুটি গড়েন এনামুল ও ইমরুল। জাতীয় দলের মিশনে যোগ দেওয়ার আগে এনামুল তুলেন ২৪ বলে ২৬। এরপর ইমরুল ফেরেন ৪০ রানে।

দুই ওপেনারের পর কিছুটা সময় লড়াই করলেন মোহাম্মদ নাঈমও। তবে ৪৯ রান তিনি ধরেন সাজঘরের পথ। মিঠুন ৯৪ বলে ৮৫ রান তুললে বাংলাদেশ পায় লড়াকু পুঁজি। শেষ দিকে ৩৮ বলে ৩৫ রান করেন সাব্বির।

জবাবে নামা আফগান দলকে অবশ্য শুরুতেই কোণঠাসা করে ফেলেছিল বাংলাদেশ। দলীয় ২৮ রানে উদ্বোধনী জুটিতে ভাঙ্গন ধরান শফিউল ইসলাম। তারপর অবশ্য দারুণ লড়েছেন ইব্রাহিম জাদরান। তার ব্যাটে এগিয়ে গেছে সফরকারীরা। ১৪৯ বলে ১২৭ রান করে তুলেন তিনি।

জিততে আফগানদের শেষ ২৩ বলে দরকার ছিল ৩৫ রান। আর বাংলাদেশের ৪ উইকেট। এ অবস্থায় সপ্তম উইকেট জুটিতে শরাফুদ্দিন আশরাফ ও ফজল নিয়াজাই হতাশ করেন স্বাগতিক বোলারদের। ৫ বল হাতে রেখেই দল পেয়ে যায় দারুণ এক জয়। ১৭ বল ৩৬ রান করেন আশরাফ। ৮ বলে ১৫ রানে অপরাজিত নিয়াজাই।

সংক্ষিপ্ত স্কোর-

বাংলাদেশ ‘এ’ দল: ৫০ ওভারে ২৭৮/৯ (ইমরুল ৪০, এনামুল ২৬, মিঠুন ৮৫, নাঈম ৪৯, সাব্বির ৩৫, আফিফ ৮, রেজা ১, মেহেদি ১০, আবু হায়দার ৭*, শফিউল ০, আবু জায়েদ ১*; শিরজাদ ১/৫৪, আশরাফ ১/৩৭, করিম ৩/৪৩, ফজল ৩/৪৮)
আফগানিস্তান ‘এ’ দল: ৪৯.১ ওভারে ২৮১/৬ (রহমানউল্লাহ ২১, ইব্রাহিম ১২৭, উসমান ২৬, নাসির ১১, রাসুলি ৭, করিম ২৪, আশরাফ ৩৬*, ফজল ১৫*; শফিউল ২/৫৯, আবু জায়েদ ১/৫৮, রেজা ৪২/০, মেহেদি ০/৩৪, আবু হায়দার ১/৫৬, সাব্বির ১/১০)
ফল: ৪ উইকেটে জয়ী আফগানিস্তান ‘এ’ দল

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র