Barta24

মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

বিশ্বকাপের অন্যরকম উদ্বোধনী অনুষ্ঠান

বিশ্বকাপের অন্যরকম উদ্বোধনী অনুষ্ঠান
লন্ডনের দ্য মলে অনুষ্ঠিত হবে ক্রিকেট বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান
সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

ক্ষণ গণনা শেষ! এবার বিশ্বকাপে মাঠের যুদ্ধ শুরুর অপেক্ষা। ৩০ মে, বৃহস্পতিবার শুরু ওয়ানডে ক্রিকেটের শ্রেষ্টত্বের লড়াই। তার আগে বুধবার জমকালো উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দিয়েই পথচলা শুরু হবে দ্বাদশ বিশ্বকাপ ক্রিকেটের। বাংলাদেশ সময় রাত ১০টায় বাকিংহ্যাম প্যালেসের সামনে বিখ্যাত ‘দ্য মলে’ শুরু হবে আলো ঝলমলে অনুষ্ঠান।

‘ওপেনিং পার্টি’ দিয়েই ব্যাট-বলের সেরা এই আয়োজনে বিশ্বকে আমন্ত্রণ জানাবে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস। ২০ বছর পর ফের দেশটিতে বসছে ওয়ানডে বিশ্বকাপ ক্রিকেটের লড়াই। প্রথম ম্যাচে বৃহস্পতিবার স্বাগতিক ইংল্যান্ড লড়বে দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে।

এবারের বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান একটু ভিন্নভাবেই অনুষ্ঠিত হবে। অন্যসব ক্রীড়া আসরের এই আয়োজন হয়ে থাকে স্টেডিয়ামে বড় পরিসরে। কিন্তু ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে ছোট্ট করেই হবে এই উদ্বোধনী। যার নাম আয়োজকরা দিয়েছেন ‘ওপেনিং পার্টি’। অন্যরকম উদ্বোধনী অনুষ্ঠান আয়োজন করছে আইসিসি।

লন্ডন মলের সঙ্গে অনেক আবেগ আর ইতিহাস জড়িয়ে আছে ব্রিটিশদের। তাদের ঐতিহ্যের অংশ হয়ে আছে এই মল। এ কারণেই আইসিসি বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের ভেন্যু হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছে এই মলটিকে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/29/1559122950103.jpg

সরাসরি সামনে বসে এই আয়োজন দেখার সুযোগ পাবেন সৌভাগ্যবানরাই। ফ্রি টিকিটে বিশ্বের চার হাজার ক্রিকেটপ্রেমীকে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দেখার সুযোগ করে দিয়েছে আইসিসি। তবে টেলিভিশনের পর্দাতেও দেখা যাবে এই আয়োজন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সরাসরি দেখাবে স্টার স্পোর্টস নেটওয়ার্ক। বাংলাদেশে জিটিভি, মাছরাঙা টিভি ও বিটিভি সরাসরি সম্প্রচার হবে ১২তম বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। ২০০ কোটিরও বেশি দর্শক দেখবেন এই আয়োজন।

এক ঘণ্টা ব্যাপি এই আয়োজনে ক্রিকেট উদযাপন, সংগীত ও সংস্কৃতির দৃষ্টিনন্দন মেলবন্ধন চোখে পড়বে। যদিও অনুষ্ঠানটি নিয়ে লুকোচুরি খেলছেন আয়োজকরা। কারা থাকছেন পারফরমার তা প্রকাশ করেনি আয়োজক কর্তৃপক্ষ।

তবে দেখা যাবে এবারের বিশ্বকাপে অংশগ্রহণকারী ১০ দলের ক্রিকেটারদের। তার আগে অধিনায়করা দেখা করবেন ব্রিটেনের রানী এলিজাবেথের সঙ্গে। তারপরই মাশরাফি বিন মর্তুজা আর বিরাট কোহলিরা যাবেন লন্ডন মলে।

আপনার মতামত লিখুন :

মিঠুনের দাপুটে ব্যাটিংয়ে দুর্দান্ত জয় বাংলাদেশের

মিঠুনের দাপুটে ব্যাটিংয়ে দুর্দান্ত জয় বাংলাদেশের
জয় দিয়েই প্রস্তুতি পর্ব শেষ বাংলাদেশ দলের

বড় চ্যালেঞ্জই ছুঁড়ে দিয়েছিল শ্রীলঙ্কা বোর্ড প্রেসিডেন্ট একাদশ। মনে হচ্ছিল উত্তেজনা ছড়াবে প্রস্তুতি ম্যাচে। কিন্তু বাংলাদেশ দল সুযোগ দেয়নি স্বাগতিকদের। আসল লড়াইয়ের আগে দুর্দান্ত এক জয় তুলে নিয়েছে তামিম ইকবালের দল। তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের আগে আত্মবিশ্বাসটা বাড়িয়ে নিয়েছেন টাইগার ক্রিকেটাররা।

মঙ্গলবার কলম্বোতে অনুষ্ঠিত প্রস্তুতি ম্যাচটি ৫ উইকেটে জিতেছে বাংলাদেশ।

টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামে শ্রীলঙ্কা বোর্ড প্রেসিডেন্ট একাদশ। বাংলাদেশের বোলিং আক্রমণ উড়িয়ে দিয়ে তারা করে ৮ উইকেটে ৫০ ওভারে ২৮২ রান। জবাব দিতে নেমে ৪৮.১ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় টাইগাররা। মোহাম্মদ মিঠুনের ব্যাট থেকে আসে ৯১ রান।

তামিম ইকবাল-সৌম্য সরকারের ব্যাটে শুরুটা একেবারে মন্দ ছিল না বাংলাদেশের। দলীয় ৪৫ রানে সাজঘরের পথ ধরেন সৌম্য (১৩)। এরপর তামিম ৪৭ বলে ৩৭ রানে ফিরলে চাপে পড়ে টাইগাররা। তবে তখনই হাল ধরেন মোহাম্মদ মিঠুন ও মুশফিকুর রহিম। তারা গড়েন ৭৩ রানের জুটি।

ইনজুরি কাটিয়ে ওঠা মুশফিকুর রহিম ফেরেন ঠিক ৫০ রানে। ৪৬ বলের ইনিংসে ছিল ৬ বাউন্ডারি ও ১ ছক্কা। তবে লড়ে গেছেন মিঠুন। সেঞ্চুরির পথেই ছিলেন তিনি। তবে নার্ভাস ৯১ রানে এসে পথ হারান তিনি। ১০০ বলে ১১ বাউন্ডারি আর ১ ছক্কায় এই ইনিংস খেলেন তিনি। এর আগেই অবশ্য ৩৩ রান তুলে ফেরেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

তারপর বাকীটা পথ পাড়ি দেন সাব্বির রহমান (৩১) ও মোসাদ্দেক হোসেন (১৫)। ১১ বল হাতে রেখেই ধরা দেয় জয়! শ্রীলঙ্কার লাহিরু কুমারা নেন দুটি উইকেট।

এর আগে ব্যাট করতে নেমে নিরোশান ডিকভেলার দল শুরুতেই পড়েছিল চাপে। ৩২ রানে ৩ উইকেট হারালেও শেষ পর্যন্ত বড় সংগ্রহ তুলে তারা।

কলম্বোতে টসে হেরে ফিল্ডিংয়ে নামে তামিম ইকবালের দল। আর শুরুতেই চেপে ধরেছিল স্বাগতিকদের। কিন্তু শুরুর ধাক্কা সামলে লঙ্কান বোর্ড প্রেসিডেন্ট একাদশ গড়ে বড় সংগ্রহ। ম্যাচে দাসুন শানকা ৬৩ বলে খেলেন ৮৬ রানের অপরাজিত এক ইনিংস। শেহান জয়সুরিয়ার ব্যাটে ৭৮ বলে ৫৬।

বাংলাদেশের পক্ষে রুবেল হোসেন ও সৌম্য সরকার নেন দুটি করে উইকেট। মুস্তাফিজুর রহমান ও তাসকিন আহমেদ শিকার করেছেন একটি করে উইকেট। ম্যাচে ৯ বোলারকে দিয়ে বল করিয়েছেন অধিনায়ক তামিম।

প্রস্তুতি ম্যাচ শেষে এবার আসল লড়াই। ২৬, ২৮ ও ৩১ জুলাই স্বাগতিক শ্রীলঙ্কার সঙ্গে তিনটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ দল।

পাকিস্তানের মাটিতে টেস্ট খেলবে শ্রীলঙ্কা?

পাকিস্তানের মাটিতে টেস্ট খেলবে শ্রীলঙ্কা?
শ্রীলঙ্কাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অংশ হিসেবে অক্টোবরে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুটি ম্যাচ খেলবে পাকিস্তান। সিরিজটি পাকিস্তানের দ্বিতীয় হোম সংযুক্ত আরব আমিরাতেই খেলার কথা রয়েছে। কিন্তু পাকিস্তান বিদেশের মাটিতে নয়। খেলতে চাচ্ছে নিজেদের দেশের মাটিতে। এজন্য শ্রীলঙ্কাকে পাকিস্তান সফরের আমন্ত্রণও জানিয়েছে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)।

পাকিস্তানের মাটিতে দুটি টেস্ট খেলতে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড (এসএলসি) থেকে এখনো কোনো ইতিবাচক সাড়া পাওয়া যায়নি। তবে প্রস্তাবটা একেবারে বাতিলও করেনি। নিরাপত্তার বিষয়টি খতিয়ে দেখে তবেই সিদ্ধান্ত জানাবে তারা।

সিঙ্গাপুরে এশিয়া কাপ মিটিং থেকেই দুই দেশের বোর্ডের মধ্যে আলোচনা চলছে। লন্ডনে সদ্য শেষ হওয়া আইসিসির বার্ষিক সভায়ও এ প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা করেছে দুপক্ষ। লাহোর ও করাচির নিরাপত্তা পরিকল্পনা পরিদর্শন করতে  নিরাপত্তা প্রতিনিধি দল পাঠাবে শ্রীলঙ্কা। প্রতিনিধি দলের প্রতিবেদন হাতে পেলেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবে এসএলসি।

যদি পাকিস্তানের মাটিতে খেলতে শ্রীলঙ্কা রাজি হয়ে যায়। তাহলে এটা হবে ২০০৯ সালে লাহোরে সন্ত্রাসী হামলার পর দেশটির মাটিতে প্রথম টেস্ট ম্যাচের আয়োজন।

২০০৯ সালে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলাটা হয়েছিল পাকিস্তান সফরত শ্রীলঙ্কার ক্রিকেট দলের ওপর। হামলায় নিরাপত্তা কর্মীসহ নিহত হয় আটজন। আহত হয় কয়েকজন লঙ্কান ক্রিকেটার। এর পর ক্রিকেট দুনিয়া থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় পাকিস্তান। এবং নিজেদের সব হোম সিরিজ মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতেই খেলে যাচ্ছে তারা।

ছয় বছর পাকিস্তানে কোনো আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচই হয়নি। গত চার বছরে কৌশলে অবশ্য কিছু ম্যাচ খেলেছে পাকিস্তান ঘরের মাঠে। তবে টেস্ট ম্যাচ আয়োজন এখনো অনেক দূরের ব্যাপার।

২০০৯ সালের সেই কালো অধ্যায়ের পর আইসিসির প্রথম পূর্ণ সদস্য হিসেবে জিম্বাবুয়ে পাকিস্তান সফর করে ২০১৫ সালে। ২০১৭ সালের মার্চে গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে হয় পাকিস্তান সুপার লিগের ফাইনাল।
পরে সেপ্টেম্বরে তিন ম্যাচের টি-টুয়েন্টি খেলতে যায় বিশ্ব একাদশ। একই বছর শ্রীলঙ্কার টি-টুয়েন্টি দল একটি ম্যাচ খেলতে সফর করে পাকিস্তান।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র