Alexa

শুরুটা অনেক কিছু, ওটা ভালো করতে হবে: মাশরাফি

শুরুটা অনেক কিছু, ওটা ভালো করতে হবে: মাশরাফি

লন্ডনে ১০ দলের অধিনায়কদের সম্মিলিত সংবাদ সম্মেলনে ছিলেন বাংলাদেশের মাশরাফি বিন মর্তুজা- ছবি: আইসিসি

আজ থেকে চার বছর আগেও এমনভাবেই বিশ্বকাপের অধিনায়কদের জন্য আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ছিলেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। কিন্তু তখন এমন কোনো প্রশ্ন তাকে শুনতে হয়নি। এবার শুনতে হলো। উত্তরটাও বেশ দারুণ দক্ষতার সঙ্গেই দিলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

লন্ডনে বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় দুপুরে এবারের বিশ্বকাপে অংশগ্রহণকারী ১০ দলের অধিনায়কদের সম্মিলিত সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ১০ অধিনায়কের সবাই মঞ্চে সোফায় বসে প্রশ্ন শুনেন এবং উত্তর দেন। বেশ ক্রিকেটীয় হাসি আনন্দের রেশ নিয়ে চলে ঘণ্টাখানেকের বেশি এই সংবাদ সম্মেলন।

সেখানে বাংলাদেশ অধিনায়কের দিকে প্রশ্ন উড়ে আসে-‘পেছনের চার বছরে ওয়ানডে ক্রিকেটে বাংলাদেশ যে এত উন্নতি করেছে। টানা নয়টি ওয়ানডে সিরিজ জিতেছে বিশ্বকাপে খেলতে এসেছে আত্মবিশ্বাসের মেজাজে অনেক দূর যাওয়ার প্রত্যাশা নিয়ে। এই উত্তরণ ও সাফল্যের রহস্য কি?’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/23/1558624178266.jpg

কৃতিত্বের সব নির্যাস অধিনায়ক তার দলের মধ্যে ভাগ করে দিলেন। বললেন-‘ আমরা দুর্দান্ত একটা দল পেয়েছি। সিনিয়র-জুনিয়র মিলে আমাদের পুরো দলটার চমৎকার একটা মিশ্রণ হয়েছে। কাজের সময় সবাই পারফর্ম করছে। এই যে আয়ারল্যান্ডে আমরা সর্বশেষ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট খেলে এলাম, সেখানে পুরো দলটাই খুবই ভালো ক্রিকেট খেলেছে। এখন আশায় আছি এখানে এই বিশ্বকাপেও আমরা একটা ভালো শুরু করতে চাই। ভালো শুরুটা অনেক কিছু। ২ জুন টুর্নামেন্টে আমাদের প্রথম ম্যাচ। এই যে ফাফ (ফাফ ডু প্লেসিস) এখানে বসে আছে, তার দল দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে আমাদের প্রথম ম্যাচ। আশা করছি আমরা সেখানে ভালো শুরু করতে পারব।’

মাশরাফির মন্তব্যটা শেষ হতেই মঞ্চে বসা উপস্থাপক দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিসের দিকে প্রশ্নের ভঙ্গিতে তাকালেন। ফাফ ডু প্লেসিস বেশি কিছু বললেন না। শুধু উচ্চারণ করলেন, ‘আমি সেটা আশা করছি না।’

সঙ্গে সঙ্গে পুরো মঞ্চে হাসির ফোয়ারা!

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/23/1558624193630.jpg

-এই যে বাংলাদেশ এখন বিশ্বমঞ্চে বুক ফুলিয়ে বলতে পারে আমরা যে কোনো দলকে হারাতে পারব। ট্রফি জয়ের দাবিদার বাংলাদেশও। বদলে যাওয়া বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের এই আত্মবিশ্বাস ও মানষিক শক্তির মূল উৎস কি?

মাশরাফির উত্তর, ‘আসলে ক্রিকেট হলো এমন খেলা, এখানে যে কোনো দল যে কাউকে হারাতে পারে। আর আমাদের মতো দলের জন্য শুরু করাটাও হলো অনেক গুরুত্বের ব্যাপার। ভালো শুরু হলে, ভালো লড়তেও পারি আমরা। সেই ভালো শুরুর অপেক্ষায় আছি আমরা।’

মাশরাফির এই অপেক্ষায় থাকার ইচ্ছেটা নিশ্চয়ই এবারো দক্ষিণ আফ্রিকা অধিনায়কের ভালো লাগার কথা নয়। বিশ্বকাপের মঞ্চে দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারানোর সুখকর অভিজ্ঞতা আছে বাংলাদেশের। ফাফ ডু প্লেসিসকে তখনো ক্রিকেট বিশ্ব চেনে না। সেই তখনই ২০০৭ সালের বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকাকে সুপার এইটের লড়াইয়ে হারিয়েছিলো বাংলাদেশ।

তাহলে আরেকবার নয় কেন?

আপনার মতামত লিখুন :