Barta24

শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬

English

ইনজুরিতে আউট শারাপোভা

ইনজুরিতে আউট শারাপোভা
নাম প্রত্যাহার করলেন শারাপোভা, গ্ল্যামার হারাল ফ্রেঞ্চ ওপেন
সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

নিষিদ্ধ ড্রাগ সেবন করে ১৫ মাস টেনিস থেকে নির্বাসিত ছিলেন তিনি। সেই ধাক্বা সামলে কোর্টে ফিরেছেন ২০১৭ সালের এপ্রিলে। কিন্তু তারপর থেকে সাফল্য অধরা হয়েই আছে মারিয়া শারাপোভার। তবে ফ্রেঞ্চ ওপেন নিয়ে স্বপ্ন ছিল ৩২ বছর বয়সী এই টেনিস তারকার। এই আসরে দুবারের চ্যাম্পিয়ন তিনি। গেল বছরই রোলা গ্যাঁরোর এই টুর্নামেন্টের কোয়ার্টার ফাইনালে পা রাখেন। যদিও গারবিন মুগুরুসার বিপক্ষে শেষ আটের লড়াইয়ে হার মানেন।

এবারও ক্লে কোর্টে ঝড় তুলতে চেয়েছিলেন শারাপোভা। কিন্তু দুর্ভাগ্য পিছু নিয়েছে তার। সেই পুরনো কাঁধের ব্যাথায় কাঁবু তিনি। ২০১২ ও ২০১৪ সালের চ্যাম্পিয়ন খেলছেন না ২৬ মে শুরু হতে যাওয়া ফরাসি ওপেনে।

অন্তর্জালের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে শারাপোভা জানান, ‘অনেকসময় সঠিক সিদ্ধান্তগুলো নেওয়া সহজ হয় না। তারপরও ফরাসি ওপেন থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিলাম আমি।’

এখানেই শেষ নয়, রাশিয়ার এই গ্ল্যামার গার্ল আরো জানান, ‘ভালো খবর হলো- ফের অনুশীলন কোর্টে ফিরেছি আমি। কাঁধে শক্তি ফিরে পাচ্ছি। কোর্টে ফেরার জন্য এটিই সঠিক সময় নয়। এবার প্যারিসকে খুবই মিস করবো।’ এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে কাঁধে ছোট্ট একটি অস্ত্রোপচার করান তিনি। তারপর থেকেই কোর্টের বাইরে সময় কাটছে ৫টি গ্র্যান্ড স্লাম জয়ী এই তারকার।

এই বছরটা অবশ্য চোটের কারণে স্বস্তি পাচ্ছেন না সাবেক এই নাম্বার ওয়ান। বছরের প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যাম অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে উঠেছিলেন শেষ ষোলোতে। তারপর থেকে সংগ্রাম চলছেই!

আপনার মতামত লিখুন :

টানা তিন ম্যাচে হারল বাংলাদেশের মেয়েরা

টানা তিন ম্যাচে হারল বাংলাদেশের মেয়েরা
বল দখলেও পিছিয়ে থাকল বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব ২১ নারী দল

সেই একই গল্প! হারের বৃত্তেই বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব ২১ নারী হকি দল। তবে আগের দুই ম্যাচে ৬টি করে গোল হজম করলেও এবার কিছুটা উন্নতিও হয়েছে। ভারতের সাই ন্যাশনাল হকি একাডেমি নারী দল সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে তুলে নিয়েছে ৩-০ গোলের জয়।

রাজধানীর মওলানা ভাসানী স্টেডিয়ামে শুক্রবার বাংলাদেশের মেয়েরা প্রথমার্ধ শেষ করে ০-২ গোলে পিছিয়ে থেকে। এরপর তৃতীয় কোয়ার্টারে আরেকটি গোল হজম করে। স্বস্তি এটাই এবার কম গোল হজম করেছে তারা।

ম্যাচে ভারতীয় দলটির হয়ে গোল তিনটি করেন সাক্ষী, লালওয়ান পুই ও লালরুতাফেলি মেসাবি।

৯ সেপ্টেম্বর থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর সিঙ্গাপুরে অনুষ্ঠিত হবে ওমেন্স জুনিয়র এএইচএফ কাপ। এই লড়াইয়ের আগে ঘরের মাঠে প্রস্তুতি পর্বে ভারতের সাই জাতীয় হকি একাডেমির নারী দলের সঙ্গে লড়ছে মেয়েরা। ৬ ম্যাচের সিরিজ খেলছে দুই দল।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/23/1566577980346.jpg

শুক্রবার ম্যাচের আগে দুই দলের খেলোয়াড়দের সঙ্গে সৌজন্য স্বাক্ষাৎ করেন বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের সভাপতি এয়ার চীফ মার্শাল মাসিহুজ্জামান সেরনিয়াবাত বিবিপি, ওএসপি, এনডিইউ, পিএসসি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রনালয়ের সচিব ড. মোহাম্মদ জাফর উদ্দীন, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ ওয়াসেক মোহাম্মদ আলী, গ্রীন ডেল্টা ইন্সুরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের সিনিয়র কনসালটেন্ট এ এস এ মুইজ ও ওয়ালটনের নির্বাহী পরিচালক ইকবাল বিন আনোয়ার ডন।

সিরিজের শেষ তিনটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে ২৫, ২৬ ও ২৭ আগস্ট।

তাই বলে ইংল্যান্ড ৬৭ রানে অলআউট?

তাই বলে ইংল্যান্ড ৬৭ রানে অলআউট?
জশ হেইজেলউড তুলে নেন ৫ উইকেট

হেডিংলিতে রীতিমতো দুঃস্বপ্ন সঙ্গী হয়েছে ইংল্যান্ডের। অথচ উইকেটে তেমন রহস্য ছিল কোথায়? দিনের আলোতে ঠিকঠাক খেলতে পারলে ঠিকই আরও কিছুটা সময় উইকেটে কাটিয়ে দিতে পারতেন ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যানরা। কিন্তু রোদ ঝলমলে দিনেই দেখা মিলল অস্ট্রেলিয়ার দুর্দান্ত বোলিং। কিন্তু তাই বলে মাত্র ৬৭ রানে অলআউট? হিসাবটা ঠিক মিলছে না!

অথচ এর আগে অজিদের ১৭৯ রানে অলআউট করে হাসিমুখে সাজঘরে ফিরেছিল ইংলিশরা। কিন্তু এরপর ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় সর্বনাশ। সব মিলিয়ে  অ্যাশেজের তৃতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার লিড ১১২ রান।

হেডিংলি টেস্টে বেশ দাপটই ছিল ইংল্যান্ডের। নিজেদের মাঠে বোলারদের ম্যাজিকে অজিদের চেপে ধরেছিল তারা। কিন্তু সেই হাসিমুখটা শেখ অব্দি থাকল না। কারণ শুক্রবার একশ রানের আগেই যে শেষ তাদের প্রথম ইনিংস। আরেকটু হলে অজিদের বিপক্ষে নিজেদের ইতিহাসের সর্বনিম্ম রানের লজ্জায় পড়তে যাচ্ছিল তারা।

১৯৪৮ সালে ওভালে মাত্র ৫২ রানে অলআউট হয়েছিল ইংল্যান্ড। যা কীনা টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তাদের সর্বনিম্ন ইনিংস। এবার ২৭.৫ ওভার খেলে দল তুলল ৬৭ রান। বিস্ময়কর হলেও সত্য দুই অঙ্ক ছুঁয়েছেন শুধু জো ডেনলি (১২)।

সেই দুঃস্বপ্নের পথেই যাত্রা হয়েছিল ইংলিশদের। জশ হেইজেলউড বোলিং তোপে তছনছ ব্যাটিং লাইন আপ। এই পেসার শিকার করেন ৫ উইকেট। গতির ঝড় তুলে কম যান নি প্যাট কামিন্সও। তিনি নেন ৩ উইকেট। দুটি উইকেট শিকার করেন জেমস প্যাটিনসন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর-

অস্ট্রেলিয়া ১ম ইনিংস: ১৭৯/১০
ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস: ২৭.৫ ওভারে ৬৭/১০ (বার্নস ৯, রয় ৯, রুট ০, ডেনলি ১২, স্টোকস ৮, বেয়ারস্টো ৪, বাটলার ৫, ওকস ৫, আর্চার ৭, ব্রড ৪*, লিচ ১; কামিন্স ৩/২৩, হেইজেলউড ৫/৩০, প্যাটিনসন ২/৯)।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র