Alexa

গোল উৎসবের অপেক্ষায় মেয়েরা

গোল উৎসবের অপেক্ষায় মেয়েরা

এবার বড় জয় চায় বাংলাদেশের মেয়েরা- ছবি: ফেসবুক

বয়সভিত্তিক ফুটবলে বেশ কয়েক বছর ধরেই দাপট বাংলাদেশের নারী ফুটবলারদের। গোল উৎসব করে জেতাটা অভ্যাস হয়ে গেছে! এ কারণেই বঙ্গমাতা আন্তর্জাতিক অনূর্ধ্ব-১৯ গোল্ডকাপের প্রথম ম্যাচে ২-০ গোলের জয়েও খুশি নয় লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। সংযুক্ত আরব আমিরাতের পর এবার মেয়েদের প্রতিপক্ষ কিরগিজস্তান।

শুক্রবার ‘বি’ গ্রুপের শেষ ম্যাচে কিরগিজদের সঙ্গে লড়বে বাংলাদেশের মেয়েরা। এই ম্যাচের আগে মঙ্গলবার বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের টার্ফে অনুশীলন করেছে দল। অনুশীলন পর্ব শেষে দলের ফুটবলাররা জানালেন আরো বড় ব্যবধানে জেতাই লক্ষ্য তাদের। আগের ম্যাচে গোল মিসের মহড়া দিলেও এবার ভুলের ফাঁদে পা দিতে রাজি নন তারা।

দলের তারকা ফুটবলার সিরাত জাহান স্বপ্না জানালেন, ‘আমরা সেলফিশ গেম খেলেছি, এই অভিযোগ মোটেও ঠিক না। আমরা চেষ্টা করেছি, সুযোগ তৈরি করেছি; কিন্তু গোল হয়নি।’

সংযুক্ত আরব আমিরাতের সঙ্গে যেভাবে সুযোগ নষ্ট হয়েছে তেমনটি আর যেন সামনে না হয় এজন্য সতর্ক স্বপ্না, ‘সামনের ম্যাচে যেন এভাবে গোল মিস না হয় তা নিয়ে সতর্ক থাকতে হবে আমাদের। সুযোগ পেলে কাজে লাগাতে চাইব। তবে এটা ঠিক আমিরাতের বিপক্ষে আমরা অনেক গোল মিস করেছি। কিরগিজস্তান ম্যাচে চেষ্টা করব যেন এভাবে গোল মিস না হয়। যে ম্যাচ চলে গেছে, তা নিয়ে ভেবে লাভ নেই।’

বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচে গোল পেয়েছেন স্বপ্না। আলাদা করে নিজের লক্ষ্য নেই তার। মঙ্গলবার জানাচ্ছিলেন, ‘টুর্নামেন্টে সর্বোচ্চ গোলদাতা হবো কীনা এ নিয়ে কথা বলতে চাই না। নিজে গোল করার চেয়ে দল জিতলেই বেশি খুশি। দলকে জেতানোই আমাদের প্রধান লক্ষ্য। সর্বোচ্চ গোলদাতা কে হবে সেটা নিয়ে চিন্তা করি না। যার পা থেকে গোল হয় হোক, আমাদের গোলের সংখ্যা বাড়ুক।’

প্রথমবারের মতো জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহধর্মিণী শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের নামে কোনো আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এই টুর্নামেন্টে সুযোগগুলো কাজে লাগাতে চান স্বপ্না। জানালেন, ‘আমি যেহেতু স্ট্রাইকার। অবশ্যই সুযোগ কাজে লাগানোর চেষ্টা করবো। প্রথম ম্যাচে আমাদের কিছু দুর্বলতা ছিল। আমরা অনেক গোল মিস করেছি। পরের ম্যাচে এই ভুলগুলো আর হবে না। আশা করছি আমরা সুযোগ কাজে লাগাতে পারব।’

আপনার মতামত লিখুন :