Alexa

নোবিপ্রবি'র আবাসিক হলে সাপের উপদ্রব

নোবিপ্রবি'র আবাসিক হলে সাপের উপদ্রব

নোবিপ্রবি’র ভাষা শহীদ আব্দুস সালাম হলে সোমবার সাপটি ধরা পড়ে। পরে শিক্ষার্থীরা সাপটি পিটিয়ে মেরে ফেলে। হলটিতে প্রায়ই এভাবে সাপের দেখা পাওয়া যায়/ ছবি: বার্তা২৪

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) ভাষা শহীদ আব্দুস সালাম হলে সাপের উপদ্রব বেড়েই চলছে। এতে মারাত্মক ঝুঁকি আর আতঙ্কের মধ্যে আছেন শিক্ষার্থীরা। তবে সমস্যা সমাধানে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

হলটিতে প্রায়ই সাপ ধরা পড়ে। সর্বশেষ সোমবার (২০ মে) সকালে হলের ভেতর আবর্জনা পরিষ্কার করতে গিয়ে একটি সাপ দেখতে পান পরিচ্ছন্নতাকর্মী। পরে হলের কয়েকজন শিক্ষার্থী নিয়ে তিনি সাপটি পিটিয়ে মেরে ফেলেন।

এর আগে গত ৯ মে হলের ১২০ নম্বর কক্ষে একটি সাপ দেখতে পান ওই রুমের ছাত্ররা। পরে তারা সাপটি পিটিয়ে মেরে ফেলেন।

হলের কয়েকজন আবাসিক শিক্ষার্থী বলেন, হলের আশেপাশের ময়লা আবর্জনা ও আগাছা নিয়মিত পরিষ্কার করা হয় না। ফলে পোকামাকড়, মশা ও সাপের উপদ্রব বেড়েই চলছে।এটা কি হল নাকি বস্তি! পরিচ্ছন্নতাকর্মী নিয়মিত আসে না। হলে অনিয়ম আর অব্যবস্থাপনার শেষ নেই। আমরা নিজেদের জীবন নিয়ে শঙ্কায় আছি। বিষধর সাপ কামড় দিলে আমাদের অবস্থা কী হবে, তা হল প্রশাসনের একবার ভাবা উচিৎ। আমরা দ্রুত এর সমাধান চাই।

নোবিপ্রবির হলে ময়লার স্তূপ, সাপের উপদ্রব
নোবিপ্রবির হলে ময়লার স্তূপ, সাপের উপদ্রব

 

এ বিষয়ে হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. গাজী মো.মহসীন বলেন, পরিচ্ছন্নতাকর্মীর সংকটের কারণে হলের ভেতরের এবং বাইরের ময়লা আবর্জনা ও আগাছা নিয়মিত পরিষ্কার করা সম্ভব হয়ে ওঠে না। মঙ্গলবার (২১ মে) কার্বলিক এসিড ক্রয়ের ব্যবস্থা গ্রহণ করব। আশা করি, হলে আর সাপের উপদ্রব থাকবে না।

নতুন কর্মচারী নিয়োগের ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন, নতুন কর্মচারী নিয়োগের জন্য আমরা আবেদন করেছি। আশা করি, সমস্যাগুলোর দ্রুত সমাধান হবে।

আপনার মতামত লিখুন :

ক্যাম্পাস এর আরও খবর