Barta24

রোববার, ২১ জুলাই ২০১৯, ৬ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

বুধবার থেকে জাবিতে ৪১ দিনের ছুটি

বুধবার থেকে জাবিতে ৪১ দিনের ছুটি
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়, ছবি: বার্তা২৪.কম
জাবি করেসপন্ডেন্ট
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

মে দিবস, গ্রীষ্মকালীন ছুটি, বৌদ্ধ পূর্ণিমা, রমজান, জুমাতুল বিদা, শব-ই-কদর ও ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ৪১ দিনের ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

বুধবার (১ মে) থেকে এ ছুটি শুরু হয়ে আগামী ১০ জুন পর্যন্ত চলবে। মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার রহিমা কানিজ এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

সম্প্রতি ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার সাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, মে দিবস, গ্রীষ্মকালীন ছুটি, বৌদ্ধ পূর্ণিমা, রমজান, জুমাতুল বিদা, শব-ই-কদর ও ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে পূর্ব নির্ধারিত ছুটি একদিন বৃদ্ধি করে ১ মে থেকে ১০ জুন করা হয়েছে। এর আগে ছুটি ছিল ১ মে থেকে ৯ জুন পর্যন্ত।

এছাড়া এ উপলক্ষে অফিসসমূহ বন্ধ থাকবে ১ মে, ১৮ মে এবং ২৬ মে থেকে ১০ জুন পর্যন্ত।

আপনার মতামত লিখুন :

অধিভুক্তি বাতিলের দাবিতে ঢাবিতে টানা কর্মসূচি

অধিভুক্তি বাতিলের দাবিতে ঢাবিতে টানা কর্মসূচি
প্রশাসনিক ভবন, কলাভবন, ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ, সমাজ বিজ্ঞান অনুষদে তালা দেয় শিক্ষার্থীরা, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

সরকারি সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ভবনে তালা দিয়েছেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। এতে ক্লাস, পরীক্ষা ও অফিসিয়াল সব ধরণের কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। কোনো ধরণের আশ্বাস না পেলে এ কর্মসূচি লাগাতার পালন করার ঘোষণা দেয় শিক্ষার্থীরা।

রোববার (২১ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবন, কলাভবন, ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ, সমাজ বিজ্ঞান অনুষদে তালা দেয় শিক্ষার্থীরা।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/21/1563697087660.jpg
বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো উপাচার্য (প্রশাসন) তার গাড়ি নিয়ে রেজিস্ট্রার ভবনে ঢুকতে চাইলে শিক্ষার্থীরা বাঁধা দেন

 

অবিলম্বে সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের এক দফা দাবিতে আন্দোলন করছেন তারা। অধিভুক্তি বাতিলের দাবি না মেনে নেয়া পর্যন্ত তালা খুলবেনা বলে জানান আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা।

এদিকে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের ফলে সকালে ক্লাস করতে এসে ফিরে গেছেন অনেক শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। এর আগে ৮টায় কর্মচারীরা তালা খুলতে আসলে তাদেরকে তালা খুলতে বাঁধা দেয় আন্দোলনকারীরা।

সকাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ভবনের সামনে অবস্থান করে বিভিন্ন স্লোগান দেন শিক্ষার্থীরা। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো উপাচার্য (প্রশাসন) তার গাড়ি নিয়ে রেজিস্ট্রার ভবনে ঢুকতে চাইলে শিক্ষার্থীরা বাঁধা দেন। বেলা ১১টা থেকে রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে শিক্ষার্থীরা অবস্থান করছে।   সেখান থেকে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা দেওয়ার কথা রয়েছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/21/1563697299763.jpg

 

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা বলেন, 'আমরা রোদে পুড়ে শাহবাগে আন্দোলন করি আর প্রশাসন আমাদের সাথে যোগাযোগ না করে এসির বাতাস খায়। ধিক্কার জানাই প্রশাসনকে। তাই আমরা রেজিস্টার বিল্ডিং, কলাভবন, এফবিএস, সমাজ বিজ্ঞান অনুষদে তালা ঝুলিয়েছি।' 

সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিল না হওয়া পর্যন্ত কোনো তালা খোলা হবে না বলেও জানান আন্দোলনকারী  শিক্ষার্থীরা।

শাবিপ্রবি ক্যাম্পাস পরিষ্কার রাখতে ৯০টি গার্বেজ বিন উদ্বোধন

শাবিপ্রবি ক্যাম্পাস পরিষ্কার রাখতে ৯০টি গার্বেজ বিন উদ্বোধন
'ক্লিন সাস্ট মুভমেন্ট' এর ব্যানারে ৯০টি গার্বেজ বিন উদ্বোধন করা হয়েছে, ছবি: বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) ক্যাম্পাস পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য প্রশাসনের উদ্যোগে ৯০টি গার্বেজ বিন উদ্বোধন করা হয়েছে।

রোববার (২১ জুলাই) সকাল সাড়ে ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার ভবনের সামনে 'ক্লিন সাস্ট মুভমেন্ট' এর ব্যানারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ গার্বেজ বিনগুলো উদ্বোধন করেন। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন আইএমএলের পরিচালক অধ্যাপক ড. আলমগীর তৈমুর, আইকিউএসির পরিচালক অধ্যাপক ড. আশরাফুল আলম, অতিরিক্ত পরিচালক অধ্যাপক আনোয়ারুল হোসেন, অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার রাজন দাস, সহকারী অধ্যাপক মিজানুর রহমান, কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাটের সহকারী কমিশনার আহমেদুর রেজা চৌধুরী প্রমুখ।

উদ্বোধনের সময় উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, 'শাবিপ্রবিকে বাংলাদেশের সবচেয়ে সুন্দর, পরিচ্ছন্ন এবং সেরা বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে। আপাতত ৯০টি বিন দেওয়া হয়েছে সামনে চাহিদা অনুযায়ী ক্যাম্পাসে আরও বিন দেওয়া হবে। আর ময়লা বিন ফেলার জন্য সবাইকে উদ্বুদ্ধ করতে হবে। সবাইকে নিজ নিজ জায়গা থেকে এগিয়ে আসলে বিশ্ববিদ্যালয়কে সম্পূর্ণরূপে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখা সম্ভব।'

অধ্যাপক ড. আলমগীর তৈমুর বলেন, 'গত বছর কয়েকজন শিক্ষার্থী নিয়ে ক্ষুদ্র পরিসরে ক্যাম্পাস পরিষ্কারের কাজ শুরু করি। আমাদের এই কাজটি বিশ্ববিদ্যালয়ের নজরে আসায় এখন ৯০টি বিন দেওয়া হয়েছে।'

প্রসঙ্গত ২০১৮ সালের জানুয়ারি মাসে অধ্যাপক ড. আলমগীর তৈমুরের নেতৃত্বে একদল শিক্ষার্থী সপ্তাহে ২/৩ দিন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ভবন এবং রাস্তা পরিষ্কার করা শুরু করে। এই কর্মসূচীর নাম দেওয়া হয় 'ক্লিন সাস্ট মুভমেন্ট'। পরবর্তীতে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন স্থানে ২৭টি গার্বেজ বিন স্থাপন করা হয়। এখন দুই ধাপে সর্বমোট ১১৭টি গার্বেজ বিন স্থাপন করা হয়েছে। 

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র